Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শুক্রবার, ১০ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপডেট : ৯ জুন, ২০১৬ ২১:৫৩
কার্পেটের যত্ন নিন
কার্পেটের যত্ন নিন

কার্পেট ঘরের শোভা বাড়িয়ে তোলে। তবে কার্পেট ভালো রাখার জন্য কার্পেটের পরিচর্যা জরুরি; রইল কিছু পরামর্শ।

 

কার্পেট কেনার আগে কয়েকটি বিষয় জেনে রাখা উচিত। এক রঙের কার্পেট সহজেই ময়লা হয়ে যায়। তবে নকশি বা ডবল বুননের কার্পেট সহজে ময়লা হয় না। তাই বাচ্চাদের ঘরে নকশি কার্পেট রাখুন। ছোট বাচ্চার ঘরে সুতি কিংবা পাটের কার্পেট আদর্শ। কারণ এগুলো সহজে পরিষ্কার করা যায়। কার্পেটের ধুলো পরিষ্কার করতে বছরে অন্তত দুই থেকে তিনবার পিটিয়ে ঝাড়া দেওয়া দরকার। বড় ছাদ কিংবা বারান্দায় কার্পেটটি উল্টো বিছিয়ে মোটা লাঠি কিংবা কার্পেটের ব্রাশের লম্বা হাতল দিয়ে পেটান। ঝাড়া হলে কার্পেটের চার কোণ ধরে উল্টো করে তুলে রোল করে নিন। এতে ধুলো বাইরে পড়বে। তবে দামি কার্পেটের ক্ষেত্রে প্রফেশনালের সাহায্য নেওয়া ভালো। কার্পেট পরিষ্কারের আরেক সহজ উপায় রয়েছে। গোটা কার্পেটে মোটা দানার লবণ ছড়িয়ে দিন। তারপর শক্ত দাঁড়ার স্টিফ ব্রাশ দিয়ে জোরে জোরে ঘষে পরিষ্কার করুন। কার্পেটের জমাট বুনন যেদিকে, সেদিকে ডাস্টার কিংবা ব্রাশ চালাবেন। মাসে অন্তত একবার এভাবে পরিষ্কার করুন। তাহলে ময়লা জমতে পারবে না। কার্পেটে খাবারের দাগ পড়লে সে জায়গায় ভিনেগার বা লেবুর রস ছড়িয়ে দিন। এবার কুসুম গরম সাবানের পানি দিয়ে ঘষে নিন। একটা পরিষ্কার কাপড় দিয়ে ভেজা জায়গাটি মুছে ফেলুন। শুকিয়ে গেলে ডিওডোরাইজার ছড়িয়ে দিন।  খাবারের দাগ ও গন্ধ পুরোপুরি দূর হবে। কার্পেটের দাগ তোলার জন্য কোনো ক্লিনার ব্যবহার করার আগে যে কোনো এক কোনায় ক্লিনার ঢেলে পরীক্ষা করে নিন যেন, রং চটে না যায়। নিশ্চিত হয়ে তবেই ক্লিনার ব্যবহার করুন। কার্পেটে হঠাৎ পানি পড়লে ঘষাঘষি করে মুছবেন না। সাদা তোয়ালে ৪-৫ ইঞ্চি মোটা থাক করে কার্পেটের ভেজা জায়গার উপর রেখে চাপ দিয়ে ধরে রাখুন। পানি শুষে নিলে বাতাসে শুকোতে দিন।  কার্পেট ব্যবহার না করলে উল্টো করে ভাঁজ তুলে রাখতে হবে।

►লেখা : উম্মে হানি




সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত
এই পাতার আরো খবর
up-arrow