Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বুধবার, ১২ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১১ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:২৫
রক্তশূন্যতা নিয়ে কিছু কথা
রক্তশূন্যতা নিয়ে কিছু কথা

বাংলাদেশের প্রতি ১০০ জনে ৫৫.৩ মানুষ রক্তশূন্যতায় ভোগে। এর ৬৬.৩% নারী। আয়রনের অভাবে দেহে রক্তশূন্যতা দেখা দেয়। আয়রন মূলত লোহিত কণিকার মধ্যে থাকে এবং অক্সিজেন পরিবহনের মাধ্যমে দেহের সব কোষকে সতেজ রাখে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, হিমোগ্লোবিন (gm/dl)  অনুযায়ী  রক্তশূন্যতার প্রকারভেদ : হালকা (১০-১০.৯), মাঝারি (৭-১০), তীব্র (৪-৬.৯), গুরুতর (৪ থেকে কম)।

উপসর্গ : ১) শরীর ও চেহারা ফ্যাকাসে হয়ে যাওয়া। ২) দুর্বলতা। ৩) বুক ধড়ফড় করা। ৪) সামান্য পরিশ্রমে হাঁপিয়ে যাওয়া ও ব্যয়ামের পর শ্বাসকষ্ট হওয়া। ৫) কানে ঝিঁঝিঁ শব্দ শোনা। ৬) খাবারে অরুচি ও ক্ষুধামন্দা. ৭) নখ ভঙ্গুর হওয়া বা নখের আকৃতি চামচের মতো হওয়া। ৮) কাজকর্ম পড়ালেখায় অমনোযোগী হওয়া।

কারণসমূহ : ১) খাদ্যতালিকায় আয়রন সমৃদ্ধ খাবার পর্যাপ্ত পরিমাণে না থাকা। ২) কোনো কারণে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ। রক্তক্ষরণের কারণগুলো হলো :

ক) মাসিকে অতিরিক্ত রক্তস্রাব। খ) শরীরে কৃমির সংক্রমণ। গ) পরিপাকতন্ত্রে আলসার। ঘ) অপারেশনের সময়/জখম পরবর্তী অতিরিক্ত রক্তপাত। ঙ) অতিরিক্ত ব্যথানাশক ওষুধ/স্টেরয়ড ব্যবহারে পাকস্থলী থেকে রক্তক্ষরণ। চ) পাইলস। ৩)  আয়রনের চাহিদা বৃদ্ধি (নবজাতককে স্তন্যদানের সময় শিশুর শারীরিক বৃদ্ধির সময় আয়রনের চাহিদা বাড়ে।)  

ডা.  রুশদানা রহমান তমা

কনসালটেন্ট (গাইনি)

সরকারি কর্মচারী হাসপাতাল toma499@yahoo.com

এই পাতার আরো খবর
up-arrow