Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, বুধবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : শনিবার, ১১ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১০ মার্চ, ২০১৭ ২৩:২৪
ছাত্রনেতাদের তোষামোদে শিক্ষকরা
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
ছাত্রনেতাদের তোষামোদে শিক্ষকরা

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বর্তমানে ছাত্ররাজনীতিতে শিক্ষক রাজনীতির অনুপ্রবেশ ঘটেছে। শিক্ষক রাজনীতিতেও ছাত্ররাজনীতির অনুপ্রবেশ ঘটেছে।

শিক্ষকরা আত্মমর্যাদা হারিয়ে ছাত্রনেতাদের তোষামোদ করছেন। কী কারণে আপনারা (শিক্ষক) আত্মমর্যাদাবোধ বিকিয়ে দিচ্ছেন? গতকাল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ছাত্র-শিক্ষককেন্দ্র (টিএসসি) মিলনায়তনে মাস্টার দা সূর্য সেন হলের সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, সূর্যসেন হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল, সুবর্ণজয়ন্তী উদ্যাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক সিরাজুম মুনীর প্রমুখ। ওবায়দুল কাদের বলেন, ছাত্র সংগঠনগুলো কথায় কথায় কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধের হুমকি দিচ্ছে আর শিক্ষকরা অবলীলায় তা মেনে নিচ্ছেন। ছাত্র নেতাদের উল্টো সমীহ করছে, ক্রেস্ট দিচ্ছে। এগুলো শিক্ষাবিকাশের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর। শিক্ষকদের আত্মসম্মানবোধ না থাকলে সে প্রতিষ্ঠান ধ্বংস বা চূড়ান্ত খারাপের দিকে যাবে।   ছাত্রনেতাদের সমালোচনা করে মন্ত্রী বলেন, আমাদের সময়ে আমরা বাস আর ট্রেনে চড়ে বিভিন্ন রাজনৈতিক প্রোগ্রামে যেতাম। প্লেনে যাওয়ার কথা স্বপ্নেও ভাবতে পারতাম না। আর বর্তমানে ছাত্রনেতারা প্লেনে চড়ে আশপাশের জেলার প্রোগ্রামে যায়। প্লেনের টিকেট কিনে দেওয়ার জন্য দলের নেতাদের কাছে যায়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অধীনেই সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, পৃথিবীর সব গণতান্ত্রিক দেশে নির্বাচনের দায়িত্বে থাকেন ক্ষমতাসীন সরকার। তেমনিভাবে বাংলাদেশেও শেখ হাসিনা নির্বাচনকালীন সরকারপ্রধান থাকলে দেশে একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন সম্ভব। শেখ হাসিনা নির্বাচনকালীন সরকারপ্রধান থাকলেও জনমতকে প্রভাবিত করবেন না। নির্বাচন কমিশন সর্বাত্মক সহযোগিতা পাবেন এবং তার অধীনেই দেশে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন সম্ভব।  

বড় হতে পরিশ্রমের কোনো বিকল্প নেই : গাজীপুর প্রতিনিধি জানান, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, জীবনে বড় হওয়ার জন্য কঠিন পরিশ্রমের কোনো বিকল্প নেই। এজন্য কঠিন চ্যালেঞ্জ অতিক্রম করার সৎসাহস অর্জন করতে হবে। চ্যালেঞ্জ হচ্ছে নদীর ঢেউ। যে নদীর ঢেউ নেই সেই নদীর কোনো মূল্য নেই। গতকাল গাজীপুরে জাহাঙ্গীর আলম শিক্ষা ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে শিক্ষাবৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে সেতুমন্ত্রী এসব কথা বলেন। গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জাহাঙ্গীর আলমের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট আ ক ম মোজাম্মেল হক, গাজীপুর-২ আসনের এমপি মো. জাহিদ আহসান রাসেল, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. মো. মাহ্বুবর রহমান, গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট আজমত উল্লাহ খান, গাজীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন সবুজ, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের ভারপ্রাপ্ত মেয়র আসাদুর রহমান কিরণ, গাজীপুর শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট ওয়াজ উদ্দিন মিয়া প্রমুখ। অনুষ্ঠানে গাজীপুর সিটি করপোরেশন এলাকার ৩০০ মেধাবী শিক্ষার্থীর মাঝে শিক্ষা বৃত্তির দুই কোটি ২৫ লাখ টাকার চেক ও ১০০ ল্যাপটপ দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানে গাজীপুর মহানগরীর বিভিন্ন কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েক হাজার শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow