Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বুধবার, ১২ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১১ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:০৯
জাগপা নিয়ে খেলা বন্ধ করুন
নিজস্ব প্রতিবেদক
জাগপা নিয়ে খেলা বন্ধ করুন

জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি (জাগপা) সরকারকে ‘খেলা’ বন্ধ করার আহ্বান জানিয়েছে। দলটির সভাপতি শফিউল আলম প্রধান বলেছেন, ‘জাগপা শার্দুল ও সিংহের দল।

সরকার এখন জাগপাকে টার্গেট বানিয়েছে। দল ভাঙার খেলা শুরু করেছে। এজেন্সির খেলা বন্ধ করুন। সমুদ্রের দুই ফোঁটা জল ও বটবৃক্ষের দুটি পুরনো পাতা ঝরে গেলে কিছুই যায় আসে না। ’

গতকাল সকালে রাজধানীর আসাদগেট জিইউপি মিলনায়তনে দলের এক প্রতিনিধি সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন। সম্প্রতি শফিউল আলম প্রধানকে সভাপতির পদ থেকে অব্যাহতি দিয়ে দলের একটি অংশ আলাদা কমিটি গঠন করে। ওই অংশের দাবি, তাদের সঙ্গে দলের ৬০ শতাংশ  নেতা-কর্মী রয়েছেন। প্রতিনিধি সভায় জাগপা সাধারণ সম্পাদক খন্দকার লুত্ফর রহমানের পরিচালনায় এতে অংশ নেন দলের কেন্দ্রীয় নেতা মাস্টার এম এ মান্নান, সৈয়দ শফিকুল ইসলাম, হাসমত উল্লাহ, অধ্যাপক ইকবাল হোসেন, সালাম চৌধুরী, আসাদুর রহমান খান, আশরাফুল ইসলাম হাসু, আসাদুজ্জামান বাবুল, ফাইজুর রহমান, শেখ ফরিদ উদ্দিন, খোরশেদ আলম সুমন, নজরুল ইসলাম বাবলু, সাইদুজ্জামান কবির, বিপুল সরকার, সাইফুল আলম, রাকিবুল ইসলাম রুবেল, আবু নাঈম, আসাদুজ্জামান নূর প্রমুখ।

সরকারের উদ্দেশে শফিউল আলম প্রধান বলেন, ‘আমরা জানি ভাত ছিটালে কাকের অভাব হয় না। তবে জাগপা কাক বা শিয়ালের দল নয়। জাগপা শার্দুল ও সিংহের দল। আমরা জান দেব, কিন্তু আমাদের মাতৃভূমিকে হিন্দুস্তানের গোলাম হতে দেব না। আওয়ামী লীগের মনে রাখা ভালো, ’৬৬-তে ছয় দফা দেওয়ার পর আওয়ামী লীগ ভাঙার চেষ্টা হয়েছে। ওয়ান-ইলেভেনেও বিএনপি ভাঙার চেষ্টা হয়েছে। কিন্তু কোনো ফায়দা হয়নি। ৬ দফায় স্বাধীনতা এসেছে। বিএনপি এখন এদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় রাজনৈতিক দলে পরিণত হয়েছে। ’ ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী মনোহর পারিকারের বাংলাদেশের স্বাধীনতা নিয়ে দেওয়া বক্তব্যের তীব্র নিন্দা জানান জাগপা সভাপতি। তিনি বলেন, ‘রক্তে কেনা বাংলাদেশ কারও দয়ার দান নয়। স্বাধীনতার জন্য জাতি এক সাগর রক্ত দিয়েছে। ভাসানী-মুজিব ও জিয়া জীবনের ঝুঁকি নিয়ে নেতৃত্ব দিয়েছেন। কথাবার্তা পরিষ্কার— ভারতের অংশ হওয়ার জন্য জাতি স্বাধীনতা সংগ্রাম করেনি। ’ তিনি বলেন, ‘এখন সার্ক ভাঙার চক্রান্ত হচ্ছে। সার্ক আমাদের স্বাধীনতার অন্যতম রক্ষাকবচ। ৭২ ঘণ্টার মধ্যে ভারতীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রীর ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্য প্রত্যাহার করা না হলে জাগপা প্রতিবাদ-বিক্ষোভ কর্মসূচি ঘোষণা করবে। ’

এই পাতার আরো খবর
up-arrow