Bangladesh Pratidin

ফোকাস

  • সুন্দরবনের ৩ জলদস্যু বাহিনীর ৫৭ সদস্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে আত্মসমর্পণ করেছেন
প্রকাশ : শুক্রবার, ২০ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১৯ এপ্রিল, ২০১৮ ২১:৪৯
পা ফাটার সমাধান...
পায়ের সমস্যা শুধু শীতকালেই নয়, হতে পারে বছরের অন্য যেকোনো সময়। আর সমাধানে চাই একটু যত্ন...
মোহাম্মদ সুজন
পা ফাটার সমাধান...

পা ফাটা নিয়ে অস্বস্তিতে পড়েন অনেকেই। ফাটা পায়ে শুধুমাত্র সৌন্দর্যে কাঁটা, এমনটা নয়। এটি এক ধরনের শারীরিক সমস্যাও। শরীরের বাকি অঙ্গের মতো এরও প্রয়োজন পরিচর্যা।

 

সাধারণভাবে পায়ের ত্বকে অয়েল গ্ল্যান্ড থাকে না। ফলে পা শুকিয়ে যাওয়ার প্রবণতাও বেশি। সেটাই পা ফাটার প্রথম উৎস। তাই যত্ন নেওয়ার পাশাপাশি রোজ নিয়ম মেনে পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান করাটাও প্রয়োজন।

 

নিত্যদিনের পরিচর্যা

পা পরিষ্কার রাখার জন্য ঘরে মজুত জিনিসই যথেষ্ট। কুসুম গরম পানিতে সামান্য শ্যাম্পু বা মাইল্ড স্যোপ গুলে অন্তত ২০ মিনিট পা ডুবিয়ে রাখুন। এবার লুফা, স্ক্রাবার বা পিউমিস স্টোন দিয়ে ঘষে শক্ত হয়ে যাওয়া পায়ের চামড়া তুলে ফেলুন। পা শুকিয়ে নিয়ে হিল বাম বা ময়েশ্চারাইজার লাগান। এর ওপর লাগান পেট্রোলিয়াম জেলি। এতে ময়েশ্চারাইজার লক হয়ে যাবে। অর্থাৎ ঘষা লাগলে উঠে যাবে না। সবশেষে সুতির মোজা পরে বিছানায় এলিয়ে যান!

 

প্রয়োজনীয় টিপস...

► বাইরে থেকে বাসায় ফিরে অবশ্যই ভালোভাবে দুই পা পরিষ্কার করে নিবেন।

► গোসল করার সময় সাবান ও ব্রাশের সাহায্যে গোড়ালি পরিষ্কার করে নিতে পারেন।

► গোসল শেষে পা এবং গোড়ালিতে লোশন দিন।

► একটু সময় নিয়ে পায়ের যত্ন নিন। কুসুম গরম পানিতে এক টুকরা লেবু দিয়ে গোড়ালি ঘষে নিন। তারপর ঝামা পাথর দিয়ে গোড়ালিতে ঘষা দিন। এরপর স্ক্র্যাবিং করে পা ধুয়ে নিন। পা শুকানোর পর লোশন ব্যবহার করুন।

► অর্ধেক পাকা কলা মেখে নিয়ে এর সঙ্গে কয়েক ফোঁটা মধু মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণ পায়ের গোড়ালিতে লাগিয়ে প্লাস্টিক র‌্যাপার দিয়ে পা মুড়িয়ে রাখতে হবে ১০ মিনিট। তারপর এটি ধুয়ে ফেলে ঝামাপাথর দিয়ে ঘষে পায়ের গোড়ালি পরিষ্কার করে ফেলতে হবে। পা ধুয়ে নিয়ে শুকানোর পর লোশন লাগাতে হবে। এতে পা থাকবে নমনীয়।

► পায়ের তলার যেসব অংশ কোনো কারণে শক্ত হয়ে যায়, সেখানকার শক্ত চামড়া কাটার জন্য বিশেষ ধরনের ব্লেড কিনতে পাওয়া যায় বাজারে। বাসায় পেডিকিওর করার জন্য এটি ব্যবহার করতে পারেন। তাহলে পায়ের তলার শক্ত অংশগুলো সরিয়ে ফেলতে সুবিধা হবে।

► ভালো জুতা-স্যান্ডেল ব্যবহার করতে হবে, তা না হলে যাদের অনেক হাঁটতে হয়, তাদের পায়ের পাতার কোনো কোনো অংশ শক্ত হয়ে যেতে পারে।

► জুতা-স্যান্ডেল ব্যবহার করার জন্য বাজারে জেল প্যাড কিনতে পাওয়া যায়। চাইলে এগুলোও ব্যবহার করতে পারেন। একটি জেল প্যাড পায়ের পাতায় এবং আরেকটি পায়ের গোড়ালিতে ব্যবহার করতে পারেন।

► প্রতিদিন রাতে ঘুমানোর সময় পায়ে পেট্রোলিয়াম জেলি লাগাতে হবে, এতে পা কোমল থাকবে।

► যাদের গোড়ালি ফাটার সমস্যা আছে, তারা পানিতে একটু লবণ ও কিছুটা শ্যাম্পু মিশিয়ে নিয়ে সেই পানিতে পা ভিজিয়ে রাখুন ২০ মিনিট। পা ভালোভাবে ধুয়ে মুছে ফেলুন। এরপর পেট্রোলিয়াম জেলি ও গ্লিসারিন মিশিয়ে পা এবং গোড়ালিতে লাগিয়ে নিন।

► যাদের অতিরিক্ত পা ফাটে তারা প্রতি দুই সপ্তাহ অন্তর একবার পার্লারে গিয়ে পেডিকিওর করাতে পারেন। উপকার পাবেন।

► প্রতিদিন রাতে ঘুমানোর আগে পা ও গোড়ালিতে অলিভ অয়েল ম্যাসাজ করতে পারেন।

এই পাতার আরো খবর
সর্বাধিক পঠিত
up-arrow