Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : শুক্রবার, ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২২:০৮
ভালোবাসায় নেই মানা...
ভালোবাসায় নেই মানা...

আমাদের সংস্কৃতিতে উৎসবের বেশ বড়সড় একটি জায়গা দখল করেছে ভালোবাসা দিবস। এই দিনে সবারই অনেক পরিকল্পনা থাকে। তাই স্বাস্থ্যের দিকটিও খেয়াল রাখতে হবে।

আনন্দ উপভোগের অন্যতম শর্ত সুস্থ থাকা। সামান্য অসচেতনতা, অনভ্যাসে বেশি খেয়ে ফেলা, বেশি ঘোরাঘুরি, সবই যে কাউকে সহজেই অসুস্থ করে দেয়। তাই বলে সুস্থ থাকতে সবকিছু থেকে তো আর নিজেকে বঞ্চিত করা যায় না। এই ধরুন ভালোবাসা দিবসের কেক। দিনটি অনেকেই কেক কেটে উদযাপন করে থাকেন। ক্যালরির চিন্তা করে কেকের ক্রিমের অংশটা বাদ দিয়ে খেতে পারেন। আনুষঙ্গিক খাবার হিসেবে ফল খান।

 

চকলেট

ভালোবাসা দিবসে পছন্দের মানুষকে মজার সব চকলেট উপহার দিতেই হবে। দেখা গেল সেই মানুষটি ডায়েট করছেন। তবে তার জন্য পরামর্শ হলো, বিস্কুট বা বাদামযুক্ত চকলেটগুলোতে ক্যালরি একটু কম থাকে। ডার্ক চকলেট স্বাস্থ্যের জন্য অনেক ভালো। এটা খেতে পারেন সামান্য পরিমাণে।

 

আইসক্রিম

ভালোবাসা দিবসে মজাদার আইসক্রিম উপহার পাওয়াটা অনেকের কাছে আকাঙ্ক্ষার। কিন্তু মোটা হওয়া ঠেকাতে আইসক্রিমের ওপরে চকলেট, চিপস বা সিরাপ এড়িয়ে যাওয়া ভালো। আইসক্রিমের সঙ্গে ফল মিশিয়ে খেলে তা অনেক স্বাস্থ্যকর হবে। কোন বা কাপ আইসক্রিমের ক্ষেত্রে কাপই ভালো। এতে বাড়তি ক্যালোরি এড়ানো যায়।

 

ডেজার্ট

ভালোবাসা দিবস উদযাপনে মিষ্টির রয়েছে এক বিরাট ভূমিকা। তবে ক্যালোরি সচেতনরা ফ্রুট কাস্টার্ড, পুডিং, দই, মিক্সড ফুড উইথ আইসক্রিম ইত্যাদি উপভোগ করতে পারেন।

 

স্বাস্থ্যকর উপহার

প্রিয়জনকে এই দিনে অনেকেই চকলেট দিয়ে থাকেন। কিন্তু প্রিয়জনের স্বাস্থ্যের কথা বিবেচনা করে চকলেটের বদলে ফলের ঝুড়ি দিতে পারেন। আর কেকের বদলে লো ফ্যাটের বিস্কুট দিতে পারেন।

 

রঙিন ফল

চেরি, স্ট্রবেরি, বেদানা, কালো আঙুর ইত্যাদি ভিটামিন এবং মিনারেলের খুব ভালো উৎস। এ ছাড়া এই খাবারগুলোতে রয়েছে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট। এই দিনে উপহার হিসেবে রঙিন এসব ফলও দিতে পারেন।

 

ফাস্টফুড

ফাস্টফুড যদি খেতেই হয় চিকেন বার্গার অর্ডার করা যেতে পারে। আবার সবজির স্যান্ডউইচ হতে পারে খুব ভালো অপশন। চিকেন ফ্রাইয়ের চেয়ে গ্রিল ভালো হবে। আর ফ্রেঞ্চ ফ্রাই এড়িয়ে যাওয়াই ভালো। এ ক্ষেত্রে বেকড পটেটো খাওয়া যেতে পারে।

 

তরল প্রীতি

এই দিনে বাইরে ঘোরাঘুরিতে ক্লান্ত হতে পারেন। কোল্ড ড্রিংকসের দিকে হাত না বাড়িয়ে ডাবের পানি, ফ্রেশ ফ্রুট জুস বা ফ্রুট সালাদ হতে পারে আদর্শ। তবে যে খাবারই খান তরল প্রীতি দেখানো বেশি ভালো হবে। এক্ষেত্রে ভেজিটেবল স্যুপও দারুণ উপযোগী।

 

পরিমাণে অল্প

ভালোবাসা দিবসে নানা ধরনের পার্টি থাকতেই পারে। সেখানে নিতান্তই যদি ব্যুফেতে যোগ দিতে হয় তবে খাবারের পরিমাণ স্বল্প রাখাই ভালো। তেলচর্বি না খেয়ে সালাদ, মাছের মেনু, সবজি খেতে পারেন। বেশি তেলে রান্না খাবারের ঝোলও এড়িয়ে যেতে হবে। কোল্ড ড্রিংকসের পরিবর্তে লেমনড বা চিনি ছাড়া ফলের রস খেলে স্বাস্থ্যসম্মত হবে।

এই পাতার আরো খবর
সর্বাধিক পঠিত
up-arrow