Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শুক্রবার, ১৪ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৩ অক্টোবর, ২০১৬ ২১:৫৭
ঘরে বসেই ফেসিয়াল
ফেরদৌস আরা
ঘরে বসেই ফেসিয়াল

মখমলে, মসৃণ, উজ্জ্বল ত্বক পেতে আমরা সবাই চাই। আর সে জন্য কত সাধ্যসাধনা! বাজারের চলতি প্রোডাক্ট ত্বকে দারুণ প্রভাব ফেলে। এসব প্রোডাক্ট ব্যবহারে ত্বক তার স্বাভাবিক আর্দ্রতা হারিয়ে ফেলে। তাই চলতি প্রোডাক্টের ওপর নির্ভর না করে মুখ পরিষ্কার করার আয়োজন করে ফেলুন ঘরেই।

 

আপেলের জাদু

স্বাভাবিক ত্বকের ক্ষেত্রে কাজে দেয় আপেল। আর আপেলের ক্রিম দিয়ে বানানো ক্লিনজারও। ঘরে বসে একটি ছোট বা আধখানা আপেল সিদ্ধ করে নিন। এবার কাঁটা চামচ দিয়ে ভালো করে থেঁতো করুন। এতে দিন এক চা চামচ ক্রিম, এক চা চামচ অলিভ অয়েল এবং এক চা চামচ লেবু কিংবা কমলালেবুর রস। সব উপকরণ ভালো করে পেস্টের মতো বানিয়ে নিন। মুখে দিয়ে মিনিট পাঁচেক রেখে কুসুম গরম পানি দিয়ে ভালো করে ধুয়ে নিন। দইয়ের সঙ্গে শসার রস মিশালেও ভালো উপকার পাবেন।

 

ভিটামিন সি কমলালেবু

কম্বিনেশন স্কিন হলে একটা পাকা টমেটোর সঙ্গে দুই চা চামচ দুধ আর কমলালেবুর রস মিশিয়ে ক্লিনজার বানিয়ে নিন। মিনিট পাঁচেক মুখে লাগিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এই ক্লিনজার ফ্রিজে রেখেও ব্যবহার করতে পারবেন। এর সঙ্গে দই আর বেসনের মিশ্রণও কম্বিনেশন স্কিনের জন্য ভালো। দুটো পাকা কলার সঙ্গে এক টেবিল চামচ মধু মিশিয়ে ফেস স্ক্রাব লাগাতে পারেন। যাদের ত্বক অতিরিক্ত একটু শুষ্ক তারা এর সঙ্গে এক চা-চামচ ক্রিম ও এক চা-চামচ মধু মিশিয়ে নিন।

 

আমন্ডে রূপচর্চা

ত্বক অতিরিক্ত শুষ্ক? একটা ডিমের কুসুমের সঙ্গে এক চা চামচ মধু মিশিয়ে নিন। আরেক দিকে পাঁচ-সাতটা আমন্ডের পেস্ট বানিয়ে রাখুন আগে থেকেই। এবার ডিম আর মধুর মিশ্রণটায় আমন্ডের পেস্ট মিশিয়ে নিন। মুখে লাগিয়ে রেখে দিন। শুকিয়ে গেলে কুসুম গরম পানিতে মুখখানা ভালো করে ধুয়ে নিন। সমান পরিমাণ থেঁতো শসা, রান্না করা ওটমিল আর দই মিশিয়ে ক্লিনজার বানিয়ে ফেলতে পারেন। ওটের সঙ্গে ডিমের সাদা অংশ ভালো করে মিশিয়ে মুখে লাগালেও ভালো উপকার পাবেন।

 

আয়ুর্বেদিক মধু

ধোয়া, ধুলো, পলিউশন, কড়া কেমিক্যালযুক্ত কসমেটিক্সের প্রভাবে ত্বক হয়ে ওঠে নিষ্প্রাণ। অনেক চেষ্টা করেও কাঙ্ক্ষিত জেল্লা ফিরে পাওয়া যায় না। মধু আর লেবু দিয়ে ফেসওয়াশ বানালে তা অ্যান্টিসেপটিক-এর পাশাপাশি ত্বককে আর্দ্রতা জোগানোর কাজ করে। দুই টেবিল চামচ মধুর সঙ্গে মিশিয়ে নিন এক টেবিল চামচ লেবুর রস। মিশ্রণটা হাতে ঘষে পাতলা একটা পরত বানিয়ে নিন। এবার ভালো করে লাগিয়ে নিন মুখে, ঘাড়ে এবং গলায়।  শুকিয়ে যাওয়া অবধি রেখে দিন। এবার কুসুম গরম পানিতে ভালো করে মুখ ধুয়ে নিন।

 

বেসন দিয়ে ক্লিনজার

তৈলাক্ত ত্বক হলে বেসন আর হলুদের মিশ্রণ ভালো ক্লিনজার। দুই টেবিল চামচ বেসন আর এক টেবিল চামচ হলুদ একটি পাত্রে। এর সঙ্গে এতটা দুধ দিন যেন মিশ্রণটা থকথকে হয়। এবার দুই-তিন মিনিট মুখে লাগিয়ে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ভালো করে ধুয়ে ফেলুন। এই ক্লিনজার কম্বিনেশন ত্বকের জন্যও বেশ উপকারী। ত্বক যদি তৈলাক্ত হয় তবে অ্যাকনে হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে। এককাপ ফুটন্ত গরম পানিতে এককাপ ওটমিল মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটা ঠাণ্ডা হলে মুখে লাগিয়ে ধীরে ধীরে ম্যাসাজ করে নিন। মিনিট দুয়েক পর ধুয়ে ফেলুন।  অ্যাকনের সমস্যা দূর হবে।

 

টক দইয়ের ফেসওয়াশ

ত্বককে উজ্জ্বল আর মসৃণ করে তুলতে মধুর সঙ্গে দই দিয়ে বানিয়ে নিন ফেসিয়াল ক্লিনজার। দুই চা-চামচ দইয়ের সঙ্গে এক চা চামচ মধু মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে নিন। মিনিট পাঁচেক রেখে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এটি স্বাভাবিক ত্বকের জন্য বেশ উপকারী। শুষ্ক ত্বকের জন্য এর সঙ্গে এক চা চামচ অলিভ অয়েল মিশিয়ে নিতে পারেন। নিয়মিত ব্যবহারে উপকার পাবেন।  তাছাড়া টকদই, মুলতানি মাটি, গ্লিসারিন, গোলাপ জল ভালোভাবে মিশিয়ে পুরো মুখে এ মাস্ক লাগিয়ে ২০ মিনিট অপেক্ষা করে শুকিয়ে গেলে কুসুম গরম পানিতে ধুয়ে ফেলুন উপকার পাবেন।

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত
এই পাতার আরো খবর
up-arrow