Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : শুক্রবার, ১ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৩০ জুন, ২০১৬ ২২:১৩
গ্ল্যামারাস ঈদের সাজ
ঈদের মেকআপ নিয়ে নানা এক্সপেরিমেন্ট চলে। ঈদের মেকআপে গর্জিয়াস লুকস না হলে ঈদের সাজে পূর্ণতা আসে না। রইলো একগুচ্ছ গ্ল্যামারস লুকের গল্প
গ্ল্যামারাস ঈদের সাজ
মডেল : মম - পোশাক : মেহাজাবীন

ঠোঁটে লিপস্টিক, গালে ব্লাশ অন, চোখে আইলাইনার, ঘণ্টার পর ঘণ্টা আয়নার সামনে বসে থাকা... সাজতে ভালোবাসেন না এমন রমণীর সংখ্যা নেহায়েত কমই। কিন্তু ঈদের সাজে বৈচিত্র্য থাকা চাই চাই। কিন্তু অনেকেই আছেন মেক-আপে বেশি সময় ব্যয় করতে নারাজ। অথচ সুন্দর লুকস পেতে মরিয়া হয়ে থাকেন। আচ্ছা এমন কোন ম্যাজিক আছে! যার তুড়িতে মেকআপ হয়ে উঠবে গ্ল্যামারস আর অল্প সময়ে সেজে আপনি হয়ে উঠবেন সবার মধ্যমণি, মিলিয়ে নেবেন!

ফেস মেকআপ

বেস মেকআপ প্রসাধন পর্বের এক গুরুত্বপূর্ণ অংশ। প্রথমেই মাইল্ড ক্লিনজার দিয়ে মুখ ও গলা পরিষ্কার করে নিন। ত্বক পরিষ্কার না থাকলে মেকআপ ভালো দেখায় না। প্রথমে ট্রিন্টেড ময়েশ্চার লাগান। এটি সান প্রটেকশন ফ্যাক্টর ও রোদ থেকে ত্বককে রক্ষা করে, ত্বকে জেল্লা আনে। মুখে দাগ থাকলে সহজে কনসিলার ব্যবহার করুন। এটাতে চোখের নিচের কালির দাগও চলে যাবে। এরপর ফাউন্ডেশন লাগাতে হবে। ফাউন্ডেশন বাছাটা যদিও একটু মুশকিল। এটা কেনার সময় ত্বকে লাগিয়ে দেখে নিন স্যুট করে কিনা। যদি দেখেন মিশে যাচ্ছে তাহলে বুঝবেন এটাই আপনার জন্য রাইট চয়েজ। মেকআপের পর একটু কমপ্যাক্ট পাফ করতে পারেন। তবে যাই করুন কেন, খেয়াল রাখবেন ন্যাচারাল লুকসটা যেন থাকে। এবার একটি ব্রাশ দিয়ে গালের বাইরে হালকা ব্রনজার ডাস্ট করে নিন। ঘাড়ে ও গলাতে লাগিয়ে নিন। মনে রাখবেন, ভারি মেকআপই নয়, হালকা মেক-আপেও কিন্তু গর্জিয়াস লুক করা যায়।

লিপ স্টোরি

সারা মুখে মেক-আপ না করেও নজর কাড়তে পারেন দারুণ শেডের লিপস্টিক দিয়ে। হট পিঙ্ক, কোরাল, ফুশিয়া, রেড, অরেঞ্জ, পার্পলের মতো উজ্জ্বল শেডের লিপস্টিক আপনার গ্ল্যামারস লুক এনে দেবে সহজেই। ফলে বাকি মেক-আপ তেমন না করলেও চলবে। চোখ ও ঠোঁটের মধ্যে হাইলাইটস করুন। ডিপ স্মোকি আইজ পছন্দ করলে ঠোঁটে ন্যাচারাল শেডের লিপকালার ব্যবহার করুন। বেশিক্ষণ কভারের জন্য লিপবাম লাগিয়ে তার ওপর ম্যাট লিপস্টিক লাগাতে পারেন। মনে রাখবেন, গমরঙা বা শ্যামলা, সব স্কিন টোনের সঙ্গে ন্যুড লুক ভালো কাজ করে।

আই মেকআপ

উৎসবে এমনিতেই ব্যস্ততা বেশি তার ওপর ঈদ বলে কথা। আগের রাতে ঘুম না হলে স্বভাবতই তার প্রভাব চোখে-মুখে পড়ে। তাই চোখের ক্লান্তি দূর করতে ব্রাইট আইলাইনার লাগিয়ে নিন। এক্সপেরিমেন্টে আপত্তি না থাকলে নীল, সবুজ, পার্পল, ব্রাউনের মতো রঙিন আইলাইনার ভালো মানাবে। সঙ্গে আইলিডের ওপর হালকা নিউট্রাল শেডের আইশ্যাডো লাগাতে পারেন। আইলাইনারে লাইন টানা ধৈর্যের ব্যাপার, এ ক্ষেত্রে আই পেন্সিল ব্যবহার করতে পারেন। মনে রাখবেন, চোখের সাজে মাশকারা কিন্তু মাস্ট। এ ছাড়া সুন্দর করে শেপ করা আইব্রো আপনার লুক বদলে দেবে। সময়ের অভাবে আইব্রো না দিলে ক্লিয়ার মাশকারা ব্যবহার করে নিলেও ভালো ইফেক্ট আসবে।

হেয়ার স্টাইল

চুলের কথা ভুললে তো চলবে না, একটি দারুণ হেয়ার স্টাইল আপনাকে সবার থেকে আলাদা করে তুলবে। তবে একটু বুদ্ধি খাটালে কিন্তু তাড়াহুড়োর মধ্যেও বেশি সময় না নিয়ে সুন্দর হেয়ার স্টাইল করে তোলা সম্ভব।

০. আগের রাতে হালকা হাতে মুজ বা ক্রিম লাগিয়ে নিন। এবার দুটো বিনুনি করে শুয়ে পড়ুন। সকালে দেখবেন ম্যাজিক, চুল হবে সুন্দর সফট কার্ল।

০. পার্লারে গিয়ে সব সময় হেয়ার স্টাইল করা সম্ভব নয়। তাই কিনে ফেলুন ব্লো ড্রায়ার, কার্লার ও হেয়ার স্টোনার। এগুলো আপনাকে দেবে গ্ল্যামারস হেয়ারস্টাইল।

০. হাই পনিটেল করে চুল ২-৪ ভাগে ভাগ করে নিন। (চুলের ঘনত্বের ওপর নির্ভর করে) এবার প্রতিটা সেকশন কার্লারের সাহায্যে কার্ল করে নিন। চুলের তাপমাত্রা স্বাভাবিক হলে পনিটেল খুলে ফেলুন। সময় না নিলে হেয়ার স্প্রে করতে পারেন। দেখবেন অনবদ্য কার্লি হেয়ার স্টাইল।

০. টপ নট করে ফেলুন, লাগিয়ে নিন হেয়ারব্যান্ড, ফুল বা ক্লিপের মতো মানানসই এক্সেসরিজ।

০. খোলা চুলে স্টাইল করতে চাইলে, চুল উল্টে নিয়ে ব্যাক কোম করে নিন, ইনস্ট্যান্ট সলিউশন পেয়ে যাবেন। সুন্দর ব্যাক ক্লিপ দিয়ে চুল আটকে নিতে পারেন।

০. ছোট চুলে ভলিউম করতে চাইলে রোলার লাগান। তারপর চুলের সামনের দিকে পিন করে চুল খুলে রাখুন।

 

সর্বোপরি, গ্ল্যামারস লুকের অন্যতম শর্ত পোশাকের সঙ্গে মিল রেখে মেকআপ। আর ঈদের গ্ল্যামারস লুকের মেকআপের পেছনে বেশি সময় ব্যয় না করে পোশাকের সঙ্গে মানানসই এক্সেসরিজ বেছে নিন। মেকআপে গ্ল্যামারস লুকের জন্য জুতো, ব্যাগ এবং অন্যান্য এক্সেসরিজের ওপর জোর দিন। যেমন চাঙ্কি কানের দুল, হাতের রিং, স্কার্ফ, নজরকাড়া নেকপিস ও ব্রাইট কালারের ব্যাগ আপনার উৎসবের সাজে আলাদা মাত্রা যোগ করবে।

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত
এই পাতার আরো খবর
up-arrow