Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : সোমবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২২:৫৮
নিউইয়র্কে বিস্ফোরণে আহত ২৯
প্রতিদিন ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের ম্যানহাটনের চেলসি এলাকায় বিস্ফোরণে কমপক্ষে ২৯ জন আহত হয়েছে। এর মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। স্থানীয় সময় শনিবার রাতে এ বিস্ফোরণ হয়। বিস্ফোরণটিকে ‘ইচ্ছাকৃতভাবে’ ঘটানো অপরাধ বলে বর্ণনা করেছে কর্তৃপক্ষ। এ ঘটনার সঙ্গে ‘সন্ত্রাসের সঙ্গে কোনো যোগসূত্র’ খুঁজে পাননি বলে জানিয়েছেন তারা। নিউইয়র্কের মেয়র বিল দ্য ব্লাসিও ও অন্যান্য নগর কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, তদন্তকারীরা বিস্ফোরণের কারণ হিসেবে গ্যাস লিকের সম্ভাবনা বাতিল করেছেন, কিন্তু তারা এটিকে বোমা বিস্ফোরণও বলছেন না এবং কীভাবে বিস্ফোরণটি ঘটেছে বলে তারা মনে করেন তাও জানাতে রাজি হননি। চেলসির বাসিন্দা নেহা জৈন (২৪) জানিয়েছেন, বাসায় বসে তিনি সিনেমা দেখছিলেন, তখন বিকট বিস্ফোরণের শব্দ পান এবং পুরো বাড়ি কেঁপে ওঠে। তিনি বলেন, ‘দেয়াল থেকে সব ছবি পড়ে যায়, পর্দাগুলো উড়তে থাকে যেন বাতাসের ঝাপটা লেগেছে। তারপর ধোঁয়ার গন্ধ পাই। কী হয়েছে দেখতে নিচে নামার সঙ্গে সঙ্গেই দমকল কর্মীরা আমাদের ফিরে যেতে বলে।’ পুলিশ জানিয়েছে, বিস্ফোরণের পরপরই স্থানীয় বাসিন্দারা বের হয়ে আসায় চার ব্লক দূরে তার দিয়ে প্রেসার কুকারের সঙ্গে সংযুক্ত একটি সেল ফোন (মোবাইল) আবিষ্কৃত হয়, এটি সম্ভবত ‘দ্বিতীয় আরেকটি ডিভাইস’। সিএনএন-এর প্রতিবেদনে আইন প্রয়োগকারী সূত্রগুলোর বরাত দিয়ে বলা হয়েছে, এই ‘ডিভাইসটির’ কাছেই কিছু লেখা একটুকরো কাগজ পাওয়া গেছে। এক সপ্তাহ আগে বিশ্ব বাণিজ্য কেন্দ্রে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার ১৫তম বার্ষিকী উপলক্ষে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলো উচ্চ সতর্কতাবস্থায় ছিল। সে পরিস্থিতির রেশ কাটতে না কাটতেই এ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটল। ফায়ার সার্ভিসের কমিশনার ড্যানিয়েল নিগ্রো বলেন, আহত ব্যক্তিদের মধ্যে ২৪ জনকে বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। তাদের বেশির ভাগই কাচ ও ধাতব পদার্থের আঘাতে আহত হয়েছে। পুলিশ বলছে, হঠাৎ বিস্ফোরণের কোনো নির্দিষ্ট কারণ খুঁজে পাওয়া যায়নি। তবে ধারণা করা হচ্ছে, কোনো গ্যাস থেকে এই বিস্ফোরণ হতে পারে। চেলসি ম্যানহাটনের অন্যতম আধুনিক ও সুসজ্জিত এলাকা। বার, রেস্তোরাঁ ও বিলাসবহুল আবাসিক ভবন রয়েছে সেখানে। ছুটির দিনগুলোতে সেখানে অনেক মানুষের ভিড় জমে। এএফপি।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow