Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শুক্রবার, ১৭ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৬ জুন, ২০১৬ ২১:৫৭
নান্দনিক কুর্তা-কামিজ
নান্দনিক কুর্তা-কামিজ
পোশাক: লা রিভ

কুর্তিতে অনেক তরুণীই স্বাচ্ছন্দ্যের পাশাপাশি ফ্যাশনেবল মনে করেন। এ ছাড়াও কামিজের ক্ষেত্রে লং কামিজ বেশ ফ্যাশনেবল। নিত্যনতুন স্টাইল সংযোজন করা হচ্ছে সালোয়ার-কামিজে। অনেকটা আলখেল্লা স্টাইলে তৈরি করা হচ্ছে বিশেষ ধরনের কামিজ। লং কুর্তির পাশাপাশি শর্ট-কামিজগুলোও বেশ চলছে। লিখেছেন— নূরজাহান জেবিন

 

ঈদ সামনে রেখে নানা ডিজাইন ও বাহারি কারুকার্যের পোশাকে দৃষ্টি কেড়েছে ফ্যাশনসচেতন ক্রেতাদের। বিশেষ করে কুর্তি ও কামিজের প্রতি বিশেষ ঝোঁক দেখা গেছে তরুণীদের। কামিজ ও কুর্তিগুলোতে নতুনত্ব এনেছে ফ্যাশন হাউসগুলো। বৈচিত্র্যপূর্ণ ও বর্ণিল এসব পোশাকের দামও ক্রেতাদের হাতের নাগালের মধ্যে। টিনএজাররা আবার বেছে নিতে পারেন শর্ট কুর্তি অথবা শর্ট কামিজ

 

প্রচণ্ড গরমে কুর্তা, কামিজ ফ্যাশন প্রিয় নারীদের সেরা পছন্দ। এতে করে গরমে স্বস্তির সঙ্গে এ পোশাকে আপনাকে লাগবে স্টাইলিশ।

কুর্তা নামে ইন্ডিয়া, পাকিস্তানের পোশাক হলেও বাংলাদেশি মেয়েদের কাছে জনপ্রিয় একটি পোশাক। ফ্যাশনের এ অন্যতম অনুষঙ্গটি সব বয়সীদের পছন্দের শীর্ষে। কুর্তা আরামদায়ক ও বেশ ঢিলেঢালা। কুর্তার আদলে নানা রঙে ঢঙে নিজেকে সাজিয়ে তোলা সম্ভব। ক্যাজুয়াল অথবা ফরমাল যে কোনো স্টাইলের সঙ্গেই এই পোশাকটি বেশ মানানসই। জিন্স, লেগিংস ছাড়া ঢিলা সালোয়ারের সঙ্গেও কুর্তা পরা যায় অনায়াসেই।

তা ছাড়া কামিজেও ফ্যাশনেবল লুক আনা যায় খুব সহজেই। শুধু মানানসই রং আর ডিজাইনের সালোয়ার ও ওড়না জড়ালেই আপনি হয়ে উঠতে পারেন অনন্য। রোদ-বাদলের খেলায় কামিজের কাপড়ে হিসেবে বেছে নিতে পারেন সুতি, এন্ডি কটন, তাঁত, হাফ সিল্ক, সিল্ক ইত্যাদি। তবে রেগুলার ডিজাইনের পোশাকেই সবার আগ্রহ বেশি। ঢিলে সালোয়ারের এবং পালোজ্জার সঙ্গে মানানসই করে পরতে পারেন লং কামিজ কিংবা শর্ট কামিজ।

বিভিন্ন কাটের সুতি কাপড়ের কুর্তা বেছে নিতে পারেন। কামিজের ক্ষেত্রেও বেছে নিতে পারেন সুতি কাপড়। সুতার কাজ করা, ব্লক, অ্যামব্রয়ডারি, টাইডাই করা পোশাক আপনাকে লাগবে অনন্য। বৃত্তের মতো ফ্যাশনও বার বার ফিরে আসে। তারপরও একই পোশাক যত পছন্দেরই হোক সেটা বার বার পরতে একঘেয়েমি লাগে। তাই নিজের রুচিতে আরও বৈচিত্র্য আনার জন্য একটু অন্য রং বা ঢঙের পোশাক সবসময় বেছে নেন। এ সময়ের তরুণীরা রঙিন পোশাকে বেশি প্রাধান্য দেন। সাদা, সবুজ, লাল, হলুদ, ফিরোজা, কমলা, গোলাপি, মেরুন, নীলের মতো উজ্জ্বল সব রংয়ের পোশাকগুলোকে রঙিন করে তুলছে। এবার কুর্তিগুলো অ্যামব্রয়ডারি, স্টোন, কুন্দন, পার্ল, জরি এবং বিভিন্ন কারুকার্যে সজ্জিত। এ ছাড়াও এতে রয়েছে স্প্রিংয়ের কাজ। এক্সক্লুসিভ বিভিন্ন স্টোন, পার্ল, গ্লাস, অ্যামব্রয়ডারি, স্টোনের বোতামের সংমিশ্রণে ভরপুর। পাশাপাশি রয়েছে বিভিন্ন ধরনের নরমাল কামিজ। কামিজের বিভিন্ন স্টাইলে পাড় বসানোর সঙ্গে তো স্টোন ও জরির কাজ আছেই। এ ছাড়াও কটন থ্রি-পিস ও নেটের লেস বসানো থ্রি-পিস পাওয়া যাচ্ছে মেট্রো ফ্যাশনে। এক্সক্লুসিভ পোশাকে সূক্ষ্ম জরির কাজের পাশাপাশি কুন্দন ও মুক্তার ব্যবহার করায় দৃষ্টি কেড়েছে ফ্যাশনসচেতন তরুণীদের। কারুকাজে ভরপুর এসব পোশাকে স্টোনের বোতাম ব্যবহারের মাধ্যমে আরও আকর্ষণীয়ভাবে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে।

ফ্যাশনের পরিবর্তনের সঙ্গে মিল রেখে প্রতিটি ফ্যাশন হাউসে কুর্তা ও কামিজের কাটিং প্যাটার্নে পরিবর্তন আনা হয়েছে। কামিজের কাটিং, কলার, লে-আউট, ছাপা, ব্লক, বুটিক, বাটিক, লেস ও চুমকির ব্যবহারসহ প্রায় সবকিছুতে ইদানীং ভিন্নতা দেখা যাচ্ছে। লম্বা কাটিংয়ের কামিজের জায়গায় এখন চলছে মাঝারি কাটিংয়ের কামিজগুলো। তরুণীরা ট্র্যাডিশনাল পোশাকের পাশাপাশি এই নতুন ধারার ফ্যাশনের সঙ্গে সহজেই নিজেকে মানিয়ে নিচ্ছেন। সাধ আর সাধ্যের সমন্বয়েই তৈরি হচ্ছে এই পোশাকগুলো।

এবারের ঈদে থাকছে নতুন ডিজাইনের বেশকিছু কুর্তা ও কামিজ। রাজধানীর ছোট-বড় সব শপিংমলেই রয়েছে নানা ডিজাইন ও রঙের গরমে উপযোগী এই পোশাকগুলো। ফ্যাশন সচেতন ক্রেতাদের চাহিদা অনুযায়ী বিভিন্ন ফ্যাশন হাউসগুলো রঙে ও ডিজাইনে বৈচিত্র্য যোগ করেছে লং কুর্তি ও কামিজে। তাই সব বয়সীদের পাশাপাশি টিনএজাররাও বেছে নিচ্ছে শর্ট কুর্তি বা শর্ট কামিজ।

দেশের প্রায় সব ধরনের পোশাকের মার্কেটে কিংবা শো-রুমে মিলবে দেশি বিদেশি বিভিন্ন ডিজাইনের কুর্তি। দামেও সহজলভ্য হওয়াতে ফ্যাশন সচেতন তরুণীরা অনাসেই বেছে নিচ্ছেন এসব কুর্তি-কামিজ। তাই সময়ের ট্রেন্ড হিসেবে কুর্তা-কামিজই হয়তো ফ্যাশনের অন্যতম অনুষঙ্গ হয়ে উঠেছে।

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত
এই পাতার আরো খবর
up-arrow