Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:৪১
ফেসবুকে যে ৩টি তথ্য ফাঁস করবেন না
ফেসবুকে যে ৩টি তথ্য ফাঁস করবেন না

দিনে দিনে ফেসবুকসহ অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়ার জনপ্রিয়তা ও ব্যবহার যেমন বাড়ছে, তেমনই বাড়ছে ফেসবুকে আপনার শেয়ার করা তথ্যকে কেন্দ্র করে জালিয়াতির বহরও। ফেসবুক বা অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশিরভাগ মানুষই তার নিজের আসল নাম, জন্ম তারিখ এবং বাসস্থানের কথা জানিয়ে দেন তার প্রোফাইলে। এর ফলে দুষ্কৃতদের কাজ আরও সহজ হয়ে যায়। তিন ধরনের তথ্য কোনোভাবেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ফাঁস করা উচিত নয়।

১. ভোটার আইডি কার্ড, এটিএম কার্ড : নতুন ড্রাইভিং লাইসেন্স বা ভোটার আইডি কিংবা এটিএম কার্ড পাওয়ার আনন্দে অনেকেই এসব কার্ডের ছবি পোস্ট করে দেন ফেসবুকে। কেউ বা ভোটার আইডি কার্ডে নিজের বিকৃত ছবিটি নিয়ে ঠাট্টা করার সময় নমুনা হিসেবে ওই কার্ডের ছবিটিও জুড়ে দেন। এটা একেবারেই বোকামি। কারণ এ ধরনের কার্ডে নাগরিক হিসেবে একান্তভাবে আপনার সঙ্গে জড়িত তথ্যগুলো লিখিত থাকে। ছবি, জন্ম তারিখ এবং অন্যান্য ব্যক্তিগত তথ্য যদি আইডেন্টিটি থিফদের হাতে চলে যায়, তাহলে তা হাতিয়ে নিয়ে বেআইনি কাজকর্মে লিপ্ত হওয়া তাদের বাঁ-হাতের কাজ।

২. বেড়াতে যাওয়ার পরিকল্পনার কথা : হয়তো আগামী সপ্তাহে কোথাও বেড়াতে যাবেন। তার জন্য উত্তেজনার বশে যদি এখন থেকেই ফেসবুকে পোস্ট দিতে শুরু করেন যে, আগামী অমুক থেকে তমুক তারিখ রাঙামাটি থাকবেন তাহলে আপনার অনুপস্থিতির সুযোগ নিতে পারে চোরেরা।

৩. ব্যাংক অ্যাকাউন্ট  : প্রথম বেতনের চেক পাওয়ার পরে অনেকেই আবেগের বশে সেই চেকের ছবি পোস্ট করে দেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। এটা বিপজ্জনক। কারণ এই উপায়ে সাইবার অপরাধীরা আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নম্বরসহ অন্যান্য জরুরি তথ্য হাতিয়ে নিতে পারেন। কাজেই আর্থিক লেনদেন বা ব্যাংক অ্যাকাউন্ট সংক্রান্ত কোনো তথ্য যাতে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ না পায়, সে ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে।

up-arrow