Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : শুক্রবার, ২৭ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ২৬ এপ্রিল, ২০১৮ ২১:৪১
আমিষ না নিরামিষ!
ফ্রাইডে ডেস্ক

ফলমূলে রয়েছে নানা প্রাকৃতিক শর্করা, যা শক্তিবর্ধক। সমীক্ষায় দেখা গেছে, শরীরে রক্ত সঞ্চালন বাড়ায় ফল। নিরামিষ খেলে ত্বক কোমল থাকে। নিরামিষ যারা খান, তাদের খাদ্য তালিকায় ফল বেশি থাকে। ফলে থাকে প্রচুর পানি যা শরীরকে কোমল করে।

 

অন্যদিকে মাংসে থাকে ফ্যাট, যা ত্বককে করে তোলে তৈলাক্ত। ‘হাই ক্যালোরি ডায়েট’ কোলেস্টেরল বাড়ায়। এর ফলে, ক্যান্সার ও ডায়াবেটিসের মতো মরণব্যাধি হতে পারে। অন্যদিকে, নিরামিষ খাবারে থাকে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ও খনিজ পদার্থ, যা শরীর ও মনকে সুস্থ রাখে। যারা নিরামিষ খান, তারা সাধারণত পশুপ্রেমী হন। তাদের মনটাও সুন্দর হয়। ফল আর শাকসবজি খেলে শরীর থেকে বেশি করে ‘সেরোটোনিন’ হরমোন নিঃসরণ হয়। এর ফলে, মন খুশিতে ভরপুর থাকে।

 

►   চিকেন বা মাটন এমনিতেই ভরপুর পুষ্টিগুণে ভরা। এর চেয়েও বেশি পুষ্টিগুণে ভরা আমন্ড। এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন। এ কারণেই এটাকে নিউট্রিশিয়ানরা সুপারফুড নাম দেন। একটি আমন্ডে ৩.৭ মিলিগ্রাম লোহা, ১২ গ্রাম তন্ত, ২৬৪ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম রয়েছে যা চিকেন বা মাটনের চেয়ে বেশি।

►  প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন আর নানা পুষ্টিগুণে ভরপুর সয়াবিন। ১ কাপ চিকেনে ৪৩.৪৩ গ্রাম প্রোটিন থাকে। আর ১ কাপ কাঁচা সয়াবিনে ৬৮ গ্রাম প্রোটিন রয়েছে। সুতরাং বোঝাই যাচ্ছে কোন খাদ্য আমাদের শরীরে বেশি উপকারী?

►  এখন কুমড়োর সময়। চিকেন বা মাটনের তুলনায় কুমড়ো বীজের পুষ্টিমূল্য অনেক বেশি। ১ কাপ কুমড়ো বীজে ১৮ গ্রাম তন্ত রয়েছে এক পিস চিকেনেও থাকে না। ফলে  নিরামিষভোজীরা কুমড়ো বীজ দিয়ে নানা রেসিপি ট্রাই করতে পারেন।

►  নিরামিষভোজীরা মাঝে মধ্যেই আলু পোস্ত কিংবা ঝিঙ্গে পোস্ত রান্না করে থাকেন। ১ কাপ পোস্তে ১৯.৫ গ্রাম ডায়েটারি ফাইবার রয়েছে যা কিনা মাটনেও নেই। এটি শরীরের জন্য খুবই উপকারী। মাঝেমধ্যেই আলু পোস্ত খেতে পারেন।

► শরীরে আয়রনের অভাব দেখা দিয়েছে? তাহলে তিসি বীজ খাওয়া শুরু করুন। ১ কাপ তিসি বীজে ৯.৬ মিলিগ্রাম আয়রন রয়েছে যা আপনার শরীরের আয়রনের অভাব পূরণ করবে সহজেই।

এই পাতার আরো খবর
সর্বাধিক পঠিত
up-arrow