Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:৩৯
জেনে রাখা ভালো
জেনে রাখা ভালো

বর্তমান প্রেক্ষাপটে মানুষের গড় আয়ু বেড়েছে। সারা বিশ্বেই এখন প্রবীণ ব্যক্তির সংখ্যা বেড়ে চলেছে যা ২০৫০ সালে ৯.৫ বিলিয়ন মানুষের মাধ্যে ২ বিলিয়ন মানুষ থাকবে ৬০ বছর বা তার অধিক বয়সের।

এছাড়া ৪০০ মিলিয়ন মানুষ থাকবে যাদের বয়স ৮০ বছর কিংবা তারও অধিক। আর এই অধিক সংখ্যক প্রবীণ ব্যক্তিদের বিভিন্ন স্বাস্থ্য সমস্যার মধ্যে ডিজেনারেটিভ ডিজিজ বা বয়স বৃদ্ধিজনিত সমস্যা বেশি থাকবে। যেমন— হাড়ের ক্ষয়জনিত সারভাইক্যাল-স্পন্ডাইলোসিস, লাম্বার-স্পন্ডাইলোসিস, অস্টিও-আথ্রাইটিস, স্ট্রোকজনিত প্যারালাইসিস বা শারীরিক অক্ষমতা, ডিমেনশিয়া, পারকিনসন ডিজিজ, অস্টিও-পোরোসিস ইত্যাদি।

এর কারণে ঘাড় ব্যথা, কোমর ব্যথা. হাঁটু ব্যথা, কাঁধে ব্যথা ইত্যাদি সমস্যার কারণে প্রবীণ ব্যক্তিরা তাদের স্বাভাবিক জীবনযাপন করতে পারে না এবং অধিকাংশ প্রবীণ ব্যক্তির ডায়াবেটিস, হাই-পারটেনশন বা উচ্চ রক্তচাপ, কিডনি রোগ ইত্যাদি অসুখে ভুগে থাকেন। যার ফলে প্রবীণ ব্যক্তি যদি স্বাভাবিক হাঁটাচলা করতে না পারে তার ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ থাকে না, অন্যদিকে দীর্ঘদীন ব্যথানাশক ওষুধ সেবন কিডনি, লিভারের মতো গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ বিকল করে দিতে পারে। তাই এই প্রবীণ জনগোষ্ঠীকে ব্যথামুক্ত ও স্বাভাবিক জীবনযাপনের উপযোগী রাখতে ফিজিওথেরাপি ও পুনর্বাসন চিকিৎসা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। এক পরিসংখ্যান অনুযায়ী দেখা যায় গড় আয়ু বাড়ার সঙ্গে প্র্রতি বছর ৫ মিলিয়ন স্ট্রোকজনিত বিকলাঙ্গতা, ১০ মিলিয়ন ডিমেনশিয়ার রোগী ও ৩২% বয়স্ক মানুষের হাঁটাচলার সময় পড়ে যাওয়ার ঝুঁকি থাকে এসব সমস্যা সমাধানে ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে এই কারণে এবার ফিজিওথেরাপি দিবসের স্লোগান- ‘বয়সের সঙ্গে প্রাণ যোগ করুন’। কারণ অক্ষম হয়ে পড়ে থাকলে প্রবীণ ব্যক্তিরা পরিবার তথা সমাজের কাছে বোঝা হিসেবে পরিগণিত হবে। তাছাড়া ফিজিওথেরাপি চিকিৎসাবিজ্ঞানের একটি গুরুত্বপূর্ণ শাখা যা চিকিৎসাবিজ্ঞানের বিভিন্ন বিভাগের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িত যেমন : অর্থোপেডিক্স, নিউরোলজি, পেডিয়াট্রিকস, স্পোর্টস ইনজুরি ইত্যাদি।

ডা. এম ইয়াছিন আলী

চেয়ারম্যান, ঢাকা সিটি ফিজিওথেরাপি হাসপাতাল।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow