Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : শুক্রবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২২:৫২
সরকারের চক্রান্তমূলক নাটক কানাডার রায়
------------বিএনপি
নিজস্ব প্রতিবেদক

কানাডার আদালতের রায়ের বরাতে গণমাধ্যমে প্রকাশিত বক্তব্যকে সরকারের ‘চক্রান্তমূলক নাটকের’ অংশ বলেছে বিএনপি। দলটি বলছে, ‘নির্বাচনের আগে জনগণের মধ্যে ধোঁয়াশা সৃষ্টি করতে এসব নানা ঘটনা ঘটাচ্ছে ক্ষমতাসীনরা।

’ গতকাল সকালে দলের নয়াপল্টনে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে কানাডার আদালতে দেওয়া একটি রায় বিষয়ে প্রতিক্রিয়ায় দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এ কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘সরকার প্রভাবিত মিডিয়ায় আমরা যেভাবে সংবাদটি দেখেছি, কানাডার অনলাইনে আমরা তেমনটা দেখিনি। শওকত আলী সাগর চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ছিলেন। এই রায়টি গত মাসের ২৫ তারিখে বেরিয়েছে। প্রায় এক মাস  পেরিয়ে  গেল। তারা কানাডায় বসে বিএনপির বিরুদ্ধে অপপ্রচার ও নানা ধরনের চক্রান্তের বেড়াজাল তৈরি করছেন। একটা জঘন্য পরিকল্পনা তৈরি করছেন— এটা সুস্পষ্ট। এটা সম্পূর্ণ চক্রান্তমূলক নাটকের অংশ। ’ সংবাদ সম্মেলনে দলের ভাইস চেয়ারম্যান হাফিজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘কানাডার যে বিষয়টি উপস্থাপন করা হয়েছে, সেখানকার যারা প্রসিকিউশন করেন, তারা বিএনপি ও আওয়ামী লীগ উভয় দলকে সন্ত্রাসী বলে আখ্যা দিয়েছেন। সুতরাং শুধু শুধু বিএনপিকে  দোষারোপ করার মানে হয় না— এটাকে বিশ্বাস করলে, এটিও বিশ্বাস করতে হবে আওয়ামী লীগও সস্ত্রাসীদের দল।   কেউ যদি বিশ্বাস করে  যে বিএনপি সন্ত্রাসী সংগঠন, তাহলে আওয়ামী লীগ এক ধাপ এগিয়ে আছে, আমাদের আগে আছে। ’ সংবাদ সম্মেলনে দলের চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আবদুস সালাম, হাবিবুর রহমান হাবিব, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির  খোকন, কেন্দ্রীয় নেতা হাবিবুল ইসলাম হাবিব, আবদুল আউয়াল খান, মুনির হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। আসন না পেয়ে সংবাদ সম্মেলন থেকে বিরক্তি প্রকাশ করে ওঠে যান দলের যুগ্ম মহাসচিব মজিবুর রহমান সারোয়ার। এই রায়ের বিরুদ্ধে কানাডায় উচ্চ আদালতে আপিল করবেন কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘সেটা আমরা  নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করে বলতে পারব। এখন  যেটা তাত্ক্ষণিক  জেনেছি, তার প্রতিক্রিয়া জানালাম। ’  রায়ের একটি অংশের বক্তব্য তুলে ধরে রিজভী বলেন, ‘বিরোধী দলের একজন ছেলে  স্বেচ্ছাসেবক দলের কথা বলা হচ্ছে,  সে তার আবেদনে কী বিএনপির বিরুদ্ধে বলবে?  সে  তো বলবে আমি বাংলাদেশে একটা প্রতিকূলতার মধ্যে আছি, হয়রানি হচ্ছে, মামলা হচ্ছে, টর্চার হতে পারে। এক্সট্রা জুডিশিয়াল কিলিংয়ের শিকার হতে পারে— এসব কথা আবেদনে বলবে। সে ওই কথা (বিএনপির বিরুদ্ধে) বলবে কেন? এই কথাতেই মনে হচ্ছে— এটা একটা সাজানো নাটকের বিষয়।   যেটা কানাডায় উপস্থাপন করেছেন, ইমিগ্রেশন বিভাগকে এভাবে ভুল তথ্য তারা দিয়েছেন, বানানো নাটকের ভুল তথ্য দিয়েছেন এবং সেটা তারা কোর্টে নিয়ে গেছেন। ’

এই পাতার আরো খবর
up-arrow