Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ২১ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, সোমবার, ২১ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : বুধবার, ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:৪৮
গার্মেন্টস রপ্তানির অর্থ ফেরত আসছে না
ফিরোজ রশীদ
নিজস্ব প্রতিবেদক
গার্মেন্টস রপ্তানির অর্থ ফেরত আসছে না

জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যানকে উদ্ধৃত করে বলেছেন, গার্মেন্ট (পোশাক) রপ্তানির একটি ডলারও ফেরত আসেনি। পোশাক রপ্তানির টাকা কোথায় যায়? এ অবস্থা হলে পোশাক রপ্তানি করে কোনো লাভ হবে না।

আজ সব জায়গায় চরম অনিয়ম চলছে। অর্থনীতির ক্ষেত্রে একদমই এলোমেলো। এটার কোনো হিসাব-নিকাশ নেই, কে কার কাছে হিসাব দেবে? জাতীয় সংসদের শীতকালীন অধিবেশনে গতকাল পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে তিনি এ বিষয়ে স্পিকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। এ সময় ফিরোজ রশীদ বলেন, এতে প্রমাণিত হয় অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে চরম অস্থিরতা বিরাজ করছে। অর্থ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে এনবিআর চেয়ারম্যান নজিবুর রহমান উল্লেখ করেছেন, ‘২৯৭ কনটেইনার পোশাক রপ্তানি কার হয়েছে, যার একটি ডলারও দেশে ফেরত আসেনি’। এনবিআর চেয়ারম্যানের এই বক্তব্য উল্লেখ করে ফিরোজ রশীদ প্রশ্ন তোলেন, গার্মেন্টের টাকা কোথায় যায়? সংসদীয় কমিটিতেই জানানো হয়েছে ওই সব টাকায় মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর এবং কানাডায় সেকেন্ড হোম করা হয়েছে। পোশাক রপ্তানি করে হাজার হাজার কোটি টাকা রাজস্ব আয় হয় আর সেই টাকা এখন অধিকাংশ দেশের বাইরে থেকে যাচ্ছে। তিনি বলেন, এই টাকা দেশে ফেরত না এলে গার্মেন্ট রপ্তানি করে তো কিছু লাভ হবে না। আজ সব জায়গায় চরম অনিয়ম চলছে। অর্থনীতির ক্ষেত্রে একদমই এলোমেলো। এটার কোনো হিসাব-নিকাশ নেই, কে কার কাছে হিসাব দেবে? কাজী ফিরোজ রশীদ আরও বলেন, কৃষি ব্যাংকে পদে পদে দুর্নীতি-অনিয়ম। কৃষকের টাকা কর্মকর্তাদের পকেটে। যে টাকা কৃষকের পাওয়ার কথা ছিল। কৃষি ব্যাংকের অভ্যন্তরীণ ব্যবস্থা হয় ভেঙে পড়েছে, না হয় দুর্নীতিগ্রস্ত হয়ে পড়েছে। কৃষিমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, কৃষকের টাকা যদি এভাবে লুটপাট হয় তাহলে কৃষকের কাছ থেকে ভালো রেজাল্ট পাবেন না।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow