Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : রবিবার, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:৪৪
বর্জ্য অপসারণে সহায়তা চান আনিস
নিজস্ব প্রতিবেদক
বর্জ্য অপসারণে সহায়তা চান আনিস

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হক পশুবর্জ্য অপসারণে সবার সহযোগিতা চেয়ে বলেছেন, ‘নগরবাসী ও মিডিয়ার সহযোগিতায় আমরা পরিচ্ছন্নতা অভিযান শুরুর ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ঢাকা শহরের পশুবর্জ্য সম্পূর্ণ অপসারণে সক্ষম হব। ’ গতকাল গুলশান-২ ডিএনসিসি কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ আহ্বান জানান।

তিনি নির্দিষ্ট জায়গায় কোরবানি দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। কোরবানি ঈদ উপলক্ষে ডিএনসিসির পরিকল্পনা ও সার্বিক কার্যক্রম কী হবে, তা তুলে ধরে আনিসুল হক বলেন, ‘আমাদের পর্যাপ্তসংখ্যক পরিচ্ছন্নতা কর্মী ও প্রয়োজনীয় সরঞ্জামাদি প্রস্তুত রয়েছে। এবার ডিএনসিসির পক্ষ থেকে ১৯৬টি স্থান কোরবানির জন্য নির্ধারণ করা হয়েছে। এর বাইরেও অনেকে কোরবানি করবেন। সব মিলিয়ে উত্তর সিটি করপোরেশনের ৬৪৮টি পয়েন্টে কোরবানি হবে। ’ তিনি বলেন, গত বছরের মতো এবারও ঈদের দিন বেলা ২টা থেকে পরবর্তী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে সমস্ত শহর পরিষ্কার করা হবে। এজন্য এরই মধ্যে মাইকিং, পলিব্যাগ বিতরণ শুরু হয়েছে। ডিএনসিসির প্রতিটি ঘরেই পলিব্যাগ পৌঁছে দেওয়া হবে। বর্জ্য অপসারণে ডিএনসিসির ২ হাজার ২২৫ জন পরিচ্ছন্নতা কর্মীর পাশাপা?শি আউটসোর্সিংয়ের মাধ্যমে ১ হাজার ৫ জন পরিচ্ছন্নতা কর্মী নিযুক্ত থাকবে। এ ছাড়া দুটি কন্ট্রোল রুম সর্বক্ষণ খোলা থাকবে। তিনি বলেন, ডিএনসিসি নির্ধারিত ১৯৬টি পয়েন্টে ৮২৪ জন ইমাম ও ৭৫৫ জন কসাই নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে। সংবাদ সম্মেলন শেষে একটি জনসচেতনতামূলক র‌্যালি বের করা হয়।

up-arrow