Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : শনিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২২:৫৫
উদ্ধার হয়নি তৃতীয় অস্ত্র, চন্দনের খোঁজে পুলিশ
গাইবান্ধা প্রতিনিধি
উদ্ধার হয়নি তৃতীয় অস্ত্র, চন্দনের খোঁজে পুলিশ

গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের সরকারদলীয় সংসদ সদস্য মনজুুরুল ইসলাম লিটন হত্যাকাণ্ডে ব্যবহার করা তিনটি পিস্তলের মধ্যে দুটি উদ্ধার হয়েছে, কিন্তু তৃতীয়টির সন্ধান এখনো মেলেনি। এদিকে পুলিশ গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য পাওয়ায় সুন্দরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক চন্দন কুমার সরকারকে খুঁজছে।

হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় ব্যবহার করা তৃতীয় অস্ত্রটি এখন কোথায়- তা নিয়ে লোকমুখে নানা কথা ছড়িয়ে পড়েছে। কোনো কোনো সূত্র মতে, যে কাদের খানের বাড়ি থেকে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহার করা দুটি পিস্তল উদ্ধার হয়েছে, সেই কাদের খানের কাছেই তৃতীয়টি থাকার কথা। তবে তিনি একটি পিস্তল ইতিপূর্বে থানায় জমা দিয়েছেন। এটাই সেই পিস্তল কিনা- বা এ ধরনের লোকমুখে কথার কোনো ভিত্তি আছে কিনা- এসব নিয়ে নানা প্রশ্ন তৈরি হয়েছে। এ প্রশ্নে অনেকে কাদের খানকে রিমান্ডে নেওয়ারও দাবি করছেন।

চন্দনকে খুঁজছে পুলিশ : থানা পুলিশ সাদা পোশাকে এখনো সুন্দরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক বামনডাঙ্গার মনমথ গ্রামের বাসিন্দা চন্দন কুমার সরকারকে খুঁজছে। কাদের খানের মোবাইল ফোন ট্র্যাকিং করে পুলিশ এমপি লিটন হত্যাকাণ্ডের সময় চন্দনের কর্মকাণ্ড সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য পেয়েছে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে পুলিশের একটি সূত্র জানিয়েছে, হত্যাকাণ্ডে সম্পৃক্ততার অভিযোগে তাকে খোঁজা হচ্ছে। গত বৃহস্পতিবার রাতেও পুলিশ মনমথ গ্রামসহ আশপাশে তার আত্মীয়-স্বজনদের বাড়িতে খোঁজ নিয়েছে। খুনের দিন এমপি লিটনের বাড়িতে তার অবস্থান এবং অনুকূল পরিবেশের খবর মোবাইল ফোনে খুনিদের তিনি জ্ঞাত করেন বলে পুলিশ জানতে পেরেছে। প্রসঙ্গত, দরিদ্র পরিবারের সন্তান চন্দন সরকার উপজেলা আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদকের দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকেই চাঁদাবাজিসহ নানা অপকর্মে জড়িয়ে পড়েন। এ অভিযোগে তাকে দল থেকে বহিষ্কার করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এমপি মনজুরুল ইসলাম লিটন। এর প্রতিশোধ নিতে চন্দন এমপি বিরোধীদের সঙ্গে যুক্ত হয়ে লিটনের বিরুদ্ধে বিভিন্ন দফতরে লিখিত অভিযোগ করা থেকে শুরু করে সভা, সমাবেশে বক্তব্যও দিয়েছেন। কাদের খান গ্রেফতার হওয়ার পর চন্দন গাঢাকা দিয়েছেন।

ছাত্রসমাজের বিক্ষোভ : সুন্দরগঞ্জ উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি, হুসেইন মুহম্মদ এশাদের আইনবিষয়ক উপদেষ্টা ও সুন্দরগঞ্জ আসনের সংসদ উপনির্বাচনে জাপা মনোনীত প্রার্থী ‘ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারীকে হত্যা করার পরিকল্পনা ও এমপি লিটন হত্যার খুনি কাদের খানের’ ফাঁসির দাবিতে উপজেলা ছাত্রসমাজ গতকাল বিকালে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে।

up-arrow