Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২১:৪৯
বিরানি খান ক্ষতি নেই!
ফ্রাইডে ডেস্ক

প্রতিটি মানুষের বেস্ট ফ্রেন্ড অবশ্যই নিজের শরীর। আপনি যদি আপনার শরীরকে কোনো দায়িত্ব দেন, জানবেন তা পূরণ হবেই।

শরীরের ওপর যদি আস্থা থাকে, তাহলে দেখবেন শরীরই ফ্যাটি খাবার খাওয়ার জন্য নিজেকে প্রস্তুত করে নেবে। শরীর যদি বুঝতে পারে যে আগামী কয়েক দিন আপনাকে বেশি খাবার, ফ্যাটি খাবার খেতে হবে তাহলে সে আরও বেশি পরিমাণে ডাইজেস্টিভ জুস, এনজাইম নিসৃত করবে। আর শুধু তাই নয়, পেট অনেক ভালোভাবে খাবার হজম করতে পারবে। তা হলে বুঝতেই পারছেন আপনার শরীর যদি তৈরি থাকে তাহলে আপনি বিরানি বা রসগোল্লা যাই খান না কেন ক্যালরির ভয় নেই। পরীক্ষার আগে যে রকম আমাদের তৈরি হতে হয়, ঠিক তেমনই শরীরকে আগাম পরিস্থিতি সম্পর্কে জানান দেওয়া জরুরি।

 

খাওয়াটা শুধু শারীরিক নয়, মানসিকও। আর তাই খাওয়ার সময় রিল্যাক্সড থাকাটা জরুরি। খাওয়ার সময় যদি ক্যালরির চিন্তা করেন তাহলে তা শরীরে লাগবেই। তাই, যাই খান না কেন শান্ত হয়ে খান। এতে খাবারের সব নিউট্রেয়েন্ট ভালো করে শরীরে প্রবেশ করে আর ফ্যাটে পরিবর্তন হয় না। এটাই তো ভালো থাকার মূল দাওয়াই। যদি একরাশ চিন্তা, দুঃখ, রাগ নিয়ে খেতে বসেন, তাহলে খাওয়াটাও উপভোগ করতে পারবেন না আবার খাবারের সব পুষ্টিগুণ ব্যবহূত হওয়ার সুযোগ পাবে না। খেতে হবে ভেবে দুশ্চিন্তা করলে শরীরের স্বাভাবিক মেটাবলিক প্রক্রিয়া ব্যাহত হয়। স্ট্রেসড থাকলে শরীরে কর্টিজল হরমোন নিসৃত হয়। ফলে ফ্যাট বার্ন হবে না। রেজাল্টটা বুঝতেই পারছেন, শরীরের ফ্যাট জমে যাবে। আসলে এটি অনেকটা রেকারিং ডিপোজিটের মতো। ফ্যাটের পরিমাণ বাড়তেই থাকবে। আর তা কমানোর জন্য তখন দুই গুণ ডায়েটিং আর এক্সারসাইজ করতে হবে। তাই খাওয়ার আগে চিন্তা-ভাবনা না করাই শ্রেয়। ক্যালরির চিন্তা করে খেতে গেলেই বিপত্তি। যখন যা খাবেন ভালোবেসে খান। শরীর-মনকে তৈরি রাখুন, দেখবেন ফিট থাকবেন।

এই পাতার আরো খবর
সর্বাধিক পঠিত
up-arrow