Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : শুক্রবার, ১০ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ৯ মার্চ, ২০১৭ ২২:০২
শীত পোশাক তুলেছেন তো!
তানিয়া জামান
শীত পোশাক  তুলেছেন তো!
মডেল : সিঁথি ছবি : ফ্রাইডে

শীত তো চলেই গেল। এবার শীত পোশাক গুছিয়ে নেওয়াটা জরুরি নয় কি! রইল শীত পোশাক গুছিয়ে নেওয়ার টিপস।

 

শীত মানে উল, পশমি অথবা মোটা কাপড়ের উষ্ণ পরশ। শীতের হাত থেকে বাঁচতে এসব কাপড়ই তখন আশ্রয়। তাই তো এ সময় নজরকাড়া ডিজাইন আর আরামদায়ক পোশাকগুলো থাকে আপনার কালেকশনে। অথচ শীত শেষ হলেই সেই কাপড়ের সঙ্গেই যেন আড়ি। সামনের বছর শীত আসা পর্যন্ত কাপড়গুলো থাকবে বাক্সবন্দী। বছরজুড়ে এভাবে থাকায় শীত পোশাক হারাতে পারে তার আপন সৌন্দর্য। পোকামাকড়ের হাত থেকে বাঁচিয়ে পোশাকগুলো জীবাণুমুক্ত করতে কিছু বিষয়ে গুরুত্ব দেওয়া প্রয়োজন। তাই জেনে নেওয়া যাক শীত পোশাকের সঠিক যত্ন নেওয়ার উপায়।

উলের জামাকাপড় বেশি ড্রাই ক্লিনিং না করাই ভালো।

এতে উল নষ্ট হয়ে যেতে পারে। ঠাণ্ডা পানিতে অল্প ডিটারজেন্ট দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

উলের জামা স্টোর করার সময় ভাঁজ না করে ঝুলিয়ে রাখা ভালো। এতে কুচকানো দাগ হবে না। ফলে ইস্ত্রি করার বাড়তি ঝামেলা থাকবে না।

জ্যাকেট বা কোট ঝুলিয়ে রাখার সময় কাঁধের অংশটি পলিথিন দিয়ে ঢেকে রাখুন। এতে কাপড়ে ধুলো জমবে না।

উলের জামাকাপড় ভিজে গেলে ছায়ায় শুকিয়ে নিন। কড়া রোদে বা গরম তাপে দিলে রং নষ্ট হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে।

ইস্ত্রি করার সময় সোয়েটার বা শাল উলটে নিন। স্টিম দিয়ে ইস্ত্রি করার চেষ্টা করুন। এর ওপর সুতির কাপড় বিছিয়ে নিলে কাপড় অনেক দিন ভালো থাকে।

শীতের কাপড় স্টোর করার সময় টিস্যু পেপার দিয়ে মুড়ে কোনো ঠাণ্ডা জায়গায় রাখুন যেন বাতাস চলাচল হয়।

শীতের কাপড় স্টোর করার সময় কিছু ন্যাপথলিন বল একটা পুরনো মোজায় ভরে আলমারিতে রাখুন, নিমপাতাও রাখতে পারেন। পোকামাকড়ের উপদ্রব থাকবে না।

শীতের কাপড় ধোয়ার জন্য কম ক্ষারযুক্ত সাবান, জেট পাউডার ও শ্যাম্পু ব্যবহার করুন।

লিনেন কাপড় ওয়াশিং মেশিনে না শুকিয়ে, রোদে শুকাতে দিন। কাপড়ে থাকা জীবাণু নষ্ট হয়ে যাবে।

লিনেনের জামাকাপড় স্টোর করার সময় রোল করে রাখুন। পরিষ্কার পুরনো কাপড় দিয়ে জড়িয়ে রাখুন।

পাতলা বা মোটা কাঁথাগুলো ডিটারজেন্টে ধুয়ে রোদে শুকিয়ে নিতে হবে। এতে জীবাণু মরে যায়। ছায়াযুক্ত স্থানে শুকালে জীবাণু থেকে যায়।

লেপের কাভারগুলো ভালোভাবে পরিষ্কার করুন। লেপটি এপিঠ ওপিঠ ভালোভাবে রোদে শুকাতে হবে। বছরের মাঝামাঝি সময়ে সব শীতকাপড় বের করে একবার রোদে দিলে ভালো থাকে। কোনো ছত্রাক থাকলে তাও মরে যায়। কাপড়ের স্থায়িত্ব বাড়ে।

এই পাতার আরো খবর
সর্বাধিক পঠিত
up-arrow