Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ১৮ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৭ মার্চ, ২০১৭ ২৩:৫০

বস্তির ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসন

নিজস্ব প্রতিবেদক

বস্তির ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসন

সর্বস্ব হারিয়ে নিঃস্ব হয়েছেন রাজধানীর কড়াইল বস্তির হাজারো মানুষ। তবে গতকাল ঘটনাস্থল পরিদর্শনে গিয়ে অগ্নিকাণ্ডে প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসনের আশ্বাস দিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আনিসুল হক। এর আগে তিনি পল্লীবন্ধু এরশাদ বিদ্যালয় মাঠে ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে খাবার বিতরণ করেন। এ সময় মেয়র আনিসুল হক বলেন, ক্ষতির পরিমাণ  সম্পর্কে বিভিন্ন জন বিভিন্ন কথা বলছে। সিটি করপোরেশনসহ সাত-আটটি এনজিও গণনার কাজ শুরু করেছে। প্রকৃতপক্ষে কয়টা দোকান বা বাড়ি পুড়েছে তা বের করার কাজ চলছে। প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্তদের শনাক্ত করে তাদের পুনর্বাসন করা হবে। বুধবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে রাজধানীর কড়াইল বস্তিতে অগ্নিকাণ্ডে অন্তত সাড়ে ৪০০ টিনশেডের ঘর পুড়ে যায়। মাথা গোঁজার ঠাঁই হারায় সহস্রাধিক মানুষ। দুই ছেলে আর স্ত্রীকে নিয়ে আগুনে পুড়ে যাওয়া ঘরের পাশে মাথায় হাত দিয়ে বসে ছিলেন মফিজুল। তিনি পরিবহন শ্রমিক। স্ত্রী রমিজা বিভিন্ন বাসাবাড়িতে রান্নাবান্নার কাজ করেন। দুই ছেলেকে তারা মহাখালীর একটি স্কুলে ভর্তি করিয়েছেন। মফিজুল বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, ২০১৩ সাল থেকে পরিবার নিয়ে এ বস্তিতেই থাকছেন তারা। স্বামী-স্ত্রীর আয়ে কোনোরকমে চলে তাদের সংসার। উপার্জনের কিছু টাকাও জমিয়েছিলেন তারা। রক্ষা হয়নি সেগুলোও। প্রায় ৩৫ হাজার টাকা সঞ্চয় করে রেখেছিলেন বিছানার নিচে থাকা ট্রাঙ্কের ভিতর। ইচ্ছা ছিল বউয়ের শখের কিছু স্বর্ণের অলঙ্কার বানিয়ে দেওয়ার। গতকাল কড়াইল বস্তিতে গিয়ে দেখা যায়, মফিজুলের মতো অসংখ্য মানুষের ঘর-বাড়ির সঙ্গে পুড়ে ছাই হয়েছে স্বপ্নগুলো। নেই শেষ আশ্রয়টুকুও।


আপনার মন্তব্য