Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, শনিবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : রবিবার, ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:১০
ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা স্থগিত করল মার্কিন আদালত
ট্রাম্প বললেন, হাস্যকর
প্রতিদিন ডেস্ক
ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা স্থগিত করল মার্কিন আদালত

সাতটি মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ থেকে নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে ডোনাল্ড ট্রাম্প যে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন, তা সাময়িকভাবে স্থগিত করেছে মার্কিন একজন কেন্দ্রীয় বিচারক। সিয়াটলের ফেডারেল বিচারক জেমস রবার্ট এ আদেশ জারি করেন।

প্রেসিডেন্টের নির্বাহী আদেশকে কোনো রাজ্যের বিচারক চ্যালেঞ্জ করতে পারেন না বলে সরকারি আইনজীবী যে দাবি করেছেন, তাও তিনি নাকচ করে দিয়েছেন। গত সপ্তাহে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের জারি করা ওই আদেশে দেশটিতে ব্যাপক বিক্ষোভ তৈরি হয়। এর আগে মার্কিন বেশ কয়েকটি ফেডারেল আদালত ভিসাধারীদের বিতাড়নের ওপর সাময়িক স্থগিতাদেশ জারি করে। তবে সিয়াটল আদালত প্রথমবারের মতো সারা দেশে ট্রাম্পের নিষেধাজ্ঞা স্থগিত করল। মার্কিন পররাষ্ট্র দফতর জানিয়েছে, এ পর্যন্ত ৬০ হাজার ভিসা বাতিল করা হয়েছে। যে সাতটি দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণের নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়, তার মধ্যে রয়েছে— সিরিয়া, ইরাক, ইরান, লিবিয়া, সোমালিয়া, সুদান ও ইয়েমেন। ট্রাম্পের ওই আদেশের বিরুদ্ধে ওয়াশিংটন রাজ্য প্রথমে মামলা করে। পরে মিনেসোটা রাজ্য তাদের সঙ্গে যোগ দেয়। ওয়াশিংটনের অ্যাটর্নি জেনারেল বব ফার্গুসন বলেছেন, ওই আদেশটি অবৈধ ও অসাংবিধানিক। কারণ মানুষের ধর্মকে কেন্দ্র করে এটি বিভেদ তৈরি করছে। শুধু তাই নয়, এ নিষেধাজ্ঞাকে বিশ্লেষকরা দেখছেন যুক্তরাষ্ট্রে মুসলিমদের প্রবেশ ‘পুরোপুরি’ নিষিদ্ধের অংশ হিসেবে। এর বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে, ব্রিটেনে ও বিভিন্ন স্থানে ব্যাপক বিক্ষোভ প্রতিবাদ হয়েছে। ব্রিটিশ পার্লামেন্টে কড়া বিতর্ক হয়েছে। দাবি উঠেছে, ব্রিটেনে ট্রাম্পের সরকারি সফর বাতিলের জন্য। কিন্তু ট্রাম্প প্রশাসন তার অবস্থানে অনড়। ট্রাম্পের ওই নির্দেশের বিরুদ্ধে গতকাল প্রত্যাহার আদেশ দেওয়া বিচারককে কিন্তু সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা নিয়োগ দেননি। বিচারক জেমস রবার্টকে নিয়োগ দিয়েছিলেন সাবেক প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশ। রবার্টের দেওয়া নির্দেশের পর যুক্তরাষ্ট্রের কাস্টমস ও সীমান্ত প্রতিরক্ষাবিষয়ক সংস্থা বিমানসংস্থাগুলোকে বলেছে ট্রাম্পের নিষেধাজ্ঞায় আটকে পড়া ভ্রমণকারীদের বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে। আর বিচারকের ওই নির্দেশের ফলে কোনো রকম প্রতিক্রিয়া হচ্ছে কিনা তা খতিয়ে দেখতে হোমল্যান্ড সিকিউরিটির সঙ্গে কাজ শুরু করেছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

‘তথাকথিত বিচারকের মতামত হাস্যকর’ : মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ সাত দেশ ইরান, ইরাক, সিরিয়া, লিবিয়া, সুদান, সোমালিয়া ও ইয়েমেনের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা সাময়িকভাবে স্থগিতের আদেশ দেওয়া বিচারককে ‘তথাকথিত’ বিচারক বলে আখ্যা দিলেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। শুক্রবার আদালত ওই স্থগিতাদেশ দেওয়ার পর এ প্রতিক্রিয়া জানালেন তিনি। একই সঙ্গে তিনি এই স্থগিতাদেশের বিরুদ্ধে আইনি প্রক্রিয়ায় এগিয়ে যাওয়ার অঙ্গীকার করেছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল জজ জেমস রবার্ট প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ওই নি?র্বাহী আদেশকে অসাংবিধানিক উল্লেখ করে তা স্থগিতের আদেশ দেন। এই স্থগিতাদেশের ফলে আপাতত ওই সাতটি দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রে ঢুকতে আর কোনো বাধা থাকল না। এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা বিভাগও ট্রাম্পের নির্বাহী আদেশ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে গৃহীত সব কার্যক্রম স্থগিত করে দিয়েছে।

আদালতের এ আদেশের প্রতিক্রিয়ায় টুইটারে নিজের ক্ষোভ প্রকাশ করলেন ট্রাম্প। টুইট বার্তায় তিনি লেখেন, ‘এটা তথাকথিত একজন বিচারপতির মতামত...এটা হাস্যকর এবং এ আদেশ উল্টে যাবে। ’ নির্বাহী আদেশ পুনর্বহালের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন ট্রাম্প।

up-arrow