Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২১:৪৫

গয়না পরুন বুঝেশুনে

উম্মে হানি

গয়না পরুন বুঝেশুনে
ছবি: ফ্রাইডে

ফ্যাশনে গয়না সর্বদাই ভিন্ন লুক নিয়ে আসে। আর গয়না পরতে ভালোবাসেন না এমন নারী পাওয়া দুষ্কর। তবে, অফিসে কী গয়না পরবেন তা নিয়ে অনেকেই দ্বিধাদ্বন্দ্বে ভোগেন। আবার এও ঠিক যে, অফিসের সাজগোজ বুঝেশুনেই করতে হয়। ভারী অলঙ্কারে অফিস বেমানান। সঠিক জুয়েলারি বেছে নিতে পারলে অফিসে পরতেও বাধা নেই।

 

অফিসে একটু সোনা বা হীরের গয়না আপনার লুকে এনে দেবে এলিগ্যান্স। এখন তো সোনার গয়নার নামিদামি ব্র্যান্ডগুলো আলাদা করে অফিস কালেকশন নিয়ে এসেছে। সোনা বা হীরের হালকা ডিজাইনের নানা ধরনের পেনডেন্ট বেছে নিতে পারেন তার সঙ্গে ম্যাচিং ইয়ার রিং। শাড়ি বা প্যান্ট স্যুট, সবার সঙ্গেই পরা যেতে পারে। তাই বলে কি ভারী গয়না অফিসে একেবারেই পরবেন না।

 

তা ছাড়া প্রতিদিন অফিস করার জন্য গলায় পেনডেন্ট, ছোট চেইন লকেট, টেরাকোটার কাজের গয়নাও ট্রাই করতে পারেন। শাড়ি, সালোয়ার-কামিজ, স্যুট-টাই যে কোনো পোশাকেই মানানসই এসব গয়না। সঙ্গে হাতের দু-একটি রিংও পরতে পারেন। যারা পায়েল পরতে ভালোবাসেন তারা এক পায়ে নূপুরও পরতে পারেন। তবে, পায়েল বেশি মানানসই স্কার্টের সঙ্গে।

 

পায়ে মেহেদি লাগিয়ে পরতে পারেন রিং। নাকফুল ও নথের আবেদন তো সব সময়ই আলাদা। তবে অফিসের সাজে চিকন রিং বা ছোট্ট পাথরের নাকফুল বা নথ পরতে পারেন।

 

অফিসের সাজে মুক্তার আবেদন সর্বদাই আলাদা। কানে মুক্তার ছোট টপ বা হাতে একটি ব্রেসলেট ট্রাই করতে পারেন। গলায় মুক্তার মালা। সাদা, সবুজ, সোনালি ও গোলাপি রঙের মুক্তা সব পোশাকেই মানিয়ে যায়। শিপন ও ক্রেপ শাড়ির সঙ্গে মুক্তার গয়না ভালো মানায়।

 

অফিসে পার্টি তো এরকম কোনো অনুষ্ঠানে চোকার গর্জাস লুকের জন্য দারুণ অপশন। অফিসের অনুষ্ঠানে ভারী গয়না একেবারেই নয়। শাড়ি, সালোয়ার-কামিজ বা ফরমাল শার্ট-প্যান্টের সঙ্গে ছোট হালকা গয়নাই মানানসই। অফিসে লম্বা ঝোলা দুল পরতে পারেন। তবে ডিজাইন যেন খুব জমকালো না হয়। মিনিম্যালিস্ট ডিজাইনের কোনো দুল বাছুন। ফরম্যাল স্কার্টের সঙ্গে লম্বা দুল খুব ভালো লাগবে। আর এথনিক পোশাকের সঙ্গে যে ভালো লাগবে, তা তো বলার অপেক্ষায়ই রাখে না। মুক্তা, হীরা বা পাথরের ছোট কানের টপ পরতে পারেন। গলায় চিকন চেইনের সঙ্গে ছোট্ট লকেট বা পেনডেন্ট পরতে পারেন। অফিসে ব্রেসলেট বা নানা ধরনের আংটিও পরতে পারেন। স্মার্ট লুক আসবে। আবার অতিরিক্ত গয়না পরেছেন এমনও মনে হবে না এথনিক পোশাক পরলে রুপার গয়না পরতে পারে না নাক ছাবি নিয়ে এক্সপেরিমেন্ট করতে পারেন। তবে আকারে যেন ছোট হয়। ওয়েস্টার্ন ফরম্যালের সঙ্গে স্টেটমেন্ট জুয়েলারি পরতে পারেন। গয়না পরুন বুঝেশুনে।

 

হালকা গয়নাগুলো সাধারণত সারা দিনই পরে থাকা হয়। ফলে ধুলাবালি, ঘাম তো লেগেই থাকে। তাই এসব গয়নার জন্য চাই বিশেষ যত্ন।


আপনার মন্তব্য