Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:২০
বিচারকের প্রতি অনাস্থা
খালেদার আবেদনের শুনানি বুধবার
নিজস্ব প্রতিবেদক

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিচারিক আদালতের বিচারকের প্রতি অনাস্থা জানিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার আবেদনের ওপর আগামী বুধবার ২২ ফেব্রুয়ারি শুনানির দিন ঠিক করেছে হাই কোর্ট। খালেদা জিয়ার আইনজীবীদের সময় আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের বেঞ্চ শুনানির এ তারিখ নির্ধারণ করে।

আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন সিনিয়র আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী, সঙ্গে ছিলেন ব্যারিস্টার বদরুদ্দোজা বাদল। অন্যদিকে দুদকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী খুরশীদ আলম খান। পরে ব্যারিস্টার বদরুদ্দোজা বাদল সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা আদালতের কাছে ২২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সময় চেয়েছিলাম। আদালত সময় আবেদন মঞ্জুর করে নতুন এ দিন নির্ধারণ করেছে। ’ অন্যদিকে খুরশীদ আলম খান বলেন, ‘উনারা মামলার বিচারকাজ বিলম্বিত করার জন্যই সময় আবেদন করেছেন। আদালত ২২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সময় মঞ্জুর করেছে। সেদিনই আবেদনের ওপর শুনানি অনুষ্ঠিত হবে। ’ তিনি বলেন, ‘জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিচারিক আদালতে সাফাই সাক্ষী হিসেবে ১০ জনকে নির্ধারণ করে দেওয়ার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে একটি রিভিশন আবেদন করেছেন ঢাকার সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার এপিএস মনিরুল ইসলাম খান। একই দিনে ওই আবেদনেরও শুনানি হবে। ’ ৮ ফেব্রুয়ারি বিচারিক আদালতের প্রতি অনাস্থা জানিয়ে হাই কোর্টে আবেদন করেন খালেদা জিয়া। মামলাটি ঢাকার তৃতীয় বিশেষ জজ আবু আহমেদ জমাদারের আদালতে বিচারাধীন। আবেদনে মামলাটি অন্য আদালতে স্থানান্তরের আরজি জানানো হয়। সেদিন আবেদন করার পর খালেদা জিয়ার আরেক আইনজীবী ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন সাংবাদিকদের বলেছিলেন, ‘একই আদালতে বিচারাধীন অন?্য মামলার ক্ষেত্রে এক থেকে দেড় মাস পরপর তারিখ নির্ধারণ করা হয়। কিন্তু খালেদা জিয়ার মামলায় কোনো কোনো সপ্তাহে দুবারও তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। তাই এ আদালতে এ মামলায় ন্যায়বিচার পাওয়ার ক্ষেত্রে আমাদের আশঙ্কা রয়েছে। এ কারণেই এ আদালতের প্রতি তিনি অনাস্থা জানিয়েছেন। ’ ১৩ ফেব্রুয়ারি বিচারপতি মো. রুহুল কুদ্দুস ও ?বিচারপতি ভীষ্মদেব চক্রবর্তীর হাই কোর্ট বেঞ্চে আবেদনের ওপর শুনানি হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু এরই মধ্যে আদালতের এখতিয়ার পরিবর্তন হওয়ায় বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চে শুনানির জন্য আবেদন করেন খালেদার আইনজীবীরা। মামলার বিবরণীতে জানা যায়, ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলা দায়ের করে দুদক। এতিমদের সহায়তার উদ্দেশ্যে একটি বিদেশি ব্যাংক থেকে আসা ২ কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৭১ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগে এ মামলা করা হয়।

খালেদা জিয়া ছাড়াও এ মামলার অন?্য আসামিরা হলেন বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান, সাবেক সংসদ সদস্য ও ব্যবসায়ী কাজী সালিমুল হক কামাল, সাবেক মুখ্যসচিব কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী, ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের বোনের ছেলে মমিনুর রহমান।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow