Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : সোমবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:৩৪
গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি গণবিরোধী
নিজস্ব প্রতিবেদক
গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি গণবিরোধী

বিশিষ্ট সাংবাদিক ও কলামিস্ট সৈয়দ আবুল মকসুদ বলেছেন, গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির কারণে জনগণের ভোগান্তি চরমে উঠবে। এ সিদ্ধান্ত জনস্বার্থবিরোধী।

সরকারি কর্মচারীদের বেতনের টাকার জন্য গ্যাসের দাম বাড়ানো হচ্ছে। অথচ সরকারের নিজস্ব তহবিলে উদ্বৃত্ত অর্থ রয়েছে; যা দিয়ে বেতনের টাকা বরাদ্দ দেওয়া সম্ভব। গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে গতকাল জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে নাগরিক কমিটির ব্যানারে অবস্থান কর্মসূচিতে এসব কথা বলেন তিনি। কর্মসূচিতে সংহতি প্রকাশ করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক এম এম আকাশ, বাসদের সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান, ক্যাবের জ্বালানি উপদেষ্টা অধ্যাপক শামসুল আলম, বুড়িগঙ্গা বাঁচাও আন্দোলনের আহ্বায়ক মিহির বিশ্বাসসহ বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের নেতা-কর্মী। রাজস্ব আদায়ের জন্য গ্যাসের দাম বৃদ্ধির সিদ্ধান্তকে অযৌক্তিক বলে মন্তব্য করে আবুল মকসুদ আরও বলেন, ‘নতুন করে গ্যাসের দাম বৃদ্ধি মানেই জনগণের বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়া। আর সরকার ফের তাই করেছে। আমরা নাগরিক সমাজ এটা কোনোভাবেই মেনে নিতে পারি না। অবিলম্বে তা স্থগিত করে নতুনভাবে বিবেচনা করুন। ’ তিনি বলেন, দেড় বছরের ব্যবধানে ফের গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির ফলে জনগণের ভোগান্তি চরমে উঠবে। গ্যাসের দাম বাড়লে শিল্প কারখানায় উৎপাদন ব্যয় বাড়বে। সিএনজির দাম বাড়ার কারণে পরিবহন ব্যয় বাড়বে। বিদ্যুতের উৎপাদন ব্যয় বাড়বে। গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়দে সাকি বলেছেন, অবৈধ সরকার বড় বড় প্রকল্পের দুর্নীতির ঘাটতি পূরণের জন্যই অহেতুক গ্যাসের দাম বৃদ্ধি করেছে; যা সম্পূর্ণ জনবিরোধী।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow