Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : সোমবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১৮ নভেম্বর, ২০১৮ ২২:৫৯
নতুন মার্কিন রাষ্ট্রদূত
বার্নিকাটকে অনুসরণের অঙ্গীকার আর্ল মিলারের
কূটনৈতিক প্রতিবেদক
বার্নিকাটকে অনুসরণের অঙ্গীকার আর্ল মিলারের

বার্নিকাটকে অনুসরণের অঙ্গীকার নতুন মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলারের। একাদশ সংসদ নির্বাচনের ঠিক আগে গুরুত্বপূর্ণ এই সময়ে তিনি দায়িত্ব নিচ্ছেন। গতকাল রাতেই

তার ঢাকায় পৌঁছানোর কথা। কূটনৈতিক রীতি অনুসারে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের কাছে নিজের পরিচয়পত্র জমা দিয়ে শিগগিরই তিনি আনুষ্ঠানিক    

দায়িত্ব পালন শুরু করবেন। গত জুলাই মাসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ও আগস্টে মার্কিন কংগ্রেসের অনুমোদন পাওয়া আর্ল রবার্ট মিলার ঢাকায় মার্শা বার্নিকাটের স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন। তিন বছর আট মাস দায়িত্ব পালন শেষে বার্নিকাট এরই মধ্যে ওয়াশিংটনে ফিরেছেন। যুক্তরাষ্ট্রের রীতি অনুসারে মার্কিন কংগ্রেসের ফরেন রিলেশন কমিটিতে জমা দেওয়া স্টেটমেন্টে আর্ল মিলার ঢাকায় মার্শা বার্নিকাটের ভূমিকা অনুসরণের অঙ্গীকার করেন। গত ২৩ আগস্ট তিন পাতার স্টেটমেন্টে বিভিন্ন বিষয়াদি সম্পর্কে আর্ল মিলার বলেন, আসন্ন নির্বাচন গণতন্ত্র ও আইনের শাসনের প্রতি বাংলাদেশের প্রতিশ্রুতি পুনরায় নিশ্চিত করার একটি সুযোগ। এ জন্য প্রয়োজন জনগণের মতের প্রতিফলন হয় এমন একটি সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ, গ্রহণযোগ্য ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন আয়োজন। সব রাজনৈতিক দলের মুক্তভাবে নিজেদের সভা-সমাবেশ ও অন্যান্য কর্মকাণ্ড করার স্বাধীনতা অবশ্যই নিশ্চিত করতে হবে। এ ছাড়া মত প্রকাশের স্বাধীনতা ও গণমাধ্যমের স্বাধীনতা গণতন্ত্রের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। গণমাধ্যম, সুশীল সমাজ, বিরোধী রাজনৈতিক সদস্যরা এবং শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদকারীদের প্রত্যেককে কোন ধরনের ভয়ভীতি ছাড়া নিজেদের মত প্রকাশ করতে দিতে হবে। গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার সব ক্ষেত্রের প্রসারে রাষ্ট্রদূত বার্নিকাট ছিলেন চ্যাম্পিয়ন। আমি বাংলাদেশে দায়িত্ব পালনের সুযোগ পেলে রাষ্ট্রদূত বার্নিকাটের রেখে আসা প্রশংসনীয় দৃষ্টান্তকে আনন্দের সঙ্গে অনুসরণ  করব। পেশাদার কূটনীতিক আর্ল রবার্ট মিলার ১৯৮৭ সালে মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরে যোগ দেন। তিনি সর্বশেষ বতসোয়ানায় যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি ২০১১ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত দক্ষিণ আফ্রিকার জোহানেসবার্গে যুক্তরাষ্ট্রের কনসাল জেনারেলের দায়িত্ব পালন করেন। এ ছাড়া নয়াদিল্লি, বাগদাদ ও জাকার্তায় মার্কিন দূতাবাসে আঞ্চলিক নিরাপত্তা কর্মকর্তা হিসেবেও কাজ করেছেন তিনি। মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয় ও ইউনাইটেড স্টেটস মেরিন কপস কমান্ড অ্যান্ড স্টাফ কলেজ থেকে স্নাতক ডিগ্রি অর্জনের পর মার্কিন মেরিন কোরে যোগ দেন আর্ল রবার্ট মিলার। এর মধ্যে তিনি ১৯৮১ থেকে ১৯৮৪ সাল পর্যন্ত মেরিন কোরে এবং ১৯৮৫ থেকে ১৯৯২ পর্যন্ত মেরিন কোর রিজার্ভে অফিসার পদে ছিলেন।

 

এই পাতার আরো খবর
up-arrow