Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : শুক্রবার, ৬ জানুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ৫ জানুয়ারি, ২০১৭ ২২:১৫
কোন শ্যাম্পু ব্যবহার করবেন
উম্মে হানি
কোন শ্যাম্পু ব্যবহার করবেন
মডেল: রিয়া ছবি: ফ্রাইডে

চুলের বেশির ভাগ যত্ন কিন্তু নির্ভর করে শ্যাম্পুর ওপর। কারণ চুল ভালো করে ধুলে তবেই চুল ভালো থাকে। কিন্তু শ্যাম্পু যদি ভালো মানের না হয় তবে মাথায় হাত! চুলের খুশকি দূর করতে, শুষ্কতা ও চুল পড়া কমানোর জন্য  কত রকমের শ্যাম্পু! রইল চুলের যত্নে শ্যাম্পুর বৃত্তান্ত।

 

বাজারে কত রকমের শ্যাম্পু পাওয়া যায়। কিন্তু সব শ্যাম্পু আর ভালো মানের নয়। কোন শ্যাম্পুর কী কাজ, তা ভালো করে রপ্ত করতে পারলেই বুঝতে পারবেন, কোন শ্যাম্পু আপনার প্রয়োজন।

 

হাইড্রেটিং বা ময়েশ্চারাইজীয় শ্যাম্পু

এ ধরনের শ্যাম্পু চুলে ময়েশ্চার অ্যাড করে। ফলে চুল হয় অনেক উজ্জ্বল ও মসৃণ। তাই যাদের চুল খুব ড্রাই আর উষ্কখুষ্ক তারা মুশকিল আসানের জন্য ময়েশ্চারাইজীয় শ্যাম্পু ব্যবহার করতে পারেন।

 

ভলিউমাইজিং শ্যাম্পু

এ শ্যাম্পু ব্যবহারে চুল ফুলে উঠে দ্বিগুণ। তাই যাদের মাথায় চুল কম তারা এই শ্যাম্পু ট্রাই করতে পারেন। যাদের চুল ড্রাই তারা ভুলেও এই শ্যাম্পু ব্যবহার করবেন না। উল্টো ক্ষতি হতে পারে। সাধারণত খুব ভালো চুলে বা অয়েলি হেয়ারে এই শ্যাম্পু ব্যবহার করলে সুফল পাবেন।

 

স্ট্রেংদেনিং শ্যাম্পু

এ ধরনের শ্যাম্পুতে অতিরিক্ত প্রোটিন থাকায় এই শ্যাম্পু চুলকে পুষ্টি জোগায়। তাই চুলের ডগা ফাটলে, রং করালে বা অত্যধিক চুল পড়ার সমস্যা থাকলে এই শ্যাম্পু ভালো কাজে দেবে।

 

ব্যালান্সিং শ্যাম্পু

এ শ্যাম্পু সব ধরনের চুলে মানানসই। কারণ এই শ্যাম্পু যেমন চুল ড্রাই করে দেয় না, তেমনই চুলে অতিরিক্ত ময়েশ্চারও অ্যাড করে না। ফলে চুল যেমন, তেমনই থাকে। তাই চুলে কোনো সমস্যা না থাকলে এই শ্যাম্পু উত্তম।

স্মুদনিং বা স্ট্রেটনিং শ্যাম্পু

এ শ্যাম্পুতে ময়েশ্চারাইজীয় বা স্মুদনিং এজেন্ট বেশি থাকায় চুলের কিউটিকল সিল করে দেয়, ফলে চুল অপেক্ষাকৃত স্ট্রেট বা স্মুদ দেখায়। তাছাড়া এই শ্যাম্পু চুলে হিট দেওয়ার ক্ষতিকর প্রভাব থেকেও রক্ষা করে। তবে জাদের অয়েলি হেয়ার তারা ভুলেও এ শ্যাম্পু ব্যবহার করবেন না।

 

কার্লি হেয়ার শ্যাম্পু

এ ধরনের শ্যাম্পু চুলের শুষ্কতা নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে। ফলে কোঁকড়া চুলে পুষ্টি জোগায় আর চুল রাখে উজ্জ্বল আর মসৃণ। তবে এই শ্যাম্পু শুধু কার্লি হেয়ার হলেও ব্যবহার করুন।

 

আপনার চুলের ধরন বুঝে শ্যাম্পু ব্যবহার করুন। প্রয়োজনে হেয়ার এক্সপার্টের সাহায্য নিন। শ্যাম্পু কেনার আগে শপের হেয়ার ট্রেইনারদের কাছে জেনে নিন কোন শ্যাম্পুর গুণ কী।

 

শীতে শ্যাম্পু করার টিপ্স

প্রথমে পুরো কুসুম গরম পানি দিয়ে চুল ভালো করে ভিজিয়ে নিন। কুসুম গরম পানি কিউটিকল ওপেন করতে সাহায্য করে। ফলে মাথায় জমে থাকা আলগা ময়লা খুব সহজেই বেরিয়ে আসে। শ্যাম্পু করার পর অবশ্যই ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে নেবেন।

শ্যাম্পু করার শুরুতে একটি পাত্রে সামান্য পানি নিয়ে তাতে শ্যাম্পু নিয়ে গুলে নিন। এবার সেই শ্যাম্পুর মিশ্রণ ভালো করে মাথায় লাগিয়ে আঙ্গুলের ডগা দিয়ে স্ক্যাল্পে চাপ দিয়ে হালকা ম্যাসাজ করে নিন। এতে মাথায় রক্ত সঞ্চালন ভালো হবে, সঙ্গে ময়লাও পরিষ্কার হয়ে যাবে। স্ক্যাল্পে ম্যাসাজ হয়ে গেলে পুরো চুলে ভালো করে হাত দিয়ে কচলে ময়লা পরিষ্কার করে নিন। এবার ঠাণ্ডা পানি দিয়ে চুল ধুয়ে নিন। শ্যাম্পু করা শেষে ভালো করে পুরো চুলে কন্ডিশনার লাগাতে হবে।

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত
এই পাতার আরো খবর
up-arrow