Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শুক্রবার, ৩ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২ জুন, ২০১৬ ২২:৩১
ব্রণের দাগ দূর করতে
ব্রণের দাগ দূর করতে

ব্রণ বা ফুসকুঁড়ি উঠলে সৌন্দর্য সচেতন তরুণ-তরুণীদের ঘুম হারাম। কত ধরনের ফেসিয়াল বা ফেসপ্যাকে ব্যস্ত হয়ে পড়ে সবাই।

অনেকের আবার দৌড়ঝাঁপ শুরু হয় চর্ম চিকিৎসকের চেম্বারে। রকমফের প্যাক বা ক্রিম লাগিয়ে ব্রণ দূর করতে পারলেও, ব্রণের দাগ যেন কিছুতেই পিছু ছাড়তে চায় না। ব্রণের এই দাগের হাত থেকে মুক্তি পেতে রইল কয়েকটা ঘরোয়া টোটকা।

০. ভালো করে মুখ ধুয়ে, ব্রণের দাগের ওপর পাতিলেবুর রস কিছুক্ষণ লাগিয়ে রেখে ধুয়ে ফেলুন। লেবুর সাইট্রিক অ্যাসিড ব্রণের দাগ দূর করতে সাহায্য করে। এই পদ্ধতিটি নিয়মিত করে অনুসরণ করলে, ব্রণের দাগ সহজেই গুডবাই বলবে। তবে সেনসিটিভ ত্বকে, পাতিলেবুর রস সরাসরি না লাগিয়ে, এর সঙ্গে সামান্য পানি মিশিয়ে লাগালে ভালো। এই পদ্ধতিতে ত্বকে খুব জ্বালা করলে না করাই শ্রেয়।

০. মধু সর্বদাই ত্বকের উপকারী উপাদান। মধুতে থাকা অ্যান্টিব্যাকটিরিয়াল ব্রণের দাগের ওপর যমের মতো কাজ করে। তাই মুখে ব্রণের দাগের ওপর নিয়ম করে দিন। রাতে ঘুমতে যাওয়ার আগে মধু লাগিয়ে রাখলে উপকার পাবেন।

০. ব্রণের দাগ দূর করতে, আলুর রস দারুণ কার্যকরী। আলু পেস্ট করে তার রস নিয়ে, সেটা ব্রণের দাগ বা মুখে কালো দাগ থাকলে, তার ওপর লাগিয়ে রাখতে পারেন। কিছুক্ষণ রেখে কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

০. শসার রসে থাকা ভিটামিন এ ও পটাশিয়াম ব্রণ, ফুসকুঁড়ির দাগ হঠাতে সহায়তা করে।

শসা পেস্ট করে, তার রস তুলোর মধ্যে নিয়ে, সেটা ব্রণ বা ফুসকুঁড়ির দাগের উপর থুপে-থুপে লাগিয়ে, সারা রাত রেখে পরদিন সকালে ভালো করে মুখ ধুয়ে নিলেই, সমস্যার অনেকটা সমাধান হবে।

কাঁচা ব্রণে সতর্ক হোন। সমপরিমাণ লবঙ্গ, তুলসীপাতা, নিমপাতা, পুদিনাপাতা একসঙ্গে পেস্ট করে কিছুক্ষণ লাগিয়ে ১০-১৫ মিনিট পর পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। শুষ্ক ত্বকের ব্রণে লবঙ্গ তেল খুব উপকারী। পেস্টটি ব্যবহারে ব্রণ হবে না।

 

লেখা : উম্মে হানি,মডেল : ফ্রাইডে

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত
এই পাতার আরো খবর
up-arrow