Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ২ অক্টোবর, ২০১৬

প্রকাশ : শুক্রবার, ৩ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২ জুন, ২০১৬ ২২:৩২
জেনে রাখুন
খেজুরের পুষ্টিগুণ
ফ্রাইডে ডেস্ক
খেজুরের পুষ্টিগুণ

খেজুর যেমন সুস্বাদু তেমনি পুষ্টিগুণে ভরা। রমজানে ইফতার! খেজুর না হলে পূর্ণতা আসে না। খেজুরে রয়েছে রোগব্যাধি উপশমের গুণ। যা মানবদেহে বেশ কার্যকর। এই মধ্যে আছে ক্যালসিয়াম, সালফার, আয়রন, পটাশিয়াম, ফসফরাস, ম্যাঙ্গানিজ, কপার, ম্যাগনেসিয়াম, ভিটামিন বি৬, ফলিক এসিড, আমিষ, শর্করাসহ একাধিক খাদ্যগুণ।

প্রোটিন বাড়ায় : মানবদেহে প্রোটিন একটি অত্যাবশ্যকীয় উপাদান। খেজুর প্রোটিন সমৃদ্ধ ফলে পেশি গঠন করতে সহায়তা করে এবং শরীরের জন্য খুব অপরিহার্য প্রোটিন সরবরাহ করে।

ক্যালসিয়াম সরবরাহ করে : ক্যালসিয়াম হাড় গঠনে সহায়ক। আর খেজুরে রয়েছে প্রচুর ক্যালসিয়াম। যা হাড়কে মজবুত করে। খেজুর শিশুদের মাড়ি শক্ত করতে সাহায্য করে। এছাড়াও এতে আছে পটাশিয়াম, কপার, আয়রন, সোডিয়াম ইত্যাদি। যা শরীরের লবণ ঠিক রাখে, রক্ত তৈরিতে সাহায্য করে।

আয়রনের ঘাটতি পূরণ করে : আয়রন মানবদেহের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। খেজুরে প্রচুর আয়রন রয়েছে, ফলে এটা হৃিপণ্ডের কার্যক্ষমতা বাড়ায়। তাই যাদের দুর্বল হৃিপণ্ড খেজুর হতে পারে তাদের জন্য সবচেয়ে নিরাপদ ওষুধ।

পর্যাপ্ত ভিটামিন : খেজুরে আছে ভিটামিন এ, বি কমপ্লেক্স, সি, কে। ভিটামিন এ, সি এবং কে- কাজ করে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট হিসেবে। ভিটামিন বি কমপ্লেক্স মস্তিষ্ক শক্তিশালী করে। পাশপাশি ত্বক করে সুন্দর। খেজুর দৃষ্টিশক্তি বাড়ায়। রাতকানা রোগ প্রতিরোধেও খেজুর অত্যন্ত কার্যকর।

ওজন কমায় : মাত্র কয়েকটা খেজুর ক্ষুধার তীব্রতা কমিয়ে দেয় এবং পাকস্থলীকে কম খাবার গ্রহণে সহায়তা করে। ডেক্সট্রোজ এবং ফ্রুক্টোজ হলো খেজুরের দুই শর্করা। যা অতি দ্রুত আপনাকে শক্তি দেয়। ফলে খেজুর মানবদেহের প্রয়োজনীয় শর্করা ঘাটতি পূরণ করে।

ক্যান্সার প্রতিরোধ করে : খেজুর পুষ্টিগুণ এবং প্রাকৃতিক আঁশে পূর্ণ। গবেষণায় দেখা গেছে, খেজুর পেটের ক্যান্সার প্রতিরোধ করে। আর যারা নিয়মিত খেজুর খান তাদের বেলায় ক্যান্সারে ঝুঁকিটাও কম থাকে।

কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে : খেজুরে আছে এমন সব পুষ্টিগুণ, যা খাদ্য পরিপাকে সাহায্য করে। রোজায় খাদ্যাভ্যাস পরিবর্তনে কোষ্ঠকাঠিন্য হতে পারে। খেজুর কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে। এছাড়া খেজুর গর্ভবতী মায়েদের জন্য বেশ উপকারী।

রোগ সংক্রমণের প্রতিষেধক : মানবদেহের যকৃতের সংক্রমণে খেজুর উপকারী। এছাড়া গলাব্যথা, বিভিন্ন ধরনের জ্বর, সর্দি এবং ঠাণ্ডায় খেজুর উপকারী। খেজুর অ্যালকোহল জনিত বিষক্রিয়ায় বেশ উপকারী। ভেজানো খেজুর দ্রুত বিষক্রিয়া নষ্ট করে।




সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত
এই পাতার আরো খবর
up-arrow