Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, রবিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : বুধবার, ১ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:৩৪
এই ধর্মঘট অযৌক্তিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
এই ধর্মঘট অযৌক্তিক

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, হরতাল এখন গণতান্ত্রিক দাবি আদায়ের হাতিয়ার নয়। হরতাল ভয়তালে পরিণত হয়েছে।

হরতাল ডেকে নেতারা ঘরে বসে হিন্দি সিরিয়াল দেখেন। তিনি বলেন, গতকাল কয়েকটি বাম দলের ডাকা হরতালে রাস্তায় গাড়ি চলেছে। দোকানপাট বন্ধ হয়নি। রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে গতকাল ছাত্রলীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও ভাষা শহীদদের স্মরণে এ সভার আয়োজন করা হয়। সংগঠনের সভাপতি বায়জিদ আহমেদ খানের সভাপতিত্বে এবং ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মো. আসাদুজ্জামান আসাদের পরিচালনায় এতে বক্তব্য দেন ছাত্রলীগ সভাপতি মো. সাইফুর রহমান সোহাগ, সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন, ছাত্রলীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাবেক সভাপতি আনিসুজ্জামান আনিস, সাবেক সাধারণ সম্পাদক গোলাম সারওয়ার কবির, গিয়াসউদ্দিন পলাশ প্রমুখ। সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের পরিবহন শ্রমিকদের উদ্দেশে বলেন, ধর্মঘট ডেকে জনগণকে দুর্ভোগে ফেলার মানে হয় না। আদালতের রায়ের ব্যাপারে জনগণের কোনো দায় নেই, তাহলে তারা কেন দুর্ভোগে থাকবে। এ অযৌক্তিক ধর্মঘট দ্রুত প্রত্যাহার করা উচিত। ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, রাজনীতি করতে হলে লেখাপড়ার বিকল্প নেই। লেখাপড়া বাদ দিয়ে নেতাদের পেছনে ঘুরে লাভ নেই। নেতাদের পাহারাদার হতে পারে না ছাত্রলীগ। দ্রুত প্রশিক্ষণ কেন্দ্র গড়ে তুলে ওরিয়েন্টেশন কোর্স চালু করার নির্দেশ দেন তিনি। মন্ত্রী বলেন, ছাত্রলীগের প্রশিক্ষণ কর্মসূচি দরকার। যোগ্যতা দিয়ে ছাত্রলীগকে আকর্ষণীয় করতে হবে। ঢাকা মহানগর থেকে কর্মসূচি শুরু করে সারা দেশে ছড়িয়ে দিতে হবে। এতে করে ছাত্রলীগ নিয়ন্ত্রণে আসবে। তারা খারাপ কাজ থেকে দূরে থাকবে। ছাত্ররাজনীতি আকর্ষণীয় করতে ছাত্র সংসদ নির্বাচন বেশ জরুরি বলেও মন্তব্য করেন তিনি।   আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘দলে নেতা কমিয়ে কর্মী বাড়াতে হবে। নেতাদের ভিড়ে কর্মী হারিয়ে যাচ্ছে। বেপরোয়া রাজনীতিকদের স্থান আওয়ামী লীগে নেই। আমরা গডফাদার চাই না। জনপ্রিয় নেতা চাই। রাজনীতিতে গডফাদারদের আবির্ভাব ভয়ানক। দলে আতঙ্ক সৃষ্টি করা বন্ধ করতে হবে। কেউ বেপরোয়া হলে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে সবার আগে নেতাদের শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে হবে। ’

up-arrow