Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শনিবার, ১৫ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৫ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০৫
ডিলানের নোবেল নিয়ে বিতর্ক
প্রতিদিন ডেস্ক
ডিলানের নোবেল নিয়ে বিতর্ক

গীতিকার-সংগীতশিল্পী বব ডিলানকে সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার দেওয়ায় লেখকদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।

এএফপি জানায়, ডিলানের নোবেল পুরস্কার পাওয়া নিয়ে লেখকদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে।

কেউ নোবেল কমিটির সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেছেন, আবার কেউ করেছেন প্রশংসা। ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়ে ফরাসি ঔপন্যাসিক পিয়েরে অ্যাসোউলিন বলেন, আগে কয়েকবার ডিলানের নাম এসেছিল। তবে তা কৌতুক মনে হয়েছিল। তিনি বলেন, নোবেল কমিটির এই সিদ্ধান্ত লেখকদের প্রতি অবমাননাকর। আমি ডিলানকে পছন্দ করি। কিন্তু তার সাহিত্যকর্ম কোথায়! সুইডিশ একাডেমি নিজেদের হাস্যকর করে তুলেছে বলে মনে করি। স্কটিশ ঔপন্যাসিক আরভিন ওয়েলসও সমালোচকদের দলে। তিনি তার টুইটারে এই সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেছেন। ডিলানের নোবেল জয়ে ভারতীয় বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ ঔপন্যাসিক সালমান রুশদি উচ্ছ্বসিত। রুশদি টুইটারে লিখেছেন, ‘অসাধারণ বাছাই। সংগীত ও কাব্য ঘনিষ্ঠভাবে সম্পর্কিত। ’ ষাটের দশকের বিখ্যাত সংগীতশিল্পী ম্যারিয়ান ফেইথফুল আপ্লুত হয়েছেন ডিলানের অর্জনে। তিনি বলেন, বন্ধু ডিলানের জন্য তিনি খুবই গর্বিত। ফেইথফুল বলেন, ‘আমি মনে করি, তিনি (ডিলান) বিশ্বের অন্যতম মহান শিল্পী। তিনি তার লেখনী ও কাব্যে আমাদের পুরো জীবন বদলে দিয়েছেন। ’ সাহিত্যে ডিলানের নোবেল জয় নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও পক্ষে-বিপক্ষে যুক্তিতর্ক চলছে। পুরস্কার ঘোষণার সময় সুইডিশ একাডেমির স্থায়ী সচিব সারা ড্যানিয়ুস বলেন, তিনি আশা করছেন, এ সিদ্ধান্তের জন্য একাডেমির সমালোচনা করা হবে না। তিনি বলেন, ‘ডিলানকে বেছে নেওয়া বিস্ময়কর মনে হতে পারে বটে। তবে পেছন ফিরে তাকালে গ্রিক কবি হোমার ও সাপফোকে দেখা যাবে। তারা কাব্যিক লেখা লিখেছেন, যেগুলো লেখা হয়েছে কেবল শোনার জন্য, পরিবেশনের জন্য, মাঝে মাঝে যন্ত্রানুষঙ্গে। বব ডিলানের  ক্ষেত্রে একই কথা খাটে। তাকে পড়াও যায় এবং পড়াই উচিত। ইংলিশ ঐতিহ্য মাফিক তিনি এক মহান কবি। ’

 

up-arrow