Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শুক্রবার, ১৭ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৬ জুন, ২০১৬ ২১:৫৯
ছেলেদের স্টাইলিশ ঈদ
ছেলেদের স্টাইলিশ ঈদ
মডেল: প্লাবন খান, মেহেদী যুবরাজ ও রোহান আহমেদ ছবি : রনি রেজাউল , পোশাক : প্লাস পয়েন্ট

ঈদের পোশাকে প্রতি বছরই কোনো না কোনো পরিবর্তন আসে। বিশেষত মেয়েদের পোশাকের ক্ষেত্রে। আবার এমন কিছু পোশাক রয়েছে, যার আবেদন সবসময় প্রায় একই রকম। ছেলেদের পোশাকের ক্ষেত্রে ঈদ মানে পাঞ্জাবি হলেও ইদানীংকালে এসে সেই ধারাটা পাল্টে গেছে। রঙিন ফেব্রিকে চেক কিংবা ক্যাজুয়াল নানান ডিজাইন শার্ট ছেলেদের পছন্দের তালিকায় ঢুকে পড়েছে সহজেই। সঙ্গে কালারফুল গ্যাবার্ডিন প্যান্ট। আর যদি বাহারি এক্সেসরিজের ব্যবহার থাকে তাহলে তো সোনায় সোহাগা। ছেলেদের স্টাইলিশ ঈদ নিয়ে লিখেছেন— এ কে রাসেল

এবার চেক শার্টেও যোগ হয়েছে বৈচিত্র্য। তবে সময় যেমন পাল্টাচ্ছে, তেমনি পাল্টাচ্ছে ফ্যাশন ট্রেন্ড। রঙিন প্যান্টের নতুন ট্রেন্ড ঈদ উৎসবে ফ্যাশনের নতুন সংযোজন

 

ঈদ উৎসবে ছেলেরাও পিছিয়ে নেই। এবার পোশাকে কিছুটা ভিন্নতা এসেছে। অনেকেই ক্যাজুয়াল শার্ট বেছে নিচ্ছেন। এর সঙ্গে গ্যাবার্ডিন, জিন্স তো রয়েছেই। চেক আর রঙিন শার্ট-প্যান্টের দিকেই ঝোঁক বেশি। একটু ক্যাজুয়াল পোশাক হলেও সমস্যা নেই। বৈচিত্র্য এনে দিয়েছে হাতঘড়ি আর জুতার ফ্যাশন। সবমিলিয়ে ঈদে ছেলেরা চাইলেই বেছে নিতে পারেন এই নতুন লুক। উৎসবে এই পোশাকগুলোয় কেমন লাগবে সেটা নিয়ে যারা মাথা ঘামাচ্ছেন তারা নিশ্চিন্ত হতে পারেন। দেশি-বিদেশি ফ্যাশন হাউসগুলো রঙিন শার্টে এনেছে নানা ডিজাইন। একরঙা শার্ট তো থাকছেই সঙ্গে চেক মিলবে বিভিন্ন রঙের জমিনে। এর সঙ্গে মানানসই গ্যাবার্ডিন ও ভারী প্যান্ট বেছে নিতে পারেন। শার্টের সঙ্গে রং মানিয়ে প্যান্টের কাটতি খুব। সেই সঙ্গে মিলবে এক্সেসরিজ। এবারের ঈদ ফ্যাশন হিসেবে গাঢ় রঙের প্যান্টগুলোর বেশির ভাগেরই হাঁটু থেকে গোড়ালির দিকে ন্যারো হয়ে এসেছে। হালফ্যাশনের এসব সুতি প্যান্ট আরামদায়ক বলে চাহিদা বেশি। সময়োপযোগী পরিবর্তনের ছোঁয়া জাগাতে নতুন কাট ও ডিজাইনের নান্দনিক শার্টে সেজে উঠেছে ছেলেদের ঈদ-বাজার।

রঙ হোক তারুণ্যের জয়ধারা; এ বিষয়টিকে মাথায় রেখেই ছেলেদের জন্য এবারের ঈদ কালেকশনে গাঢ় রঙের ব্যবহার করা হয়েছে। ছেলেদের জন্য এরই মধ্যে বাজারে এসেছে এক্সক্লুসিভ ফরমাল ও ক্যাজুয়াল শার্ট,  জিন্স প্যান্ট। তরুণদের কথা মাথায় রেখে শর্ট শার্ট ও রয়েছে। ফরমাল বা ক্যাজুয়াল দুই ধরনের পোশাককেই প্রাধান্য দিচ্ছে স্থানীয় ফ্যাশন হাউসগুলো। প্লাস পয়েন্টের ডিজাইনার ও কর্ণধার বিপুল ইসলাম বলেন, এবার ফ্যাশন ট্রেন্ডে রঙ-বাহারি শার্ট ও প্যান্ট বাজারে এসেছে। চেক শার্টের বৈচিত্র্য পাওয়া যাবে এবার। গ্যাবার্ডিন প্যান্টের সঙ্গে ক্যাজুয়াল শার্টের জোড় ঈদ উৎসবে ছেলেদের আরও স্মার্ট লুক দেবে। সঙ্গে চামড়ার জুতো, বেল্ট পাল্টে দিতে পারে আউটলুক।

এবার ছেলেদের প্যান্টে রং লেগেছে। সময় যেমন পাল্টাচ্ছে, তেমনি পাল্টাচ্ছে ফ্যাশন ট্রেন্ড। এরই মধ্যে চালু হয়ে গেছে রঙিন প্যান্টের নতুন এই ট্রেন্ড। রঙিন প্যান্ট এখন ফ্যাশন সচেতন তরুণদের প্রথম পছন্দ। অন্যদের থেকে একটু আলাদা, স্মার্ট লুক। কেবল জামা-জুতাই নয়, ঈদের দিন পরিপাটি বেরোতে হলে চাই আরও কিছু আনুষঙ্গিক বিষয়ও। সে তালিকায় রয়েছে বেল্ট, মানিব্যাগ, রোদ চশমা, টুপি, ব্রেসলেট, ঘড়ি, বডি স্প্রে, আন্ডারওয়্যার এবং মোজা। কিছুটা বড় এবং পাথরযুক্ত বকলেসের বেল্টের চাহিদাই এখন বেশি। কাপড়ের বেল্টও তরুণদের নজর কাড়ছে। এ ছাড়া ফরমাল লুকের সঙ্গে মানানসই চামড়ার বেল্টের বিকল্প নেই। বেল্টের মধ্যে রয়েছে কয়েকটি ভাগ। ব্র্যান্ড লেদার, ফ্যাশনেবল কিংবা ডিজাইনার বেল্ট। ঘড়ির দোকানগুলোতে পাওয়া যাচ্ছে রোলেক্স, জেনিথ, টাইটান, র‌্যাডো, সিকো, সুইস আর্মি, ডিজেল, সিটিজেন এবং ডিজনি ব্র্যান্ডের অ্যারিস্ট্রোকেট সব ঘড়ি। দাম একটু বেশি হলেও ঈদ উপহার হিসেবে অনেকেই বেছে নিচ্ছেন হাতঘড়ি। বডি স্প্রের মধ্যে চলতি ব্র্যান্ডগুলো হচ্ছে, এক্স, চেরি ব্লোসম, ওল্ড স্পাইস, ইমপালস এবং বন্ডএজ। এই ঈদে তরুণদের বাহারি ডিজাইনের ক্যাজুয়াল শার্টগুলোতেও রয়েছে বৈচিত্র্যের ছোঁয়া। পাশাকের পর ছেলেদের কাছে প্রিয় হচ্ছে ফ্যাশনবেল ও আরামদায়ক জুতা। কিছুটা বড় এবং পাথরযুক্ত বকলেসের বেল্টের চাহিদাই এখন বেশি। ‘ফরমাল লুক’-এর সঙ্গে মানানসই চামড়ার বেল্টের বিকল্প নেই। বেল্টের মধ্যে রয়েছে কয়েকটি ভাগ। ব্র্যান্ড লেদার, ফ্যাশনেবল কিংবা ডিজাইনার বেল্ট। বেল্টের ভালো ব্র্যান্ডগুলো হচ্ছে— বস, প্লেবয়, আরমানি, অ্যাপেক্স, গুসি এবং সিকে। ২শ’ থেকে ১ হাজার ৫শ’ টাকায় পাওয়া যাবে এসব বেল্ট। এ ছাড়াও রেডিমেড শার্ট ও প্যান্ট অনেকের মাপ অনুযায়ী ফিট হয় না বলেই নিজের শারীরিক গঠন অনুযায়ী পোশাক তৈরি করে নিতে নামিদামি টেইলার্সে ভিড় জমাচ্ছেন তরুণরা।




সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত
এই পাতার আরো খবর
up-arrow