Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শুক্রবার, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২১:৪৩
মনোবিদের মুখোমুখি
বিশ্বাস, দায়িত্ববোধকে ভালো সম্পর্কের ভিত বলা হয়। আর বিয়ের মতো সম্পর্কে যদি সেটাই অনুপস্থিত থাকে তবে সুখ হারিয়ে যায়। অতীতকে পেছনে ফেলে সামনে এগিয়ে যান।
অধ্যাপক ডা. মোহিত কামাল মনোরোগ বিশেষজ্ঞ
মনোবিদের মুখোমুখি

সমস্যা

চার বছর ধরে একটি মেয়ের সঙ্গে সোশ্যাল সাইটে পরিচয়। শুরু থেকেই সম্পর্কের গভীরতা বাড়তে থাকে। পরবর্তীতে দুই পরিবারের সম্মতিতে বিয়েও ঠিক হয়। কিন্তু হঠাৎ করেই ওকে একজন বিবাহিত লোকের সঙ্গে চ্যাট করতে দেখি। ওদের মধ্যে সেক্স চ্যাটও হয় এবং চ্যাটগুলো দেখে পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছে, ওদের মধ্যে সম্পর্কও রয়েছে। তবে এসব শুধু সোশ্যাল সাইটেই সীমাবদ্ধ ছিল। আমি মানসিকভাবে প্রচণ্ড কষ্ট পাই। মেয়েটি জানায়, সে লোকটির ব্যাপারে সিরিয়াস নয়। কিন্তু আমি তা মেনে নিতে পারছি না। আমার পরিবার এবং বন্ধুরা বলে ওকে ভুলে যেতে। এরপর ও আমাকে বলে, আমাদের বিয়ে করা সম্ভব নয়। একমাস আগে জানায়, আমাকে ছেড়ে যেতে পেরে খুব খুশি। এখন আমার নিজেকে খুব ছোট মনে হচ্ছে। কী করা উচিত?       — নাবিল আহমেদ, বাসাবো।

 

সমাধান

বিশেষজ্ঞরা নারী-পুরুষের ভালোবাসাকে বিভিন্ন ভাগে ভাগ করেছেন। কোনো ভালোবাসা শুধু যৌন আকর্ষণ আবার কোনোটা শুধু বন্ধুত্বেই সীমাবদ্ধ। এমনও অনেকে আছেন যারা অন্যের প্রতি আসক্ত জেনেও নিজেদের ভালোবাসার দায় এড়াতে পারেন না। গত চার বছর প্রেমের পর যদি হঠাৎ করে জানা যায় প্রেমিকা অন্যের প্রতিও আসক্ত, সে তাকে ঠকিয়েছে, তবে মনে রাগ, আক্রোশ, হতাশা আসাটাই স্বাভাবিক। কিন্তু ভেবে দেখুন আপনি যদি আপনার প্রেমিকার এই সম্পর্কের বিষয়টা বিয়ের দুমাস আগে না জেনে দুমাস পরে জানতেন তবে কী হতো? তখন তো আপনি তাকে বিশ্বাস করতে পারতেন না! সে ক্ষেত্রেও আপনাদের সম্পর্কটা ভেঙে যেত এবং তাতে লোক জানাজানি হতো। সে পরিস্থিতিতে আপনার হতাশা আরও বাড়ত, সেটা ভেবেই নিজেকে সান্ত্বনা দিন। বন্ধুদের সঙ্গে সময় কাটান এবং অতীত ভুলে থাকুন।

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত
এই পাতার আরো খবর
up-arrow