Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, রবিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : বুধবার, ১২ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১১ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:২৫
রক্তশূন্যতা নিয়ে কিছু কথা
রক্তশূন্যতা নিয়ে কিছু কথা

বাংলাদেশের প্রতি ১০০ জনে ৫৫.৩ মানুষ রক্তশূন্যতায় ভোগে। এর ৬৬.৩% নারী।

আয়রনের অভাবে দেহে রক্তশূন্যতা দেখা দেয়। আয়রন মূলত লোহিত কণিকার মধ্যে থাকে এবং অক্সিজেন পরিবহনের মাধ্যমে দেহের সব কোষকে সতেজ রাখে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, হিমোগ্লোবিন (gm/dl)  অনুযায়ী  রক্তশূন্যতার প্রকারভেদ : হালকা (১০-১০.৯), মাঝারি (৭-১০), তীব্র (৪-৬.৯), গুরুতর (৪ থেকে কম)।

উপসর্গ : ১) শরীর ও চেহারা ফ্যাকাসে হয়ে যাওয়া। ২) দুর্বলতা। ৩) বুক ধড়ফড় করা। ৪) সামান্য পরিশ্রমে হাঁপিয়ে যাওয়া ও ব্যয়ামের পর শ্বাসকষ্ট হওয়া। ৫) কানে ঝিঁঝিঁ শব্দ শোনা। ৬) খাবারে অরুচি ও ক্ষুধামন্দা. ৭) নখ ভঙ্গুর হওয়া বা নখের আকৃতি চামচের মতো হওয়া। ৮) কাজকর্ম পড়ালেখায় অমনোযোগী হওয়া।

কারণসমূহ : ১) খাদ্যতালিকায় আয়রন সমৃদ্ধ খাবার পর্যাপ্ত পরিমাণে না থাকা। ২) কোনো কারণে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ। রক্তক্ষরণের কারণগুলো হলো :

ক) মাসিকে অতিরিক্ত রক্তস্রাব। খ) শরীরে কৃমির সংক্রমণ। গ) পরিপাকতন্ত্রে আলসার। ঘ) অপারেশনের সময়/জখম পরবর্তী অতিরিক্ত রক্তপাত। ঙ) অতিরিক্ত ব্যথানাশক ওষুধ/স্টেরয়ড ব্যবহারে পাকস্থলী থেকে রক্তক্ষরণ। চ) পাইলস। ৩)  আয়রনের চাহিদা বৃদ্ধি (নবজাতককে স্তন্যদানের সময় শিশুর শারীরিক বৃদ্ধির সময় আয়রনের চাহিদা বাড়ে। )  

ডা.  রুশদানা রহমান তমা

কনসালটেন্ট (গাইনি)

সরকারি কর্মচারী হাসপাতাল toma499@yahoo.com

এই পাতার আরো খবর
up-arrow