Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ জানুয়ারি, ২০১৭

প্রকাশ : শুক্রবার, ২২ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২১ জুলাই, ২০১৬ ২১:৪৮
হলদে আভায় রূপচর্চা
হলদে আভায় রূপচর্চা

রান্নাঘর, রূপচর্চা, স্বাস্থ্যরক্ষা হলুদের জয়জয়কার সবখানেই। সুপ্রাচীনকাল থেকেই হলুদের ব্যবহার জনপ্রিয়। নানান রকম চিকিৎসা থেকে শুরু করে রূপচর্চায়ও অন্যতম উপাদান হিসেবে হলুদ ব্যবহৃত হচ্ছে যুগ যুগ ধরে। জেনে নেওয়া যাক হলুদের কিছু জাদুকরী ব্যবহার।

 

০. কাঁচা হলুদ বেটে রস বের করে সঙ্গে মুলতানি মাটি ও নিমপাতার রস মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এবার মুখে লাগিয়ে শুকিয়ে এলে পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত এই প্যাক ব্যবহারে ব্রণ কমে আসবে।

 

০. ব্রণের দাগ দূর করতে হলুদ ভালো কার্যকরী। সামান্য পানির সঙ্গে হলুদ মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এবার সরাসরি ব্রণের দাগ কিংবা ক্ষততে লাগিয়ে ১০ মিনিট অপেক্ষা করুন। এরপর পানি দিয়ে ভালো করে ধুয়ে ফেলুন।

 

০. কাঁচা হলুদ ও শুকনো কমলার খোসা একত্রে বেটে স্ক্রাবার হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। এতে করে ত্বকের উজ্জ্বলতা বেড়ে যাবে বহুগুণ।

 

০. তৈলাক্ত ত্বকের ভাব দূর করতে সমপরিমাণ হলুদ ও চন্দন গুঁড়ো মিশিয়ে তাতে সমপরিমাণ কমলালেবুর রস দিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এবার মুখে লাগিয়ে রাখুন ১৫ মিনিট। পানি দিয়ে ভালো করে মুখ পরিষ্কার করে নিন। নিয়মিত ব্যবহারে মুখের তেলতেলে ভাব কাটবে।

 

০. সপ্তাহে অন্তত ১ দিন বেসন, কাঁচা হলুদ বাটা ও টক দই মিশিয়ে মন পেস্ট তৈরি করে, পেস্টটি মুখ এবং পুরো শরীরে লাগিয়ে ২০ মিনিট অপেক্ষা করুন। এবার পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি ত্বকের ময়লা পরিষ্কার করে তারুণ্য ভাব ধরে রাখতে সাহায্য করবে।

০. ৩-৪ চিমটি হলুদ গুঁড়ার সঙ্গে পরিমাণমতো মাখন মিশিয়ে চোখের নিচে লাগিয়ে রাখুন। ১৫ মিনিট পর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি চোখের কালচে ভাব দূর করবে।

 

০. হলুদের তৈরি দুধ খেলে তা কোলেস্টরলের মাত্রা স্বাভাবিক রেখে হৃদরোগ থেকে রক্ষা করতে সাহায্য করে।

 

০. যাদের রাতে ঘুমের সমস্যা রয়েছে তারা কুসুম গরম হলুদ দুধ  ঘুমাতে যাওয়ার আগে খেলে ভালো উপকার পাবেন।

 

সুস্বাস্থ্যে হলুদ :

০. হালকা উষ্ণ পানির সঙ্গে সামান্য হলুদ মিক্সড করে পেস্ট তৈরি করে ক্ষত স্থানে লাগিয়ে দিন। এই পেস্ট ব্যবহারে কাঁটাছেঁড়া এবং ক্ষত স্থান দ্রুত সেরে উঠবে।

 

০. যাদের কাশির সমস্যা রয়েছে তারা প্রতিদিন সকালে কাঁচা হলুদের রসের সঙ্গে ১ চিমটি লবণ মিশিয়ে খেলে উপকার পাবেন।

 

০. হাড়ের জোড়ায় ব্যথা হলে হলুদের পেস্ট প্রলেপ নিয়মিত দিলে উপকার পাওয়া যায়।

 

০. যে কোনো ধরনের চর্মরোগের জন্য হলুদ অনেক উপকারী একটি ভেষজ। কাঁচা হলুদের সঙ্গে কাঁচা দুধ মিশিয়ে শরীরে মাখলে অ্যালার্জি চুলকানি থেকে মুক্তি পাবেন।

 

০. হলুদ রক্ত তৈরিতে সাহায্য করে।   সকালে এক চামচ কাঁচা হলুদের রস ও সামান্য পরিমাণ মধু মিশিয়ে নিয়মিত খেলে রক্তশূন্যতা দূর হবে।            

   লেখা : সুমাইয়া সিমি

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত
এই পাতার আরো খবর
up-arrow