Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ২৩ জুলাই, ২০১৬ ১০:২৪
আপডেট : ২৩ জুলাই, ২০১৬ ১০:২৬
আমেরিকা-রাশিয়ার সাঁড়াশি অাক্রমণে দিশাহারা আইএস
অনলাইন ডেস্ক
আমেরিকা-রাশিয়ার সাঁড়াশি অাক্রমণে দিশাহারা আইএস

সিরিয়ার একপ্রান্তে হিজবুল্লাহ ও আসাদ বাহিনীকে সঙ্গে নিয়ে ইসলামিক স্টেট তথা আইএস জঙ্গিদের কোণঠাসা করে ফেলেছে রাশিয়া। অন্যপ্রান্তে আরব ও কুর্দি জোটের সেনাদের নিয়ে আইএসকে বড় চ্যালেঞ্জের মুখে দাঁড় করিয়ে দিয়েছে আমেরিকা। মার্কিনিদের সহায়তায় জোট সেনারা ঘিরে ফেলেছে আইএস ঘাঁটি 'ম্যানবিজ' শহর। আগামী কয়েকদিনের মধ্যে 'ম্যানবিজ' দখল করে ফেলতে পারে তারা। ফলে আরও সঙ্কটের মুখে পড়বে বিশ্বব্যাপী সন্ত্রাসবাদী এই সংগঠনটি।

আকাশ পথে মার্কিন যুদ্ধবিমানের হামলা গুঁড়িয়ে দিচ্ছে আইএসের ঘাঁটি, অস্ত্রাগার, সেনা ও পরিবহণ ব্যবস্থা। গ্রাউন্ড লেভেলে ধীরে ধীরে চারপাশ থেকে এগিয়ে শহর ঘিরে ফেলছে সশস্ত্র যোদ্ধারা। আর এভাবেই সাঁড়াশি আক্রমণ চালিয়ে আইএস জঙ্গিদের হাত থেকে সিরিয়ার 'মানবিজ' শহর ছিনিয়ে নেওয়ার পথে এগিয়ে যাচ্ছে আরব ও কুর্দি সেনাদের জোট।

লডাই চলছে প্রতিটি রাস্তা, প্রতিটি বাড়ির জন্য। এক পা এক পা করে এগিয়ে যাচ্ছে জোট। ২০১৪ সাল থেকে ম্যানবিজ শহর আইএসের দখলে। তবে জুন মাস থেকে অভিযান চালিয়ে ম্যানবিজ শহর ঘিরে ফেলেছে জোটের সেনারা। কিন্তু জমি ছাড়তে রাজি নয় আইএসও। মরণপন প্রতিরোধে নেমেছে তারা। অন্যদিকে, আইএসকে আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে শহরটি খালি করে দেওয়ার আলটিমেটাম দিয়েছে মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোট। এখন পর্যন্ত অর্ধ শতাধিক বেসামরিক নাগরিক নিহত হলেও বিমান হামলা চালিয়ে যাবে বলে ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

দুপক্ষের মরণপণ যুদ্ধের মাঝে পড়ে বিপন্ন ম্যানবিজের নাগরিকেরা। আইসিসের অত্যাচারের ভয়ে শহর ছেড়েছেন তারা। তাঁদের অবস্থা কার্যত উদ্বাস্তুদের মতো। গত কয়েকদিন ধরে মেলেনি এক টুকরা খাবার। কার্যত অনাহারে দিন কাটছে তাদের। কাউকে সামনে পেলেই ক্ষোভ উগরে দিচ্ছেন তারা। আবার খাবার পাওয়া যাবে শুনলেই ছুটছেন এদিন-ওদিন জ্ঞানশূন্য হয়ে। শহরে ঢুকলে খুন করবে আইএস। শহর ছাড়লে মরতে হবে অনাহারে। উভয় সঙ্কটে পড়ে তাদের অবস্থা রীতিমতো শোচনীয়।

এরই মাঝে সিরিয়ার সরকারি কর্তৃপক্ষ চেষ্টা করছে প্রয়োজনীয় রসদ পৌঁছে দেওয়ার। এই পরিস্থিতিতে ম্যানবিজের দক্ষিণাঞ্চল নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে জোট সেনারা। কয়েকদিনের মধ্যেই শুরু হবে চূড়ান্ত অভিযান। নিঃশব্দে চলছে তার প্রস্তুতি। ম্যানবিজের পতন হলে আইএসকে একেবারে তুরস্ক সীমান্তের কাছে ঠেলে নিয়ে যাবে জোট বাহিনী। সীমান্তের ওপারে আইএস ঠেকাতে প্রস্তুত সেন্যাভুক্ত তুর্কি সেনারা। সিরিয়া সীমান্তে এভাবে মরণফাঁদে পড়েই ইউরোপের বিভিন্ন শহরে মরিয়া সন্ত্রাস চালাচ্ছে আইএস।


সূত্র: জি নিউজ

বিডি-প্রতিদিন/২৩ জুলাই, ২০১৬/মাহবুব

 

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow