Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বুধবার, ১২ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১১ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:০১
বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে আগুনে মৃত্যু পরিবারের পাঁচজনের
ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি
বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে আগুনে মৃত্যু পরিবারের পাঁচজনের
ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জে জনগাঁও এলাকায় বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে ঘরে পড়লে আগুনে একই পরিবারের পাঁচজনের মৃত্যু হয় —বাংলাদেশ প্রতিদিন

ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জের জনগাঁও এলাকায় আগুনে পুড়ে একই পরিবারের পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। তারা হলেন— জনগাঁও এলাকার সুরেশ চন্দ্রের ছেলে পুলিশ সদস্য খরেশ চন্দ্র (৫৫), পুত্রবধূ কেয়া রানী (৩৫), নাতি নিলয় (১০) ও নাইস (১৫) এবং কেয়া রানীর বোন স্বর্ণা রানী (২০)। এ ঘটনায় জেলা প্রশাসন ও পুলিশের পক্ষ থেকে দুটি তদন্ত টিম গঠন করা হয়েছে।

জানা গেছে, গতকাল সকাল ৮টায় পীরগঞ্জ উপজেলার জনগাঁও গ্রামের খরেশ চন্দ্রের বাড়ির ওপর দিয়ে যাওয়া ৪৪০ ভোল্টের বিদ্যুৎ লাইনের তার ছিঁড়ে পড়ে বাড়িতে আগুন লাগে। পরিবার সূত্রে জানা গেছে, সুরেশ চন্দ্রের বাড়িতে বিদ্যুৎ লাইনের তার ছিঁড়ে পড়ে আগুনের সূত্রপাত হলে ঘরের ভিতর মোটরসাইকেলের তেলের ট্যাংকে আগুন লেগে বিস্ফোরণ ঘটে। মুহূর্তের মধ্যে গোটা বাড়িতে আগুন ছড়িয়ে যায়। এ সময় ৫টি ঘরে আগুন ছড়িয়ে পড়লে বের হতে পারেনি কেউ। পরে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। এর আগে ঘটনাস্থলেই পুলিশ সদস্য খরেশ চন্দ্রের স্ত্রী ও শ্যালিকার মৃত্যু হয়। এ সময় তিনজন অগ্নিদগ্ধ হয়। পীরগঞ্জ ফায়ার স্টেশনের একটি ইউনিট অগ্নিদগ্ধদের উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে নেয়। তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। রংপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই তিনজনের মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। সুরেশ চন্দ্র জানান, ‘আমার ছেলে পরিবার নিয়ে গ্রামের বাড়িতে পূজা করতে ছুটিতে আসে। কিন্তু তারা সবাই আমাদের কাছ থেকে চিরবিদায় নিল।’ খরেশ চন্দ্র পুলিশ সদস্য হিসেবে দিনাজপুরে কর্মরত। সুরেশ চন্দ্র অভিযোগ করে বলেন, আমরা বিদ্যুৎ সমিতিকে একাধিকবার বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ করতে বললেও তারা সেটি করেনি। এ ছাড়াও হাসপাতালে গাড়ির জন্য ফোন করা হলেও গাড়ি আসেনি। পরে ফায়ার সার্ভিসের গাড়িতে অগ্নিদগ্ধদের হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। সময়মতো সবকিছু হলে হয়তো কয়েকজনের জীবন বাঁচত। এমপি ইয়াসিন আলী ও পুলিশ সুপার ফারহাত আহম্মেদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। পীরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিরুজ্জামান অগ্নিকাণ্ডে নিহতদের কথা নিশ্চিত করেছেন। জেলা প্রশাসক আবদুল আওয়াল জানিয়েছেন, এ ঘটনায় তদন্ত টিম গঠন করা হয়েছে। সেই সঙ্গে নিহতের সৎকারের জন্য ৫০ হাজার টাকা সহায়তা দেওয়া হয়েছে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow