Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ জানুয়ারি, ২০১৭

প্রকাশ : ১৬ জুলাই, ২০১৬ ১১:২৭
আপডেট : ১৬ জুলাই, ২০১৬ ১১:৩৩
তুরস্কে অভ্যুত্থান চেষ্টা ব্যর্থ, নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে সরকার
অনলাইন ডেস্ক
তুরস্কে অভ্যুত্থান চেষ্টা ব্যর্থ, নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে সরকার
আটক হওয়া বিদ্রোহী সেনাসদস্যদের কয়েকজন

তুরস্কে সেনাবাহিনীর একটি অংশের অভ্যুত্থান চেষ্টা ব্যর্থ করে দেওয়া হয়েছে। সরকার আবার পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ গ্রহণ করেছে। প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এর্দোগানের আহ্বানে সাড়া দিয়ে হাজার হাজার মানুষ রাস্তায় নেমে এসেছে। গ্রেফতার করা হয়েছে বিদ্রোহে অংশ নেওয়া সেনাসদস্যদের অধিকাংশকে। সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, বিদ্রোহের অবসান ঘটেছে, সারা দেশে সরকারের নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা হয়েছে।

অভ্যুত্থানের সময় প্রেসিডেন্ট কৃষ্ণ সাগরীয় এলাকায় অবকাশ যাপন করছিলেন। তিনি অভ্যুত্থানের খবর পেয়েই দৃঢ়ভাবে তা প্রতিরোধের নির্দেশ দেন। তিনি রাজধানীতে ফিরে আসার উদ্যোগ নেন। তার আহ্বানে সাড়া দিয়ে রাস্তায় নেমে আসে লাখো মানুষ।

শুক্রবার রাতে সামরিক বাহিনীর একটি অংশ দাবি করেছিল, তারা দেশের সব নিয়ন্ত্রণ গ্রহণ করেছে। তারা সারা দেশে সামরিক আইন কারফিউ জারি করেছে। ইস্তানবুলের আতাতুর্ক বিমানবন্দর বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। বিমানবন্দরের বাইরে সামরিক ট্যাংক মোতায়েন করা হয়েছে।

বিদ্রোহীরা পার্লামেন্ট ভবনের বাইরেও গোলাবর্ষণ করে। তারা সেনাপ্রধান হুলসি আকারকে পণবন্দি করে বলে আনাদুলু এজেন্সি জানিয়েছে। রাজধানী আঙ্কারার আকাশে সামরিক বিমান উড়ার শব্দও শোনা গেছে।

তবে পুলিশ জানিয়েছে, যেসব সৈন্য সামরিক অভ্যুত্থানচেষ্টার সাথে জড়িত ছিল তাদের বেশির ভাগকে আটক করা হয়েছে।

তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইয়িলদিরিম শনিবার ভোরে জানান, তুরস্ক সেনাবাহিনীর একটি অংশ দৃশ্যত ক্যু করার চেষ্টা করেছিল। গণতন্ত্রকে বাধাগ্রস্ত করার কোনো চেষ্টা বরদাস্ত করা হবে না। তাদের দমন করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

এদিকে দেশটির সরকারি আইনজীবীদের কার্যালয় থেকে জানানো হয়েছে, রাতব্যাপী সংঘর্ষে ৪২ জন নিহত হয়েছে। এদের অধিকাংশই বেসামরিক নাগরিক। এর আগে অভ্যুত্থানকারী সেনারা পুলিশের স্পেশাল ফোর্সের সদর দপ্তরে হেলিকপ্টার দিয়ে হামলা চালালে নিহত হয়েছে ১৭ পুলিশ কর্মকর্তা। তবে ওই হেলিকপ্টারটিকে ভূপাতিত করা হয়েছে বলে প্রেসিডেন্টের সদর দপ্তর থেকে জানানো হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইলদিরিম বলেছেন, পরিস্থিতি এখন সরকারের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। রাজধানী আঙ্কারার আকাশে বিমান উড্ডয়ন নিষিদ্ধ করা হয়েছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ১৩০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বিদ্রোহীরা যেসব হেলিকপ্টার ব্যবহার করছে সেনাবাহিনীকে সেগুলো ভূপাতিতের নির্দেশও দিয়েছেন তিনি।

এদিকে ইস্তাম্বুলের রাস্তায় নেমে আসা এর্দোগান সমর্থকদের লক্ষ্য করে সেনাবাহিনী গুলি ছুঁড়েছে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি। আহতদের অ্যাম্বুলেন্সে করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে বার্তা সংস্থাটির এক চিত্রসাংবাদিক জানিয়েছেন।

বিডি-প্রতিদিন/এস আহমেদ

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow