Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শুক্রবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২০ অক্টোবর, ২০১৬ ২১:৩১
কানে দোলে দুল
কানে দোলে দুল
মডেল : তরী ইসলাম, পোশাক ও এক্সেসরিজ : ইনফিনিটি - মেকওভার : ওমেন্স ওয়ার্ল্ড, ছবি : এক্সপোজ

গয়না ছাড়া নারীর সাজ অসম্পূর্ণ। এমন অসম্পূর্ণ সাজ নিয়ে নারীরা কেন স্বস্তিতে থাকবেন! আর গয়না বলতেই তো শৌখিন মেয়েরা সবার আগে হাতে তুলে নেন কানের দুল। তাই তো কানের দুলের অগ্রাধিকার সব সময়। নিত্যদিনের সাজ-পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে এক জোড়া কানের বাহারি দুল আপনার সাজ তো পূর্ণ করবেই, সঙ্গে আপনার ব্যক্তিত্ব ফুটিয়ে তুলবে অনায়াসেই।  তাই সাজগোজে কানের দুল বাদ দেওয়া চলে না।

 

মোর প্রিয়া হবে এসো রানী, দেব খোঁপায় তারার ফুল। কর্ণে দোলাব তৃতীয়া তিথির চৈতি চাঁদের দুল...

প্রিয়াকে মনোহারি রূপে দেখার আকুতি সব প্রেমিকের।  তাই তার সাজগোজে কোনো উপকরণ বাদ দেওয়া চলে না। ঝিলিক ছড়ানো একজোড়া দুল তেমনি এক প্রয়োজনীয় উপকরণ।

 

 

এদিকে আবার গয়না ছাড়া নারীর সাজ অসম্পূর্ণ। কানের দুল ছাড়া তেমনি গয়না অসম্পূর্ণ। এমন অসম্পূর্ণ সাজ নিয়ে নারীরা কেন স্বস্তিতে থাকবেন? আর গয়না বলতেই মেয়েরা সবার আগে হাতে তুলে নেন কানের দুল। তাই তো কানের দুলের অগ্রাধিকার সব সময়।

সাদামাটা পোশাকের সঙ্গে শুধু এক জোড়া নজরকাড়া দুলে আপনি হয়ে উঠতে পারেন অসাধারণ। তার আগে মনে রাখতে হবে, গলায় ভারী গয়না পরলে দুল হবে হালকা, আর গলার গয়না হালকা হলে দুল হবে ভারী।

একসময় গয়নার বাজারে শুধু সোনা-রূপার চল থাকলেও এখন বিভিন্ন উপাদান দিয়ে তৈরি হচ্ছে কানের দুল। এর মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন ধরনের হালকা ম্যাটেরিয়াল, পাথর, মুক্তা, পালক, পুঁতি ইত্যাদি। ফ্যাশনপ্রিয় নারীরা এমন হাজার দুলের ভিড় থেকে বেছে নিচ্ছে নিজের সাজের সঙ্গে মানানসই একজোড়া দুল। প্রতিদিনের সাজে পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে কানের দুল কেমন হবে তা অনেকখানি নির্ভর করে আপনার চেহারার আকৃতির ওপর। লম্বাটে মুখের সঙ্গে লম্বাটে দুলে মুখ আরও লম্বা দেখাবে। আবার গোলমুখের কেউ গোলাকৃতির দুল পরলে তার মুখ আরও গোল মনে হবে। লম্বাটে মুখের অধিকারী টপ, ছোট ঝুমকা কিংবা রিং পরলে ভালো দেখাবে। যাদের মুখ চৌকো চৌকোনা রিং, পাশা বা বেশি ছড়ানো দুল তাদের না পরাই ভালো। টপ, ছোট গোল, ঝুলন্ত খাড়া দুল তারা বেছে নিতে পারেন স্বাচ্ছন্দ্যে। যাদের মুখ গোলাকৃতির তারা ঝুলন্ত, চৌকোনা দুলে নিজেকে ফুটিয়ে তুলবেন ভালো। আর যাদের মুখের আকৃতি পানপাতার মতো তাদের যে কোনো আকৃতির দুলেই ভালো লাগবে। গলা ও ঘাড়ের আকৃতিও দুল নির্বাচনে গুরুত্বপূর্ণ। গলা লম্বা হলে লম্বা যে কোনো দুল, এমনকি ঝুমকায়ও আপনাকে ভালো লাগবে। তবে আপনার গলা ছোট হলে একটু ছোট দুলই নির্বাচন করা ভালো। চুলের সাজের সঙ্গে কানের দুল মেলানো বেশ গুরুত্বপূর্ণ। আপনার চুল যদি কোঁকড়া হয়, তাহলে কানের দুলটিও হোক না একটু আলাদা। পাথর, মুক্তা, হীরা কিংবা একটু ঝিলিক তোলা রুপার দুল আপনাকে এনে দেবে সৌন্দর্যের অভিজাত মাত্রা। আর আপনি যদি চুলে খোঁপা করেন, তাহলে মানাবে রুপার বা সোনার একজোড়া ঝুমকা। চুল সোজা হলে রিং এ আপনাকে মানাবে ভালো। রিংয়ের আকৃতিটা বাছাই করে নেবেন মুখের আকৃতির সঙ্গে মিলিয়ে।

অনেকেই কানের দুলের রং বাছাই করতে গিয়ে পড়ে যান বিড়ম্বনায়।

ফ্যাশন ট্রেন্ড এখন শুধু আর পোশাকে সীমাবদ্ধ নেই। বিশেষ করে কানের দুলের মতো গহনায় ট্রেন্ডটাও এখন নানা রকম। শর্ট কামিজ, ফতুয়া, স্কার্ট এমনকি শাড়ির সঙ্গেও মেয়েরা জারকান, রুমি এবং নরমাল পাথরের ছোট কানের দুল বেশি পরছেন। এ ছাড়া বিশেষ অনুষ্ঠান যেমন বিয়ে, জমকালো পার্টি বা অফিসের কোনো ফরমাল পার্টিতে সোনা, রুপা, হীরা, রুবি, মুক্তার তৈরি ছোট কিন্তু আকর্ষণীয় কানের দুলের ব্যবহারটা এখন অনেক বেশি। বাজার ঘুরলে খুব সহজেই মিলে যেতে পারে এ ধরনের দুল। পাশাপাশি যারা অনেক বেশি ক্যাজুয়াল থাকতে পছন্দ করেন তারা বেছে নিতে পারেন পিতল, কপার, অক্সিডাইজ, বাঁশ, নারিকেলের আইচা, ফিতা, চট, কাপড়, লেস, কাঠ, পাটকাঠি, মাটি, গ্লাস, সিরামিক বিভিন্ন জিনিসের তৈরি কানের দুল। মাঝে বেশ কিছু দিন বড় আকারের কানের দুলের চাহিদা থাকলেও এখন সেই ট্রেন্ড থেকে সরে এসেছে অনেকেই। যদিও ফ্যাশন প্রতিনিয়তই পরিবর্তন হয়। ঘুরেফিরে পুরনো স্টাইলগুলোই আবার চলে আসে নিজস্ব ভঙ্গিতে। যেমন কিছু দিন আগেও পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে পরার ফ্যাশন ছিল। এখন তার পাশাপাশি চলছে কনট্রাস্ট বা বৈপরীত্যের চল। টিপ, ওড়নার পাড়, শাড়ির আঁচল, টপসের লেস, জিন্স বা লেগিংসের রঙ অথবা জুতার ফিতা যে কোনো কিছুর সঙ্গেই মিলিয়ে দুল পরা যায়। এখন যেমনটা করছেন ফ্যাশনসচেতন তরুণীরা। টপস, সালোয়ার-কামিজ, শাড়ি কিংবা ওয়েস্টার্ন আউটফিটের সঙ্গে মিলিয়ে বেছে নিচ্ছে কানের দুল। তবে মনে রাখতে হবে যাই পরুন না কেন তার প্রকাশ ভঙ্গিমায় থাকা চাই স্বকীয়তা।

সুতি, তাঁতের শাড়ির সঙ্গে কাঠ, পিতল, কাঁসা, মাটি, পুঁতি বা শোলার দুল মানাবে। হাতে বোনা কাপড়ের দুলও মানিয়ে যায় বেশ। ঝলমলে বুননের শাড়ির সঙ্গে মিলবে ধাতু ও পাথরের দুল। করপোরেট পোশাকের সঙ্গে অবশ্যই টপ ভালো লাগে।

ব্যক্তিত্বকে ফুটিয়ে তুলতে বেছে নিতে পারেন যেমন দুল...

>> যে কোনো পার্টিতে পরিহিত পোশাকটি সাদামাটা হলে পোশাকের সঙ্গে রং মেলানো জমকালো দুল বেছে নিন। সাজে জমকালো ভাব আসবে।

>> ঝলমলে কোনো দুল আপনার খুব পছন্দ হয়েছে। কোথাও যেতে সেটিই পরা চাই। ঠিক এই সময় আপনার মেকআপটি হবে অবশ্যই হালকা।

>> ভারি মেকআপের সঙ্গে ভারী দুল পরলে আপনার সৌন্দর্যকে ঢেকে দেবে।

>> মেকআপের সঙ্গে সঙ্গে চুলের সাজটিও যদি বিশেষ হয় তবে বেছে নিতে পারেন হীরা, মুক্তা বা ঝকমকে পাথরের ছোট কোনো দুল; যা আপনার সাজে ছড়িয়ে দেবে স্নিগ্ধতার পরশ।

>> কানের দুল কিনতে গেলে চলমান ফ্যাশনকেই প্রাধান্য দিন। দরদাম যাই হোক না কেন, দুলে ফুটে ওঠা চাই আপনার ফ্যাশন সচেতনতা।

>> কানের দুল কেনার সময় কানে পরে যাচাই করে নিতে হবে। দুল যতই মনকাড়া হোক নিজের সঙ্গে মানানোটাকে প্রাধান্য দিতে হবে আগে।

কোথায় পাবেন : একটু কম দামে পছন্দের কানের দুল কিনতে চাইলে যেতে পারেন নিউমার্কেট কিংবা গাউছিয়া মার্কেট এলাকায়। এ ছাড়া বায়তুল মোকাররম, বসুন্ধরা সিটি মার্কেট, ইস্টার্ন প্লাজা, সীমান্ত স্কয়ারসহ রাজধানীর ছোট-বড় প্রায় সব মার্কেটেই পাবেন ট্রেন্ডি কানের দুল।  তবে মানসম্পন্ন ভালো গহনা কিনতে হলে অবশ্যই বিশ্বস্ত দোকানে যাওয়া ভালো।  আর কানের দুল কেনার কাজটি আরও সহজ করে দিয়েছে দেশীয় ফ্যাশন হাউসগুলো। বর্তমানে প্রায় সব ফ্যাশন হাউসেই পাওয়া যায় এসব কানের দুল।

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত
এই পাতার আরো খবর
up-arrow