Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, বুধবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : শুক্রবার, ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:৫০
স্ট্রেচিং কেন?
স্ট্রেচিং কেন?

শীতে আমরা সব জবুথবু হয়ে যাই, ফ্লেক্সিবিলিটি অর্থাৎ নমনীয়তার অভাব বোধ করি শরীরে। আর তা থেকেই নানা রকম সমস্যায় ভুগতে হয় আমাদের।

সারাক্ষণ দাঁড়িয়ে বা বসে কাজ, অতিরিক্ত হাঁটাহাঁটি, প্রচুর পরিশ্রম কিংবা মানসিক চাপ যে ধরনের পেশার সঙ্গেই আপনি যুক্ত থাকুন না কেন, ন্যূনতম নমনীয়তা প্রত্যেকেরই চাই। একটু চেষ্টা করলেই সেটা সম্ভব। যেমন ধরুন, নিয়মিত নির্দিষ্ট কিছু স্ট্রেচিং এক্সারসাইজ করলেই শরীরটা অনেকটা নমনীয় থাকবে।

 

স্ট্রেচিং কেন জরুরি :

আড়ষ্ট মাংসপেশি সচল রাখতে আর মাংসপেশিকে রোজকার জীবনযাত্রার জন্য প্রস্তুত রাখতে স্ট্রেচিং মোক্ষম দাওয়াই। চটজলদি মাংসপেশিতে রক্তের জোগান বাড়ায়। দ্রুত আলস্য ও অবসাদ দূর করে। হঠাৎ হঠাৎ মাংসপেশিতে টান ধরে যাওয়ার প্রবণতা কমাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। শিরদাঁড়ার মাংসপেশিকে নমনীয় রেখে কার্টিলেজের ডিস্কগুলোর ওপর চাপ কমায়। ফলে কোমর আর ঘাড়ের আড়ষ্টতা প্রতিরোধ করা যায়।

স্ট্রেচিংয়ের দ্বারা প্রাকৃতিক ও সহজ উপায়ে ‘এনডরফিন্স’ ও ‘এনকেফ্যালিন্স’ নির্গত হয় মস্তিষ্ক থেকে, ফলে সারা দিন শরীর ও মন তাজা থাকে। ঠিক মাত্রায় স্ট্রেচিং উচ্চ রক্তচাপ কমাতে, পরোক্ষভাবে হলেও, সাহায্য করে।

স্ট্রেচিং কীভাবে করবেন?

হাঁটা, হালকা জগিং, ক্রসট্রেনার, ট্রেডমিল, সিঁড়ি ওঠানামা বা স্কিপিং ব্যায়ামগুলো শরীরে রক্ত সঞ্চালন বাড়ায়। সঙ্গে মাংসপেশিতে ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়ামের পরিমাণ ঠিক রাখতে সাহায্য করে।

 

স্ট্রেচিংয়ের সাধারণ নিয়ম :

শ্বাস বন্ধ রেখে কোনো স্ট্রেচিং নয়। কোনো ঝাঁকুনি বা ঝটকা টানে স্ট্রেচিং চলবে না। শক্ত মাংসপেশিকে জোর করে স্ট্রেচ করাবেন না। শরীরে উভয় দিকের মাংসপেশিগুলোকে সমপরিমাণ স্ট্রেচ করুন। যে কোনো স্ট্রেচিং এক্সারসাইজ দশ সেকেন্ড ধরে শুরু করুন, পরে সময়টা ৩০ সেকেন্ড অবধি বাড়িয়ে দিন। শরীরের মাংসপেশির জন্য মোট ১৫ থেকে ২০ মিনিটের বেশি সময় লাগানো উচিত নয়। ট্রেইনারের পরামর্শে স্ট্রেচিং করুন। ছোট মাংসপেশির জন্য কম সময়ে আর বড় মাংসপেশিতে বেশি সময় টেনে ধরে রাখার চেষ্টা করুন। নিয়মিত স্ট্রেচ করলে এক একটা মাংসপেশির মোট এক বা দুবার স্ট্রেচ করাই যথেষ্ট। প্রথমে চোয়াল, ঘাড়, কাঁধ, বুক, হাত, পিঠ, কোমর, পেট, ঊরুর পেছন দিক, ঊরুর সামনের দিক, কাফ ও গোড়ালির মাংসপেশি ক্রমান্বয়ে স্ট্রেচ করুন। সময় কম থাকলে ঘাড়, কোমর ও পায়ের মাংসপেশির স্ট্রেচিং এক্সারসাইজ করুন। এক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞের তত্ত্বাবধানে অনুশীলন জরুরি। পরে শিখে গেলে, বাড়িতে অনুশীলনে বাধা নেই।

এই পাতার আরো খবর
সর্বাধিক পঠিত
up-arrow