Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : শুক্রবার, ১ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৩০ জুন, ২০১৬ ২২:১১
পাঞ্জাবির সঙ্গে কটি
পাঞ্জাবির সঙ্গে কটি
মডেল : রাজ আরিয়ান , পোশাক : বালুচর ছবি : বিল্লাল

বাংলাদেশের প্রেক্ষিতে পাঞ্জাবি ছাড়া ছেলেদের ঈদ ভাবাই যায় না। সেজন্য ঈদের কেনাকাটায় পাঞ্জাবির চাহিদা সব সময়তাই ঈদের কেনাকাটায় পুরুষের বেলায় সবার আগে চাই পাঞ্জাবি। আবার যারা ফ্যাশনকে একটু বেশি গুরুত্ব দেন তারা পাঞ্জাবির ওপর চড়িয়ে দেন স্লিভলেস বা হাতাকাটা কটি। এতে পাঞ্জাবির ফ্যাশনে যেমন পূর্ণতা আসে, তেমনি প্রকাশ পায় ব্যক্তিত্বের রুচিবোধ। গত কয়েক বছর ধরে তরুণদের মধ্যে তো বটেই সব বয়সী মানুষের কাছেই এটি জনপ্রিয় ট্রেন্ডে পরিণত হয়েছে।

অবশ্য পাঞ্জাবির সঙ্গে কটি পরাটা শীত মৌসুমে একটু বেশি দেখা যায়, তবুও হালের ফ্যাশন সচেতনরাও নিজেদের ব্যক্তিত্বের অস্তিত্ব জানান দিতে বর্ষাকালীন এ ঈদেও পাঞ্জাবির সঙ্গে মানিয়ে কটি পরছে বা পরবে। ফ্যাশনের ব্যাকরণে পাঞ্জাবির সঙ্গে কটি পরার দুটি লক্ষণীয় দিক আছে। সেটি হল পাঞ্জাবির রঙের সঙ্গে মিলিয়ে কটি পরা, অথবা পাঞ্জাবির রঙের ঠিক বিপরীত রঙের কটি পরা। দুটি দিকেরই প্রচলন সমানে সমান। এ প্রসঙ্গে কথা হয় ফ্যাশন ডিজাইনার ও ফ্যাশন হাউস বালুচরের কর্ণধার শাহীন চৌধুরির সঙ্গে। তিনি বলেন— ‘পাঞ্জাবির চাহিদা সারা বছরই কম-বেশি থাকে। তবে ঈদে সেটা কয়েকগুণ বেড়ে যায়। আর কটি শীতের সময় বেশি চলে। তবে এবার যেহেতু গরমের শেষ ও বর্ষায় ঈদ পড়েছে, তাই ক’টির চাহিদাও চোখে পড়ার মতো। পাঞ্জাবির সঙ্গে রঙ মিলিয়ে কিংবা বিপরীত রং ও কাছাকাছি রঙের ক’টি যে কারও লুকেই পরিবর্তন এনে দিতে পারে। ’

এবারের ঈদে বালুচরের সংগ্রহ প্রসঙ্গে শাহীন চৌধুরী বলেন, ‘বালুচরে কেবল পাঞ্জাবিই পাওয়া যায়। আমরা এই ঈদে তিনশর বেশি নতুন ডিজাইনের পাঞ্জাবি নিয়ে এসেছি। এসব পাঞ্জাবির ডিজাইন ও নকশায় যেমন বৈচিত্র্য রয়েছে, তেমনি ফেব্রিকেও দারুণ চমক রয়েছে। আজিজ সুপার মার্কেটে আমাদের দুটি শো রুমেই পাঞ্জাবি পাওয়া যাচ্ছে। ’

সাধারণত যে কোনো ফ্যাশনেই রং ও নকশার বিষয়টা সবার আগে আসে। পাঞ্জাবি-কটির বেলায়ও এর ব্যতিক্রম নয়। বয়স্ক লোকরা একটু সাদা বা হালকা রংটাকে বেশি পছন্দ করেন। তাই তাদের পাঞ্জাবিটা হালকা রঙের হলেই ভালো। যেমন সাদা, অ্যাশ খয়েরি, আকাশী ইত্যাদি। আবার নকশায় খুব বেশি কাজ না থাকাটাও ভালো। হালকা কাজের হলেই স্বস্তিদায়ক। তাই বয়স্ক লোকের কটিও হওয়া উচিত পাঞ্জাবির সঙ্গে মানানসই হালকা রং ও কাজের। অন্যদিকে তরুণরা বরাবরই একটু উজ্জ্বল রং, একটু ভারী কাজের পোশাক পরতে পছন্দ করেন। সে জন্য পাঞ্জাবির বেলায়ও তাদের সেই রুচিবোধ ধরা দেয়। আর ঈদবাজারে যেসব পাঞ্জাবি এসেছে তার সিংহ ভাগই তারুণ্যের কথা বা হাল ফ্যাশনের কথা মাথায় রেখেই করা হয়েছে। তাই এসব পাঞ্জাবির রঙে ও নকশায় বৈচিত্র্য একটু বেশিই লক্ষণীয়।

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত
এই পাতার আরো খবর
up-arrow