Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ২০ নভেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, সোমবার, ২০ নভেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১ মার্চ, ২০১৭ ২৩:৪২
মন্ত্রীদের মদদেই ধর্মঘট
নিজস্ব প্রতিবেদক
মন্ত্রীদের মদদেই ধর্মঘট

পরিবহন ধর্মঘটের পেছনে সরকারের একজন মন্ত্রী ও একজন প্রতিমন্ত্রীকে মদদদাতা বলে আখ্যায়িত করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, নিজেদের ব্যক্তিস্বার্থ হাসিল করতেই দুই মন্ত্রী এ ধরনের অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টি করে জনগণকে দুর্ভোগের মধ্যে ফেলেছেন।

গতকাল দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। ২০০৯ সালের ২৫ ও ২৬ ফেব্রুয়ারি পিলখানায় নিহত সেনা কর্মকর্তাদের স্মরণে বিএনপি এই আলোচনা সভার আয়োজন করে।  

দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক সেনাপ্রধান লেফটেন্যান্ট জেনারেল (অব.) মাহবুবুর রহমানের সভাপতিত্বে স্থায়ী কমিটির অপর সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ভাইস চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) রুহুল আলম চৌধুরী ও প্রচার সম্পাদক শহীদউদ্দিন চৌধুরী এ্যানী প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। মির্জা ফখরুল বলেন, সারা দেশে পরিবহন ধর্মঘটের পেছনে সরকারের একজন প্রভাবশালী মন্ত্রী এবং একজন প্রতিমন্ত্রী মদদ জুগিয়েছেন। সড়ক দুর্ঘটনায় হতাহতের ঘটনায় দুই চালকের সাজার রায়ের প্রতিবাদে মঙ্গলবার সকাল থেকে সারা দেশে পরিবহন শ্রমিকদের দিয়ে অনির্দিষ্টকালের এই ধর্মঘট শুরু করে সাধারণ মানুষকে চরম দুর্ভোগে ফেলেন তারা। গাবতলীতে শ্রমিকদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে একজন শ্রমিক পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছেন। তিনি বলেন, আজ গোটা দেশে সরকার বলতে কিছু আছে বলে মনে হয় না। সমগ্র দেশের মানুষ চরম অস্থিতিশীল ও অনিশ্চয়তার মধ্যে পড়েছে। এই সরকারের লোকজন শুধু ব্যক্তিগত আর দলীয় স্বার্থে আজ গোটা দেশকে ধ্বংস করে ফেলেছে।

সরকার সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ হয়েছে। মির্জা ফখরুল পিলখানায় নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন, পিলখানার হত্যাযজ্ঞের দিনটি জাতির জন্য কলঙ্কময় দিন। এদিন একটি সুপরিকল্পিত চক্রান্তের মাধ্যমে আমাদের জাতীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দেওয়া হয়েছে। আমাদের দেশপ্রেমিক সেনাবাহিনীর মনোবলকে ভেঙে দেওয়ার জন্য এসব অকুতোভয় সেনা কর্মকর্তাকে হত্যা করা হয়েছে। এটি কোনো বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়। একটি মহল যারা কখনো বাংলাদেশকে স্বাধীন, সার্বভৌম ও সমৃদ্ধশালী দেখতে চায় না, তারাই সুচতুরভাবে এ ঘটনা ঘটিয়েছে। আজ না হলেও ভবিষ্যতে একদিন এই বর্বরোচিত ঘটনার সঠিক তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত অপরাধীদের চিহ্নিত করে বিচারের আওতায় আনা হবে ইনশাল্লাহ্।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow