Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শনিবার, ১ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:২৬
সার্ক নিয়ে সংকট আরও ঘনীভূত
সম্মেলন স্থগিত করল পাকিস্তান
কূটনৈতিক প্রতিবেদক

সার্কের সংকট আরও ঘনীভূত হয়েছে। বাংলাদেশ, ভারত, ভুটান ও আফগানিস্তানের পর শ্রীলঙ্কাও পাকিস্তানের ইসলামাবাদে নির্ধারিত সার্ক শীর্ষ সম্মেলনে অংশ নিচ্ছে না বলে ঘোষণা দিয়েছে।

গতকাল কলম্বোর পররাষ্ট্র দফতর নেপালে থাকা সার্ক সচিবালয়কে আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের অপারগতার কথা জানিয়েছে। শ্রীলঙ্কা কারণ হিসেবে বলেছে, পাকিস্তানের বর্তমান পরিবেশ সার্ক শীর্ষ সম্মেলন আয়োজনের উপযোগী নয়। শ্রীলঙ্কার পররাষ্ট্র দফতরের এক বিবৃতিতে এসব তথ্য জানা গেছে। অন্যদিকে, সার্কের সনদ ও অঙ্গীকার সংস্কারের আহ্বান জানিয়েছেন সার্কের চেয়ারম্যানের দায়িত্বে থাকা নেপালের প্রধানমন্ত্রী পুষ্প কমল দহল। শ্রীলঙ্কার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে গতকাল বলা হয়, ‘উপমহাদেশের বর্তমান পরিবেশ ইসলামাবাদে ৯ ও ১০ নভেম্বর ১৯তম সার্ক শীর্ষ সম্মেলন করার জন্য মোটেও সহায়ক নয়। পারস্পরিক সম্পর্কের উন্নতির জন্য সবচেয়ে আগে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে শান্তি ও সুরক্ষা দরকার। কিন্তু এ মুহূর্তে দক্ষিণ এশিয়ার পরিস্থিতি বড়ই অস্থির। শ্রীলঙ্কা এর তীব্র নিন্দা জানাচ্ছে। একটি দায়িত্বশীল রাষ্ট্র হিসেবে এ অঞ্চলের শান্তি ফিরিয়ে আনতে শ্রীলঙ্কা সহযোগিতা করবে বলেও উল্লেখ করেছে দেশটির পররাষ্ট্র দফতর। অন্যদিকে, রাজধানী কাঠমান্ডুর এক অনুষ্ঠানে নেপালের প্রধানমন্ত্রী পুষ্প কমল বলেন, ‘অন্য যেকোনো আঞ্চলিক জোটের চেয়ে সার্কের পারফরম্যান্স অত্যন্ত দুর্বল। অথচ অন্যান্য আন্তর্জাতিক ও আঞ্চলিক জোটের চেয়ে সার্কের সম্ভাবনা ছিল বেশি। এর সদস্য দেশগুলোতে যে পরিমাণ প্রাকৃতিক সম্পদ ও নিজস্ব সাফল্য রয়েছে তা অনেক দেশেই নেই। তাই সার্কের সচিবালয়ের উচিত হবে দ্রুত সার্কের সনদ ও অঙ্গীকারগুলো পর্যালোচনার মাধ্যমে সংস্কার করা বলে উল্লেখ করেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী। ভারতের উরিতে একটি সন্ত্রাসী হামলার পরিপ্রেক্ষিতে পাকিস্তান-ভারত সম্পর্কের উত্তপ্ত পরিস্থিতিতে এই প্রথমবারের মতো পাঁচটি দেশ সার্ক শীর্ষ সম্মেলনে অংশ না নেওয়ার ঘোষণা দিল। যুদ্ধাপরাধের বিচার নিয়ে পাকিস্তানের নাক গলানোর কারণে ক্ষুব্ধ বাংলাদেশ। আফগানিস্তানে হামলা চালিয়ে সন্ত্রাসীদের পাকিস্তানে আশ্রয় নেওয়ার ঘটনা এ দুদেশের সম্পর্ক বর্তমানে তিক্ততায় রূপ নিয়েছে। এতে আফগানিস্তানও আসন্ন সার্ক শীর্ষ সম্মেলন বর্জনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ভারত সরাসরি পাকিস্তানকে একঘরে করার ঘোষণা দিয়েছে। ভুটানও পরিবেশ নিয়ে উদ্বিগ্ন। শুধু বাকি থাকল আয়োজক পাকিস্তান ও বর্তমান চেয়ারম্যান নেপাল।

সম্মেলন স্থগিত করল পাকিস্তান : সার্ক সম্মেলন স্থগিত করেছে পাকিস্তান। জানা যায়, সার্কের তালিকাভুক্ত আট সদস্য রাষ্ট্রের মধ্যে পাঁচটি সার্ক সম্মেলন বয়কট করায় এ সিদ্ধান্ত নেয় দেশটি। গতকাল ভারতীয় সংবাদমাধ্যম প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়া এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে। এ বছর নভেম্বরে পাকিস্তানের ইসলামাবাদে সার্ক সম্মেলন হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তার আগেই উরিতে জঙ্গি হামলার ফলে আন্তর্জাতিক মহলে তীব্র সমালোচনার সম্মুখীন হতে হয় পাকিস্তানকে। এর পরিপ্রেক্ষিতে এ সম্মেলন থেকে একের পর এক বিভিন্ন দেশ নিজেদের নাম প্রত্যাহার করতে শুরু করে। সর্বশেষ শ্রীলঙ্কার পক্ষ থেকে সার্ক সম্মেলনে যাবে না বলে জানানো হয়।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow