Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ২০ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, রবিবার, ২০ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : শুক্রবার, ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:৪৬
ঠোঁটের পরিচর্যা
নূরজাহান জেবিন
ঠোঁটের পরিচর্যা
মডেল : শ্রাবন্তী রহমান ছবি : ফ্রাইডে

ঠোঁট ফাটা শীতের সাধারণ সমস্যা। এ সময় শুষ্ক আবহাওয়ায় ঠোঁট তার কোমলতা হারায়, ঠোঁট কালো হয়ে যায়।

রইল পরামর্শ।

 

শীতেই নয়, গরমের সময়ও কড়া রোদে দীর্ঘক্ষণ থাকা, পানিশূন্যতা, গভীর রাত জাগা এমনকি পুষ্টিকর খাবারের অভাবেও ঠোঁট মসৃণতা হারায়, কালো আবরণ পড়ে, ঠোঁটের চামড়া উঠে শুষ্ক দেখায়। আবার ধূমপান ও খুব বেশি চা-কফি পানেও ঠোঁট কালো হয়ে যায়। তাছাড়া মাত্রাতিরিক্ত প্রসাধনী ব্যবহারেও ঠোঁটের ত্বকে অ্যাকজিমা দেখা দেয় এবং কালো হতে থাকে।

 

ঠোঁট দীর্ঘক্ষণ শুষ্ক থাকলে অনেকেই বারবার জিব দিয়ে ঠোঁট ভেজান। এমন অভ্যাস ঠোঁটকে দ্রুত কালো করে দেয়। এমনকি কিছু ওষুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায়ও ঠোঁট কালো হয়।

 

ঠোঁট সুন্দর ও মোলায়েম রাখতে কিছু পরামর্শ না মানলেই নয়। শীতের এই সময়ে চাই ঠোঁটের বাড়তি যত্ন। নিয়মিত পুষ্টিকর খাবার গ্রহণ, প্রচুর পরিমাণে পানি পান মাস্ট। ঠোঁট শুষ্ক হলে লিপ বাম ব্যবহার করুন। ঠোঁটের নরম চামড়া কামড়ানো থেকে বিরত থাকুন। বাজারের সব লিপবাম কিংবা লিপ জেল কিন্তু ভালো নয়। লিপবাম কেনার আগে দেখে নিন এসপিএফ ১৫ বা ২০ যুক্ত লিপবাম কি না। মাঝে মাঝে ঠোঁটের যত্নে প্যাক ব্যবহার করতে পারেন। গোলাপের পাপড়ি বেটে সঙ্গে মধু বা চিনি মিশিয়ে পাতলা কাপড় দিয়ে হালকা করে ঘষুন। ঠোঁটের মরা কোষ উঠে ঠোঁট উজ্জ্বল দেখাবে। সপ্তাহে অন্তত একদিন মধু, লেবুর রস ও সামান্য কাঁচা হলুদ মিশিয়ে একটি প্যাক ঠোঁটে লাগান। ১৫ থেকে ২০ মিনিট রেখে ভালো করে ধুয়ে ফেলুন। ধূমপান, ধুলাবালু, রোদের তাপ এড়িয়ে চলুন। রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে টুথপেস্ট ঠোঁটে ঘষলে কালচে দাগ কমে আসবে। প্রতিদিন ২০ মিনিট মধু বা দুধের সর লাগিয়ে রাখলেও কালচে ভাব কমবে।   ঠোঁটের দুই কোনা কালো হয়ে গেলে চালের আটা পানিতে ভিজিয়ে সেই অংশে ঘষুন। এটি আপনার ঠোঁটে স্ক্রাবের কাজ করবে।

এই পাতার আরো খবর
সর্বাধিক পঠিত
up-arrow