Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : সোমবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২২:৫৫
একই পরিবারের তিন শিশুর মৃত্যু
সড়কে গেল আরও ১৮ প্রাণ
প্রতিদিন ডেস্ক

ঈদের ছুটি শেষ হওয়ার পর চতুর্থ দিনে গতকাল বিভিন্ন সড়ক পথে দুর্ঘটনায় আরও ১৮ জনের প্রাণ ঝরেছে। পাশপাশি আহত হয়েছেন অন্তত অর্ধশত মানুষ।

আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর—

কুমিল্লা : লাকসামের ছিলোনিয়া ব্রিজের কাছে যাত্রীবাহী প্রাইভেটকার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খালে পড়ে একই পরিবারের তিন শিশুসহ পাঁচজন নিহত হয়েছেন। এ সময় আরও তিনজন আহত হয়েছেন। গতকাল সকাল সাড়ে ৭টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। স্থানীয় ও পুলিশ সূত্র জানায়, নোয়াখালীর চাটখিল থেকে ঢাকাগামী একটি প্রাইভেটকার লাকসামের ছিলোনিয়া এলাকায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পার্শ্ববর্তী খালে পড়ে পানিতে ডুবে যায়। গাড়িতে থাকা চাটখিল উপজেলার সোবহানপুর গ্রামের (ঢাকায় আল আরাফাহ ব্যাংকে কর্মরত) আনোয়ারুল কবির সোহাগ (৪০), তার ছেলে সাহেদ আল মুন্তাকিম শাহীন (৪), বার্জার পেইন্টে কর্মরত একই এলাকার বাদশা মিয়ার ছেলে শাহাবুদ্দিন রবি (৪৫), তার মেয়ে রাইকা তাবাসুম (৭), অপর মেয়ে রাইসা মুনতাসির (১২) পানিতে ডুবে মারা যায়। এ ছাড়া নিহত শাহাবুদ্দিন রবির স্ত্রী জান্নাতুম নাঈম (২৯), তার কন্যা মাহী মুনতাসির (৬), নিহত আনোয়ারুল কবির সোহাগের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী মারজান বেগম নিশু (৩২) গুরুতর আহত হন। তাদের কুমিল্লা ও লাকসামের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। লাকসাম থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আশফাকুর রহমান জানান, লাকসাম থানা পুলিশ, লালমাই হাইওয়ে পুলিশ, লাকসাম ফায়ার সার্ভিস ও কুমিল্লা থেকে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে পানির নিচ থেকে দুর্ঘটনাকবলিত প্রাইভেটকার ও হতাহত যাত্রীদের উদ্ধার করে। চালকের কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। ধারণা করা হচ্ছে দুর্ঘটনার পর চালক পালিয়ে গেছে। টাঙ্গাইল : টাঙ্গাইলের দেলদুয়ারে যাত্রাবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে একজন নিহত ও অন্তত ১৭ জন আহত হয়েছেন। গতকাল গভীররাতে উপজেলার গেং ডুবাইল এলাকার এ দুর্ঘটনা ঘটে। গোড়াই হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খলিলুর রহমান পাটোওয়ারি জানান, রাতে ঢাকা থেকে ঠাকুরগাঁওগামী একটি যাত্রীবাহী বাস ঘটনাস্থলে পৌঁছালে চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে। এ সময় বাসটি পার্শ্ববর্তী খাদে পড়ে যায়। ঘটনাস্থলেই একজন নিহত হন। আহত হন অন্তত ১৭ জন। তাদের মির্জাপুর কুমুদিনী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আহতদের মধ্যে তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাত্ক্ষণিকভাবে হতাহতদের পরিচয় জানা সম্ভব হয়নি। এদিকে টাঙ্গাইলে মধুপুরে শনিবার সন্ধ্যায় বাস-ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনায় আহত আরও দুজনের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল সকালে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় চম্পা আক্তার লাইলী (৪৫) ও ঘাটাইল সিএমএইচে তার ছেলে লিখন (৮) মারা যায়। এই নিয়ে দুর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ছয়জনে। চম্পা কালিহাতী উপজেলার বিলপালিমা গ্রামের লুত্ফর রহমান তালুকদারের স্ত্রী। আর লিখন ওই এলাকার প্রি-প্রারেটরি কিন্ডারগার্টেনের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র ছিল। গাজীপুর : গাজীপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় আবদুল করিম (৪৫) নামে এক পল্লী চিকিৎসক নিহত এবং তিনজন আহত হয়েছেন। নিহত আবদুল করিম টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার জালালিয়া গ্রামের কালু মিয়ার ছেলে। চক্রবর্তী পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই আবদুল হামিদ জানান, গতকাল সকাল পৌনে ৯টার দিকে চন্দ্রা-নবীনগর মহাসড়কের গাজীপুর সিটি করপোরেশনের চক্রবর্তীতে জিরানীগামী একটি ব্যাটারিচালিত অটোরিকশাকে একই দিক থেকে আসা অপর একটি মাইক্রোবাস চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই অটোরিকশার যাত্রী আবদুল করিম মারা যান এবং গুরুতর আহত হন অপর তিন যাত্রী। মাইক্রোবাস ও চালককে আটক করেছে পুলিশ। সাভার : আশুলিয়ায় মেয়ের বাড়িতে বেড়াতে এসে যাত্রীবাহী বাসের চাপায় মান্নান শেখ (৭০) নামে এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। গতকাল সকালে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের নবীনগর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত বৃদ্ধা যশোরের মনিরামপুর এলাকার পাচাকরি গ্রামের বাসিন্দা। প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, সকালে তিনি আশুলিয়ার নবীনগর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এসে রাস্তা পার হচ্ছিলেন। এ সময় আরিচা থেকে ছেড়ে আসা সাকুরা পরিবহনের (ঢাকা মেট্রো-ব ১১-৮৫৭৩) একটি যাত্রীবাহী বাস তাকে চাপা দেয়। পরে স্থানীয়রা তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে গণস্বাস্থ্য সমাজ ভিত্তিক মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ছাড়া নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়কে মাইক্রোবাসের ধাকায় ব্যাটারি চালিত অটোরিকশার এক যাত্রী নিহত হয়েছেন। এ সময় গুরুত্বর আহত হন আরও চারজন। গতকাল সকালে নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়কের গাজীপুরের চক্রবর্তী এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আশুলিয়ার বাইপাইল থেকে চারজন যাত্রী নিয়ে ছেড়ে আসা ব্যাটারি চালিত অটোরিকশাটি নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়কের গাজীপুরের চক্রবর্তী এলাকায় পৌঁছালে পিছন থেকে একটি মাইক্রোবাস এটিকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই অটোরিকশার এক যাত্রী নিহত হন। চট্টগ্রাম : চট্টগ্রামে বাসচাপায় সালেহ আহমেদ (৭৫) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। এ সময় আরও ছয়জন আহত হয়েছেন। গতকাল সকালে নগরীর ডবলমুরিং থানাধীন দেওয়ানহাট মোড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত সালেহ আহমেদ হালিশহর থানাধীন মুন্সিপাড়া এলাকার বাসিন্দা। তিনি নগরীর বারিক বিল্ডিং এলাকায় একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ছিলেন। ডবলমুরিং থানা পুলিশ জানায়, সকালে কর্মস্থলে যাওয়ার জন্য দেওয়াহাট মোড় এলাকায় বাসের জন্য অপেক্ষা করছিলেন কয়েকজন যাত্রী। এ সময় আগ্রাবাদমুখী ১০ নম্বর রোডের একটি বাস তাদের চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই সালেহ আহমদ নিহত হন। মেহেরপুর : গাংনী উপজেলার অলিনগরে মোটরসাইকেলের সঙ্গে মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে সেনা সদস্য সুরুজ আলী (২৭) নিহত হয়েছেন। এ দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন সুরুজের বড় ভাইয়ের মেয়ে বৃষ্টি (১০)। নিহত সুরুজ আলী গাংনীর চাঁদপুর গ্রামের সদর উদ্দীন মুন্সির ছেলে এবং সেনাবাহিনীর একজন সৈনিক। পুলিশ জানায়, সুরজ আলী বৃষ্টিকে সঙ্গে নিয়ে শ্বশুরবাড়ি করমদি থেকে মোটরসাইকেলযোগে বাড়ি ফেরার পথে মেহেরপুর-কুষ্টিয়া সড়কের অলিনগরে মাইক্রোবাসের সঙ্গে সংঘর্ষ ঘটান। গোপালগঞ্জ : গোপালগঞ্জে গতকাল এক সড়ক দুর্ঘটনায় দুজন নিহত ও চারজন আহত হয়েছেন। হতাহতরা সবাই শ্যালো চালিত ইজিবাইকের যাত্রী ছিলেন। নিহতরা হলেন কল্পনা বেগম (৪০) ও ইজিবাইক চালক (৫০)। মৃতের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে চিকিৎসকরা আশঙ্কা করছেন। জানা গেছে, বিকাল ৫টার দিকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের মান্দারতলা নামক স্থানে ঢাকাগামী কমফোর্ট লাইনের একটি যাত্রীবাহী বাস বিপরিত দিক থেকে আসা যাত্রীবাহী ইজিবাইকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটায়। এতে ঘটনাস্থলেই ওই দুই যাত্রী নিহত হন। ব্রাহ্মণবাড়িয়া : গতকাল বিকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে বাসচাপায় মো. ধন মিয়া (৩০) নামে এক অটোরিকশা যাত্রী নিহত হয়েছেন।

সোনারগাঁ : সোনারগাঁ উপজেলা ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে কাঁচপুর এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় আজিজুল হক (৩৫) নামে এক শ্রমিক নিহত হয়েছেন। জানা গেছে, রাত ৮টায় কাঁচপুর এলাকা থেকে রহিম স্টিল মিলে কাজ করতে যাচ্ছিলেন আজিজুল। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের রাস্তা পার হওয়ার সময় ঢাকা থেকে আসা একটি যাত্রীবাহী বাস চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই আজিজুল মারা যান। আজিজুল রহিম স্টিলের একজন শ্রমিক ছিলেন।

লক্ষ্মীপুর : লক্ষ্মীপুর-রামগতি সড়কের নুই গাছতলা নামকস্থানে সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের তিন সদস্যসহ কমপক্ষে আহত হয়েছেন ১০ জন। গতকাল সন্ধ্যার আগ মুহূর্তে ঢাকাগামী সানফ্লাওয়ার বাস ও সিএনজি অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে এ ঘটনা ঘটে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow