Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : শনিবার, ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:৩০
আ-মরি বাংলা ভাষা
বায়ান্ন থেকে শুরু মুক্তির লড়াই
বেলাল চৌধুরী
বায়ান্ন থেকে শুরু মুক্তির লড়াই

বাংলা আমাদের মাতৃভাষা। এ ভাষায় আমরা কথা বলি, মনের ভাব প্রকাশ করি। সুতরাং ভাষাপ্রেমের মধ্য দিয়ে মা, মাতৃভূমির প্রতি ভালোবাসা প্রকাশ পায়। তা ছাড়া ভাষা জাতির প্রধান সম্পদ। জাতির বিকশিত হওয়ার প্রধান শর্তই হলো তার মাতৃভাষা। আমরা মাতৃভাষার জন্য লড়াই করেছি। ১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি প্রাণ দিয়ে বাংলা ভাষাকে পৃথিবীর বুকে প্রতিষ্ঠিত করতে হয়েছে। রাষ্ট্রভাষা আন্দোলনে শহীদ হয়েছিলেন সালাম, বরকত, রফিক, জব্বার, সফিউর প্রমুখ। আর যারা জোর করে উর্দুকে আমাদের রাষ্ট্রভাষা হিসেবে চাপিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছিল সেই পাকিস্তানিদেরও আজ ২১ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করতে হয়। অন্যদিকে ভারতের আসাম রাজ্যে একই ধরনের ভাষা আন্দোলন হয়েছিল। সেখানে ছয়জন গুলি খেয়ে মারা যায়। মনে রাখা দরকার, মাতৃভাষা ছাড়া পৃথিবীর কোনো জাতি সুপ্রতিষ্ঠিত হতে পারেনি। জাপানি, চীনা জাতির কথা বলা যেতে পারে— যারা মাতৃভাষায় তাদের সব কাজ সম্পাদন করে। তারা আজ উন্নত জাতি হিসেবে প্রতিষ্ঠা পেয়েছে। ভাষা নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা খারাপ নয়। কিন্তু আমাদের লক্ষ্য রাখতে হবে ভাষার যেন বিকৃত ব্যবহার না হয়। অত্যন্ত রুচিহীনভাবে আমাদের গণমাধ্যমগুলোতে বাংলা ভাষাকে উপস্থাপন করা হচ্ছে। বিশেষ করে টেলিভিশন ও এফএম রেডিওগুলো। এ নিয়ে কারও কোনো মাথাব্যথা নেই। বাংলা একাডেমি প্রমিত বাংলা ভাষার ব্যাকরণ প্রণয়ন করেছে। এটা একটা মহত্ উদ্যোগ। প্রমিত ভাষা ব্যবহারের জন্য তরুণ প্রজন্মকে আরও বেশি করে যুক্ত করতে হবে। সম্মিলিত উদ্যোগ ছাড়া ভাষার এই অপপ্রয়োগ রোধ করা সম্ভব নয়। বাংলা বিশ্বের চতুর্থ ভাষা হলেও সব জাতির সামনে একটা পথিকৃত্ হিসেবে দাঁড়িয়ে আছে। বাংলা ভাষার সেরা রচনাগুলো বিদেশি ভাষায় অনুবাদ করা জরুরি। বিদেশিরা আমাদের সেরা সাহিত্য সম্পর্কে তেমন ধারণা রাখে না। যদিও আমাদের দেশ অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধ হচ্ছে। সরকারও সৃজনশীল বাংলাদেশ গড়ে তোলার প্রশংসনীয় উদ্যোগ নিয়েছে। এখন বাংলা ভাষা এবং আমাদের সংস্কৃতির নানা বিষয়ে গবেষণা ও প্রকাশনা দরকার। যেগুলো সব ধরনের পাঠকের হাতে পৌঁছে দিতে হবে। সবাই যেন দেশের ঐতিহ্য সংস্কৃতি সম্পর্কে জানার সুযোগ পায়। আর ভাষার ব্যাপারে বর্তমান ও ভবিষ্যত্ প্রজন্ম সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। দেশপ্রেম থাকলে ভাষার অমর্যাদা কেউ করতে পারবে না। আমাদের সবাইকে মনে রাখা দরকার— বায়ান্নর ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু হয়েছিল আমাদের মুক্তির লড়াই। যে জন্য আজ বাংলাদেশ অর্জিত হয়েছে। এ জন্য দেশের, ভাষার মর্যাদাহানি হয় এমন কাজ কারও করা উচিত নয়। মহান ভাষা শহীদদের রক্তের শপথকে আমাদের অক্ষুণ্ন রাখতে হবে। এ গৌরব যেন নষ্ট না হয়। লেখক : কবি

এই পাতার আরো খবর
up-arrow