Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৪ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৩ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:২২
জেনে রাখা ভালো
স্বাস্থ্য ডেস্ক

শিশু ভূমিষ্ঠ হওয়ার পর বেঁচে থাকা, বৃদ্ধি পাওয়া, অপুষ্টিজনিত বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধ করে শিশুকে প্রতিকূল পরিবেশের বিরুদ্ধে টিকে থাকার জন্য মাতৃদুগ্ধের কোনো বিকল্প নেই। তাই শিশুস্বাস্থ্য সুরক্ষায় মাতৃদুগ্ধ এক অব্যর্থ টনিক।

কিন্তু এর গুণাগুণ সম্পর্কে প্রসূতি মায়েরা অবগত না হওয়ার কারণে প্রসূতি মায়েরা বুকের দুধের পরিবর্তে শিশুদের কৃত্রিম দুধ খাওয়াতে অভ্যস্ত। আবার অনেক মা-ই শিশুদের  দুগ্ধদানের ক্ষেত্রে অনভিজ্ঞ। তাই মায়েদের সঠিক বাস্তব জ্ঞান ও কৌশলাদি প্রয়োগের অভাবে মায়েদের স্তনে পর্যাপ্ত দুধ থাকা সত্ত্বেও তাদের ক্ষুধার্ত শিশুরা চাহিদা অনুযায়ী মায়ের দুধ থেকে বঞ্চিত হয়। ফলে শিশুরা নীরবে অপুষ্টির দিকে ধাবিত হয়ে বিভিন্ন রোগব্যাধির শিকার হয়। এই অপুষ্টি দূরীকরণার্থে ছয় মাস বয়স পর্যন্ত শিশুকে শুধু বুকের দুধ খাওয়ানো নিশ্চিত করতে হবে। মনে রাখতে হবে শিশুর জন্মের সঙ্গে সঙ্গে (অবশ্যই এক ঘণ্টার মধ্যে) মায়ের স্তন চুষতে দিতে হবে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow