Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বুধবার, ১২ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১১ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:০৮
ইউনেসকোর উদ্বেগ ভুল তথ্যের ভিত্তিতে
নিজস্ব প্রতিবেদক
ইউনেসকোর উদ্বেগ ভুল তথ্যের ভিত্তিতে

পরিবেশ ও বনমন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু বলেছেন, রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্রের কারণে সুন্দরবনের ক্ষতির যে আশঙ্কা ইউনেসকো প্রকাশ করেছে, তা ভুল তথ্যের ভিত্তিতে। ওইসব ‘ভুল’ শুধরে দিয়ে জাতিসংঘ সংস্থাটিকে আশ্বস্ত করে ইতিমধ্যে তাদের চিঠির জবাব পাঠানো হয়েছে।

গতকাল মন্ত্রী এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, ‘তাদের (ইউনেসকো) তথ্যে কিছু ভুল ছিল। আমরা সেগুলোর সংশোধন    উত্তর পাঠিয়ে দিয়েছি। তাদের প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, রামপালে বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপন করা হলে সুন্দরবনের মাটি-পানি-বাতাসের প্রভূত ক্ষতি হবে। আমরা বলেছি, বিদ্যুৎ কেন্দ্রের অবস্থান হবে সুন্দরবন থেকে ৬৭ কিলোমিটার দূরে। সুতরাং সুন্দরবনের পরিবেশের ক্ষয়ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা নেই। ’ পরিবেশমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা বলেছি যে কয়লা প্রকল্পে ব্যবহার করা হবে, তা অত্যন্ত উন্নতমানের। এ কারণে এসব গ্যাস নির্গত হওয়ার পরিমাণ খুবই কম হবে। তার পরও যতটুকু হবে, তা যেন বাতাসে না মেশে, সেটা নিশ্চিত করার মতো প্রযুক্তি বিদ্যুৎ কেন্দ্রে ব্যবহার করা হবে। এ ছাড়া ফ্লাই অ্যাশের বিষয়ে আমরা বলেছি, এটা বাতাসে যাবে না, বিশেষ পদ্ধতিতে সংরক্ষণ করা হবে। সুন্দরবনের প্রাকৃতিক পরিবেশ ও প্রতিবেশের সম্ভাব্য ঝুঁকি এড়াতে রামপালে অত্যাধুনিক আলট্রা সুপার ক্রিটিক্যাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র হচ্ছে বলে সরকারের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে। আমরা জানিয়েছি সুন্দরবন আমাদের জাতীয় সম্পদ, জনগণের সম্পদ। এমন কোনো প্রকল্প কখনই গ্রহণ করা হবে না, যাতে সুন্দরবনের কোনোরকম ক্ষতি হয়। ’

এই পাতার আরো খবর
up-arrow