Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:১৭
আমরা কারও অধীন নই
নিজস্ব প্রতিবেদক
আমরা কারও অধীন নই

দলীয় সিটি করপোরেশন ভোট ও উপনির্বাচন সুষ্ঠুভাবে শেষ করতে রাজনৈতিক দলসহ সবার সহযোগিতা চেয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা। একই সঙ্গে তিনি সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য কোনো বাধা এলে তা কঠোরভাবে মোকাবিলা করার হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘আমরা চাই নির্বাচন প্রতিযোগিতামূলক হোক, সবাই অংশ নিক। এতে সুষ্ঠুভাবে ভোট হবে। ’ নতুন সিইসি বলেন, ‘আমরা কারও অধীন নই, কখনো যদি এ ধরনের অভিযোগ পাই কঠোরভাবে তা মোকাবিলা করব। ’ রাজনৈতিক দলগুলোকে সহযোগিতা করার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ভোটে কোনো ধরনের প্রভাব যাতে না থাকে সে বিষয়েও ইসির কড়া নজর থাকবে। গতকাল নির্বাচন ভবনে কুমিল্লা সিটি করপোরেশন ও সুনামগঞ্জ-২ আসনের উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর এসব কথা বলেন তিনি। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সিইসি নূরুল হুদা বলেন, নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হলে কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা বা অনিয়ম ঘটে না। প্রার্থিতা প্রত্যাহারে কারও চাপ বা এ ধরনের অভিযোগ পেলেই তত্ক্ষণাৎ ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন তিনি। এক প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, ‘গণমাধ্যমে কোনো অভিযোগ প্রচার বা প্রকাশ হলে অথবা আমাদের কাছে কোনো অভিযোগ এলে তা বিবেচনায় নিয়ে ব্যবস্থা নেব। নির্বাচন কমিশন কারও অধীন নয়। আমরা সাংবিধানিক দায়িত্ব পালন করব। কোনো বাধা এলে কঠোরভাবে মোকাবিলা করা হবে। আমাদের রিটার্নিং কর্মকর্তা, পর্যবেক্ষকরা পরিস্থিতি সর্বক্ষণ পর্যবেক্ষণ করছেন। কোনো অনিয়ম হলেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ছাড়া নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে সব ধরনের প্রচার বন্ধ করতে হবে। ’ উল্লেখ্য, কুমিল্লা সিটি করপোরেশন ও সুনামগঞ্জ-২ আসনের উপনির্বাচন হবে ৩০ মার্চ।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow