Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:২৪
সংসদে চরিত্রহনন বেশি হচ্ছে
নিজস্ব প্রতিবেদক
সংসদে চরিত্রহনন বেশি হচ্ছে

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, সংসদে হাস্যরসের বদলে, শৃঙ্খলার বদলে এখন চরিত্রহনন বেশি করা হচ্ছে। জাতীয় জাদুঘরের সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে ‘সাংস্কৃতিক ঘাটতি ও প্রগতির অন্ধকার’ শীর্ষক গণবক্তৃতায় মূল বক্তব্য উপস্থাপনকালে তিনি এসব কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ৫০ বছরের সংসদ অধিবেশন দেখুন, সেখানে হাস্যরস ছিল। যখন অ্যাডভোকেট আবদুল হামিদ  স্পিকার ছিলেন, তখনো অনেক হাস্যরস হতো- তিনি নিজেও অংশ নিতেন। এখন সেটা নেই। বরং এখন সংসদে চরিত্রহনন হয় বেশি। গণবক্তৃতায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সভাপতি শিল্পী হাশেম খান। সঞ্চালনা করেন জাদুঘরের মহাপরিচালক ফয়জুল লতিফ চৌধুরী। তথ্যমন্ত্রী বলেন, একটি দেশের অগ্রগতিতে অনেকগুলো ঘাটতি এসে উপস্থিত হয়। বাংলাদেশও তার অগ্রগতিতে ১০০ বছরে সবকিছু ধরে রাখতে পারেনি। সামরিক স্বৈরতন্ত্র থেকে বেরিয়ে গণতন্ত্রের দিকে হাঁটছে দেশ। এখানে যে ঘাটতি হবে তা পূরণ সম্ভব। অর্থনৈতিক ঘাটতি পূরণ করা যায়, তবে সাংস্কৃতিক ঘাটতি অপূরণীয়। আমাদের ইতিহাসের ঘাটতি রয়েছে। বায়ান্নর ভাষা শহীদদের নিয়ে যেভাবে আলোচনা করেছি, ’৪৮ এ রাষ্ট্রভাষার জন্য বঙ্গবন্ধুর সাংগঠনিক প্রয়াস বা ধীরেন্দ্রনাথ দত্তকে নিয়ে ততটা আলোচনা করি না। অথচ ধীরেন্দ্রনাথই বাংলাকে রাষ্ট্র ভাষা করার প্রস্তাব উত্থাপন করেছিলেন।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow