Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ২৩ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, বুধবার, ২৩ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : সোমবার, ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:২৮
গড়তে হবে ইতিহাস
মুশফিকের সেঞ্চুরি, জয়ের জন্য চাই ৩৫৮
আসিফ ইকবাল
গড়তে হবে ইতিহাস

রবীচন্দন অশ্বিনকে সুইপ খেলতে গিয়ে যখন ঋদ্ধিমান সাহার দুর্দান্ত ক্যাচে পরিণত হলেন মুশফিকুর রহিম, তখন হায়দরাবাদ রাজীব গান্ধী আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামের স্কোর বোর্ডে লেখা বাংলাদেশ অলআউট ৩৮৮। ভারত এগিয়ে ২৯৯ রানে।

চাইলেই বাংলাদেশকে ফলোঅন করাতে পারতো বিরাট কোহলির দল। কিন্তু মুশফিকদের পুনরায় ব্যাটিংয়ে না পাঠিয়ে নিজেরাই নেমে পড়ে। ভারতের এমন সিদ্ধান্তে বিস্মিত হন অনেকেই। কিন্তু ক্রিকেট যাদের ধ্যান জ্ঞান, তারা অপেক্ষার কথাই বলেছেন বারবার। আজ পঞ্চম দিন সেই অপেক্ষার জবাব মিলবে। কোহলির সিদ্ধান্তকে ভুল প্রমাণিত করে ম্যাচ কি বাঁচাতে পারবে বাংলাদেশ? না, প্রয়োজনীয় ৩৫৬ রান তুলে জিতে যাবে মুশফিকবাহিনী? শুধু সময়ের অপেক্ষা। ঐতিহাসিক টেস্ট জিততে আজ টাইগারদের দরকার যেমন ৩৫৬ রান, তেমনি ভারতের দরকার ৭ উইকেট। শুধু হায়দরাবাদ নয়, টেস্ট ক্রিকেট ইতিহাস বলছে এত রান তাড়া করে জেতার রেকর্ড নেই। কিন্তু ক্রিকেট বলেই অসম্ভবকে সম্ভব করার স্বপ্ন দেখা যায়! সেই স্বপ্নটা বুকে ধারণ করে নিশ্চিত ঘুমাতে যাবেন সাকিব আল হাসান, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, মুশফিকুর রহিমরা। স্বপ্নালু ভাবাবেগে ঘুমাতে যাবে গোটা বাংলাদেশ। বাংলাদেশকে জিততে হলে ইতিহাস লিখতে হবে নতুন করে। টেস্ট ক্রিকেটে ৪৫৯ রান তাড়া করে জেতার রেকর্ড নেই। রেকর্ড সর্বোচ্চ ৪১৮ রান তাড়া করে জেতার। চারশ’র ওপরে রান তাড়া করে টেস্ট জেতার রেকর্ড তিনটি। সুতরাং ৪৫৯ রানের টার্গেট খেলতে নেমে ৩ উইকেটে ১০৩ রান করে ফেললেও আজ বাকি কাজটি নির্বিঘ্নে সেরে ফেলার অর্থ অক্সিজেন মাস্ক ছাড়া এভারেস্টের চূড়ায় ওঠার শামিল। সেই কাজটি করতে ব্যাট হাতে দুর্দান্ত কিছু করতে হবে টাইগারদের। ওয়েলিংটন টেস্টের মতো গড়তে হবে রেকর্ড জুটি। করতে হবে একটি ডাবল সেঞ্চুরি কিংবা দুটি সেঞ্চুরি। তবে আশার কথা, ক্রিজে এখনো রয়েছেন দুই নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান সাকিব ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। সাকিব তো কিছুদিন আগেই ওয়েলিংটনে খেলেছেন ২১৭ রানের ইনিংস। মাহমুদুল্লাহ বড় ইনিংস খেলার ক্রিকেটার। এছাড়াও রয়েছে ‘নির্ভরতার প্রতীক’ মুশফিকুর রহিম, সাব্বির রহমান ও মেহেদী হাসান মিরাজ। সুতরাং স্বপ্ন দেখাই যায়। শুধু একটি বড় জুটিই গড়ে দিতে পারে নতুন ইতিহাস। ভেঙে দিতে পারে অতীতের সব রেকর্ডস। আগের দিনের ৬ উইকেটে ৩২২ রান নিয়ে খেলতে নেমেই সাজঘরে ফিরেন মিরাজ। এরপরও নিজেকে গুটিয়ে রাখেননি টাইগার অধিনায়ক। প্রতিপক্ষ বোলারদের সব আক্রমণকে প্রতিরোধ করে খেলেন ১২৭ রানের প্রত্যয়ী ইনিংস। ভারতের মাটিতে বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরি। ক্যারিয়ারের পঞ্চম, ভারতের বিপক্ষে দ্বিতীয় ও টানা দ্বিতীয় সেঞ্চুরি। মুশফিকের সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস থামে ৩৮৮ রানে। ভারত ২৯৯ রানে এগিয়ে থেকেও বোলারদের বিশ্রাম দিতে দ্বিতীয় ইনিংসে ওয়ানডে স্টাইলে ব্যাটিং করে ৪ উইকেটে ১৫৯ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে। চেতেশ্বর পূজারা অপরাজিত থাকেন ৫৪ রানে। ২টি করে উইকেট নেন তাসকিন ও সাকিব। আজ পঞ্চম দিন অবিশ্বাস্যকে সম্ভব করার তাড়নায় ব্যাটিংয়ে নামবেন ২১ রানে অপরাজিত থাকা সাকিব ও ৯ রানে ব্যাট করতে থাকা মাহমুদুল্লাহ। দুই ক্রিকেটারের সঙ্গী থাকবে ১৬ কোটি ক্রিকেটপাগল বাঙালির প্রার্থনা ও ভালোবাসা।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow