Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : রবিবার, ১৬ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৫ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:৪৬
চীনা প্রেসিডেন্ট নতুন বার্তা দিয়ে গেছেন
নিজস্ব প্রতিবেদক
চীনা প্রেসিডেন্ট নতুন বার্তা দিয়ে গেছেন

বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, বর্তমান প্রেক্ষাপটে চীনা প্রেসিডেন্ট ভূ-রাজনীতির বিষয়ে বাংলাদেশের মানুষের জন্য এক নতুন বার্তা দিয়ে গেছেন। সেটি খুবই অর্থবহ।

চীনের রাষ্ট্রপতির ঢাকা সফর এ জন্য অত্যন্ত গুরুত্ব ও তাত্পর্যপূর্ণ। তিনি বলেন, বর্তমানে এই উপমহাদেশে নানারকম অশান্তি ও ষড়যন্ত্রের পাঁয়তারা চলছে, সেক্ষেত্রে দুই দেশের জনগণের সঙ্গে জনগণের পারস্পরিক সম্পর্কের ওপরে গুরুত্ব দিয়েছেন চীনের প্রেসিডেন্ট। এটি একটি নতুন বার্তা। রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় গতকাল এ কথা বলেছেন তিনি। জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি (জাগপা) ‘চীনা প্রেসিডেন্টের বাংলাদেশ সফর ভূ-আঞ্চলিক রাজনীতির নতুন বার্তা’ শীর্ষক এ আলোচনার আয়োজন করে। জাগপা সভাপতি শফিউল আলম প্রধানের সভাপতিত্বে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক খন্দকার লুত্ফর রহমানসহ দলের অন্যান্য নেতা অংশ নেন। এশিয়ান হাইওয়ে ও ‘ডিপ-সি পোর্ট’ (গভীর সমুদ্রবন্দর) বাস্তবায়নের জন্য চীন ও বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আহ্বান জানান ড. মোশাররফ হোসেন। চীন ও বাংলাদেশের মধ্যে সম্পাদিত চুক্তি সম্পর্কে সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, এসব চুক্তিতে দুই দেশের স্বার্থ সুরক্ষা ও উন্নয়ন, স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব বজায় থাকবে এবং সেটারই বাস্তবায়ন চাই আমরা। চীনা প্রেসিডেন্টের ঢাকা সফর সম্পর্কে বিএনপির এই নেতা বলেন, চীনের প্রেসিডেন্ট এই বার্তা দিয়ে গেছেন— বাংলাদেশের যে কোনো সংকটে তারা জনগণের পাশে থাকবেন। কিন্তু আমরা সম্প্রসারণবাদ ও আধিপত্যবাদের শিকার। ৫৪টি নদীর পানির ন্যায্য হিস্যা পাচ্ছি না। এগুলো চেয়ে নেওয়ার কথা নয়। অথচ চায়নার নীতি সবসময় আধিপত্যবাদের বিরুদ্ধে। তারা সব সময় শান্তির পক্ষে অবস্থান নেয়। বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী সমিতির সাবেক এই সভাপতি আরও বলেন, এশিয়ান হাইওয়ের প্রস্তাব আমাদের (বিএনপি) সরকারের সময় করা হয়েছিল। কক্সবাজার থেকে মাত্র ৩৭ কিলোমিটার নতুন রাস্তা তৈরি করে মিয়ানমারের হাইওয়ের সঙ্গে যুক্ত করে থাইল্যান্ডের সঙ্গে সংযোগ স্থাপন করলে পুরো এশিয়ার সঙ্গে কানেক্টিভিটি হয়ে যায়। আমরা এ কাজে অগ্রসর হয়েছিলাম এবং বাংলাদেশের পক্ষ থেকে পুরো রাস্তা করব বলেও ঘোষণা দিয়েছিলাম। কিন্তু আমরা সরকার থেকে চলে যাওয়ার পর সেটার আর বাস্তবায়ন হয়নি। ড. মোশাররফ হোসেন আরও বলেন, রাষ্ট্রপতিরা কোনো দেশে সফরে এলে সে দেশের রাষ্ট্রপতি, সরকার প্রধান ও বিরোধী দলের নেতার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। কিন্তু বর্তমান সংসদের বিরোধী দলকে কোনো গুরুত্ব দিলেন না তিনি।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow